সিনহার পদত্যাগ

সবার দৃষ্টি বঙ্গভবনে

প্রকাশ: ১৩ নভেম্বর ২০১৭      

সমকাল প্রতিবেদক

সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় বহাল থাকা অবস্থায় প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার পদত্যাগপত্র গ্রহণ করে নতুন একজনকে প্রধান বিচারপতি পদে নিয়োগে সময় লাগতে পারে। এ বিষয়ে আইন বিশেষজ্ঞদের একাধিক মত পাওয়া গেছে।


দেশের ২২তম প্রধান বিচারপতি কে হচ্ছেন? তা জানতে দেশবাসীর দৃষ্টি এখন বঙ্গভবনের দিকে। স্বাভাবিক অবস্থায় প্রধান বিচারপতি অবসরে যাওয়ার আগেই নতুন প্রধান বিচারপতি নিয়োগের প্রক্রিয়া চূড়ান্ত করা হয়। তবে এবার মেয়াদ শেষ হওয়ার ৮২ দিন আগে প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা বিদেশে বসে পদত্যাগ করায় নিয়োগ প্রক্রিয়া চূড়ান্ত করা নিয়ে অভাবিত পরিস্থিতির উদ্ভব হয়েছে।


সংবিধানে প্রধান বিচারপতির পদ শূন্য ঘোষণা করার তিনটি বিষয়ের কথা বলা হয়েছে। এক. ৬৭ বছর বয়স পূর্ণ হলে। দুই. অপসারিত হলে এবং তিন. পদত্যাগের মাধ্যমে। ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায় বহাল থাকা অবস্থায় পদত্যাগের পথ রুদ্ধ হয়ে গেছে। ওই রায়ে বর্তমান (পঞ্চদশ সংশোধনী অনুযায়ী) সংবিধানের ৯৬(৮) অনুচ্ছেদে বর্ণিত দফাটি বাতিল করা হয়েছে। ৯৬(৮) অনুচ্ছেদে বলা হয়েছে, 'কোনো বিচারক রাষ্ট্রপতিকে উদ্দেশ্য করিয়া স্বাক্ষরযুক্ত পত্রযোগে স্বীয় পদ ত্যাগ করিতে পারবেন।'


সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার শফিক আহমেদ বলেছেন, পদত্যাগ করার অধিকার সবারই আছে। প্রধান বিচারপতির পদটি শূন্য হয়েছে। তাই সংবিধানের ৯৫(১) অনুচ্ছেদ অনুসারে রাষ্ট্রপতি একক সিদ্ধান্তে প্রধান বিচারপতি পদে আপিল বিভাগের যে কাউকেই নিয়োগ দিতে পারেন।


তবে সংবিধান বিশেষজ্ঞ শাহদীন মালিক মনে করেন, উদ্ভূত পরিস্থিতিতে সংবিধানের ১০৬ অনুচ্ছেদ অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি আপিল বিভাগের বিবেচনার জন্য এ বিষয়টি পাঠাতে পারেন।


নতুন প্রধান বিচারপতি নিয়োগের বিষয়ে গতকাল রোববার বিকেলে আইন মন্ত্রণালয়ে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, রাষ্ট্রপতির কার্যালয় থেকে কোনো সিদ্ধান্ত মন্ত্রণালয়ে পৌঁছায়নি। সিদ্ধান্ত পাওয়া গেলে নিয়োগের বিষয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ নেওয়া হবে।


এ বিষয়ে জানতে চাইলে আইন সচিব আবু সালেহ শেখ মো. জহিরুল হক সমকালকে বলেন, 'রাষ্ট্রপতির দপ্তর থেকে প্রধান বিচারপতি নিয়োগের বিষয়ে কোনো ফাইল মন্ত্রণালয়ে এখনও আসেনি। সিদ্ধান্ত পাওয়া গেলে পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।'


বিদায়ী প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার পদত্যাগের বিষয়টি মন্ত্রণালয়কে অবহিত করা হয়েছে কি-না, সে বিষয়ে আইন সচিব বলেন, 'ফাইল আসেনি। তবে মৌখিকভাবে বিষয়টি জেনেছি।'


জাতীয় সংসদ সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী পাসের মাধ্যমে উচ্চ আদালতের বিচারকদের অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে নিয়েছিল। সুপ্রিম কোর্ট তা অসাংবিধানিক বলে বাতিল করে রায় দেওয়ায় দেশে বিচার বিভাগ ও সরকারের মধ্যে টানাপড়েন সৃষ্টি হয়েছে।


একাধিক আইনজ্ঞের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, ষোড়শ সংশোধনীর মাধ্যমে সংবিধানের ৯৬ অনুচ্ছেদের ১ দফা ছাড়া ২ থেকে ৮ দফার পরিবর্তে যে সংশোধনী জাতীয় সংসদ পাস করে তাতে নতুন ২, ৩ ও ৪ নম্বর দফা প্রতিস্থাপন করা হয়। হাইকোর্টের রায়ে এই সংশোধনীর পুরো আইন তথা গেজেট বিজ্ঞপ্তিটিই বাতিল ঘোষণা করা হয়। এর ৪ নম্বর দফায় বিচারপতিদের পদত্যাগের অধিকার দেওয়া ছিল। পরে রাষ্ট্রপক্ষের আপিল আবেদন খারিজ করে সর্বসম্মতিতে হাইকোর্টের রায় বহাল রাখেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। একই সঙ্গে ষোড়শ সংশোধনীর আগের ২ থেকে ৭ নম্বর দফা পর্যন্ত পুনর্বহাল করা হয়। কিন্তু সংবিধানে বর্ণিত পদত্যাগ করার বিধান সংবলিত ৮ নম্বর দফাটি ওই রায়ে পুনর্বহাল করা হয়নি। ফলে বিচারপতিদের পদত্যাগ করার বিধান এখন সংবিধানে নেই।


এ বিষয়ে ড. শাহদীন মালিক সমকালকে বলেন, ষোড়শ সংশোধনী মামলার রায়ে সংবিধানে বর্ণিত ৯৬(৮) দফা অর্থাৎ পদত্যাগ করার অধিকার বাতিলের বিষয়টি বড় ভুল হয়েছে। অসাবধানতাবশত হয়েছে বলেই মনে হয়। এতদ্‌সত্ত্বেও রাষ্ট্রপতি চাইলে নতুন প্রধান বিচারপতি নিয়োগ দিতে পারেন। তিনি বলেন, তবে পদত্যাগের বিষয়টি নিয়ে যেহেতু প্রশ্ন উঠেছে, সে ক্ষেত্রে রাষ্ট্রপতি এ বিষয়ে সংবিধানের ১০৬ অনুচ্ছেদ অনুসারে আপিল বিভাগের মতামতও চাইতে পারেন। আবার ষোড়শ সংশোধনী মামলায় আপিল বিভাগের রায় পুনর্বিবেচনার (রিভিউ) আবেদন করে তার ওপর আদালতের স্থগিতাদেশ নিয়েও প্রধান বিচারপতি নিয়োগ দেওয়া সম্ভব বলে মনে করেন এই আইনজ্ঞ।


সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ আইনজীবী শাহ্‌দীন মালিক আরও বলেন, প্রধান বিচারপতির পদ শূন্য থাকলে ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি নবনিযুক্ত বিচারকদের শপথ পড়াতে পারবেন না। এ জন্য হাইকোর্ট ও আপিল বিভাগে বিচারক নিয়োগ দিতে হলে আগে প্রধান বিচারপতি নিয়োগের বিষয়টি সুরাহা হওয়া প্রয়োজন।


অবশ্য ভারপ্রাপ্ত প্রধান বিচারপতি নবনিযুক্তদের শপথ পড়াতে পারবেন বলে মত দিয়েছেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। তার মতে, 'এ ক্ষেত্রে আইনগত কোনো সমস্যা নেই। কারণ বাস্তবতা বিবেচনা করতে হবে। একজনের জন্য তো আর সব কাজ বন্ধ থাকতে পারে না।'


প্রধান বিচারপতির পদত্যাগের বিষয়টি আইনি প্রক্রিয়ায় হয়েছে কি-না, এমন প্রশ্নে অ্যাটর্নি জেনারেল বলেন, এটা রাষ্ট্রপতি হয়ে আইন মন্ত্রণালয়ে যায়। গেজেট প্রকাশ করতে হয়। সেগুলো বড় কথা নয়, সংবিধানে আছে- তিনি স্বহস্তে দরখাস্ত করে রাষ্ট্রপতির কাছে দিলে এটা কার্যকর হবে। সে অনুযায়ী প্রধান বিচারপতির পদত্যাগ কার্যকর হয়েছে।


সংবিধানের ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়সহ বিভিন্ন ইস্যুতে আলোচনা-সমালোচনার মধ্যে ২ অক্টোবর অসুস্থতাজনিত কারণে ছুটিতে যান প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা। পরে তিনি অস্ট্রেলিয়ার উদ্দেশে ১৩ অক্টোবর ঢাকা ছাড়েন। যাওয়ার আগে প্রধান বিচারপতি লিখিত বক্তব্যে সাংবাদিকদের বলেন, তিনি অসুস্থ নন। পরদিন এ ঘটনায় সুপ্রিম কোর্ট প্রশাসন এক বিবৃতিতে জানায়, প্রধান বিচারপতির বিরুদ্ধে ১১টি দুর্নীতি ও অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে। এ বিষয়ে তার কাছ থেকে কোনো সদুত্তর পাওয়া যায়নি। এরই ধারাবাহিকতায় গত ১০ নভেম্বর সিঙ্গাপুরে বাংলাদেশ হাইকমিশনে পদত্যাগপত্র জমা দেন প্রধান বিচারপতি।

আরও পড়ুন

নৌকায় চড়তে চান নাজমুল হুদা

নৌকায় চড়তে চান নাজমুল হুদা

বিএনপির এক সময়কার ডাকসাইটে নেতা ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা এখন আওয়ামী ...

ন্যায়বিচার চায় পরিবার

ন্যায়বিচার চায় পরিবার

কুমিল্লার কলেজছাত্রী সোহাগী জাহান তনু হত্যাকাণ্ডের এক বছর আট মাস ...

 আওয়ামী লীগে দ্বন্দ্ব-বিবাদ বিএনপিতে দুর্বল প্রার্থী

আওয়ামী লীগে দ্বন্দ্ব-বিবাদ বিএনপিতে দুর্বল প্রার্থী

নরসিংদী-৫ (রায়পুরা) আসনে একাধিক মনোনয়নপ্রার্থী থাকায় অভ্যন্তরীণ মতানৈক্য প্রকট হয়ে ...

হাজারীখিল মাতাচ্ছে ১২৩ প্রজাতির পাখি

হাজারীখিল মাতাচ্ছে ১২৩ প্রজাতির পাখি

মথুরা, কাঠময়ূর ও হুদহুদ। আন্তর্জাতিক প্রকৃতি ও প্রাকৃতিক সম্পদ সংরক্ষণ ...

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে বৃহস্পতিবার চুক্তি হতে পারে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে বৃহস্পতিবার চুক্তি হতে পারে: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

রাখাইন রাজ্যে সহিংসতা থেকে বাঁচতে পালিয়ে সীমান্ত অতিক্রম করে বাংলাদেশে ...

হরিষে বিষাদ

হরিষে বিষাদ

ভাগ্নির বিয়েতে আনন্দে নাচানাচি করছিলেন মামা শাহাবুল ইসলাম (২৮)। কিন্তু পাশেই ...

বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে বাড়তি ক্লাস নেওয়ার নির্দেশ

বাল্যবিয়ে প্রতিরোধে বাড়তি ক্লাস নেওয়ার নির্দেশ

দেশের প্রতিটি উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজে বাল্যবিয়ে আর নারীর প্রতি ...

'সরকার নামানোর শক্তি থাকলে মওদুদ চেষ্টা করে দেখতে পারেন'

'সরকার নামানোর শক্তি থাকলে মওদুদ চেষ্টা করে দেখতে পারেন'

আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, 'সরকারকে ...