২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলা: রাষ্ট্রপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন অব্যাহত

মুফতি হান্নান গ্রেফতারে ক্ষিপ্ত হয়েছিলেন বাবর

প্রকাশ: ১৪ নভেম্বর ২০১৭     আপডেট: ১৪ নভেম্বর ২০১৭      

সমকাল প্রতিবেদক

ফাইল ছবি

বহুল আলোচিত ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার আসামি জঙ্গি নেতা মুফতি হান্নানকে গ্রেফতার করায়র্ যাবের তৎকালীন (ডিজি) মহাপরিচালকের ওপর ক্ষিপ্ত হয়েছিলেন সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর। তাকে না জানিয়ে কেন হুজি নেতা মুফতি আবদুল হান্নানকে গ্রেফতার করা হলো সে বিষয় তিনি মহাপরিচালকের কাছে জানতে চান।

মঙ্গলবার ঢাকার এক নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক শাহেদ নূর উদ্দিনের আদালতে যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের দশম দিনে এ তথ্য উপস্থাপন করেন রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি সৈয়দ রেজাউর রহমান। তাকে সহযোগিতা করেন আইনজীবী একরামউদ্দিন শ্যামল, ফারহানা রেজা, মো. আমিনুর রহমান, আবুল হাসনাত ও আশরাফ হোসেন।

মঙ্গলবার রাষ্ট্রপক্ষের যুক্তি উপস্থাপন শেষ না হওয়ায় আজ বুধবার পরবর্তী যুক্তি উপস্থাপনের জন্য দিন ধার্য করেন আদালত। ব্রিটিশ হাইকমিশনার আনোয়ার চৌধুরী হত্যা চেষ্টা মামলায় মুফতি হান্নানের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়ায় এ মামলা থেকে তার নাম বাদ দেওয়া হয়েছে।

রাজধানীর পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডে পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারের পাশে স্থাপিত ঢাকার ১ নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক শাহেদ নূর উদ্দিনের আদালতে এ মামলার বিচার চলছে।

যুক্তিতর্কে মামলার আসামি মাওলানা মঈনউদ্দিনের দেওয়া স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি তুলে ধরে সৈয়দ রেজাউর রহমান বলেন, সে সময় বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের উপমন্ত্রী আবদুস সালাম পিন্টুর সরকারি বাসভবন থেকে হামলায় ব্যবহূত গ্রেনেডগুলো সরবরাহ করা হয়েছিল। ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট সকালে জঙ্গি নেতা মুফতি আবদুল হান্নানসহ অন্য জঙ্গিরা পিন্টুর ভাই মাওলানা তাজউদ্দিনের কাছ থেকে ১৫টি আর্জেস গ্রেনেড ও ২০ হাজার টাকা নেন। পরে ওইদিন জঙ্গি আহসানউল্লাহ কাজলের রাজধানীর মেরুল বাড্ডার বাসা থেকে প্রস্তুতি নিয়ে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে গিয়ে আওয়ামী লীগের সমাবেশে গ্রেনেড হামলা চালানো হয়।

মুফতি হান্নানের জবানবন্দির সমর্থনে রাষ্ট্রপক্ষে ১২ জন সাক্ষী ফৌজদারি কার্যবিধির ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছেন। তাদের দেওয়া জবানবন্দিতে ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা ছাড়াও সিলেটের বিভিন্ন স্থানের সিপিবি ও উদীচীর সমাবেশে হামলার ঘটনার ষড়যন্ত্র, পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নের বিভিন্ন তথ্য-প্রমাণ উঠে এসেছে।

আরও পড়ুন

শিশুদের মনুষ্যত্ববোধ জাগরণে জোর দিতে হবে: সেলিনা হোসেন

শিশুদের মনুষ্যত্ববোধ জাগরণে জোর দিতে হবে: সেলিনা হোসেন

কথাসাহিত্যিক ও বাংলাদেশ শিশু একাডেমির চেয়ারম্যান সেলিনা হোসেন বলেছেন, শিশুদের ...

মাশরাফি যদি রাজী হয়: পাপন

মাশরাফি যদি রাজী হয়: পাপন

টি-টোয়েন্টিতে মাশরাফির ফেরার ফিরবেন কিনা তা নির্ভর করছে তার ওপরই।টিম ...

ঋণ কেলেঙ্কারিতে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না: বাণিজ্যমন্ত্রী

ঋণ কেলেঙ্কারিতে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না: বাণিজ্যমন্ত্রী

ব্যাংক ঋণ কেলেঙ্কারিতে দায়ী এবং অর্থপাচার প্রতিবেদনের তালিকায় যাদের নাম ...

শূন্যরেখায় থাকা রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেবে মিয়ানমার

শূন্যরেখায় থাকা রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেবে মিয়ানমার

বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির তুমব্রু সীমান্তের শূন্যরেখায় আশ্রয় নেওয়া প্রায় সাত হাজার ...

খালেদা জিয়া নির্বাচনের যোগ্যতা হারালে কিছু করার নেই: ওবায়দুল কাদের

খালেদা জিয়া নির্বাচনের যোগ্যতা হারালে কিছু করার নেই: ওবায়দুল কাদের

আদালতের রায়ে বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার ভাগ্য নির্ধারিত হবে। রায়ে ...

খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে ঐক্যের ডাক ফখরুলের

খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে ঐক্যের ডাক ফখরুলের

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে মুক্ত এবং নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে নির্বাচন ...

পিএসএলে যাচ্ছেন রিয়াদ-মুস্তাফিজ

পিএসএলে যাচ্ছেন রিয়াদ-মুস্তাফিজ

কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটরসের হয়ে পাকিস্তান সুপার লীগের (পিএসএল) খেলতে দুবাই যাচ্ছেন ...

'একটা সময় আমিও হারিয়ে যাব'

'একটা সময় আমিও হারিয়ে যাব'

'জীবন থেকে আনন্দময় সময়গুলো হারিয়ে যাচ্ছে। একটা সময় আমিও হারিয়ে ...