এনআরবিসি ব্যাংকের এমডিকে অপসারণের আদেশ স্থগিত

প্রকাশ: ০৭ ডিসেম্বর ২০১৭     আপডেট: ০৮ ডিসেম্বর ২০১৭      

সমকাল প্রতিবেদক

দেওয়ান মুজিবুর রহমান— ফাইল ছবি

এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের এমডি দেওয়ান মুজিবুর রহমানকে অপসারণের আদেশ স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট।

এক রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে বিচারপতি সৈয়দ মুহম্মদ দস্তগীর হোসেন ও বিচারপতি আতাউর রহমান খানের হাইকোর্ট বেঞ্চ বৃহস্পতিবার এ স্থগিতাদেশ দেন।

এছাড়া মুজিবুর রহমানকে অপসারণের আদেশ কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না— জানতে চেয়ে সংশ্লিষ্টদের প্রতি হাইকোর্ট রুল জারি করেছেন বলে জানিয়েছেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার।

আদালতে আবেদনকারীর পক্ষে শুনানি করেন সিনিয়র আইনজীবী ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার।

গত ৬ ডিসেম্বর ব্যাংক কোম্পানি আইনের ৪৬(১) ধারার ক্ষমতাবলে এনআরবি কমার্শিয়াল ব্যাংকের এমডি দেওয়ান মুজিবুর রহমানকে অপসারণ করে বাংলাদেশ ব্যাংক। এই অপসারণ আদেশের বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট করেন তিনি। তবে বাংলাদেশ ব্যাংক কোনো এমডিকে অপসারণ করলে আদালত থেকে স্থগিতাদেশ নেওয়ার ঘটনা এটিই প্রথম বলে কেন্দ্রীয় ব্যাংক সূত্র জানিয়েছে।

ব্যাংক কোম্পানি আইনের ৪৮(৩) ধারায় বলা হয়েছে, 'এই ধারা বা ধারা ৪৬ বা ৪৭-এর অধীন গৃহীত কোনো ব্যবস্থা, আদেশ বা সিদ্ধান্ত সম্পর্কে কোনো আদালত, ট্রাইব্যুনাল বা অন্য কোনো কর্তৃপক্ষ কোনো প্রকার প্রশ্ন উত্থাপন করিতে পারিবে না এবং অনুরূপ কোনো ব্যবস্থা, আদেশ বা সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে কোনো আদালত, ট্রাইব্যুনাল বা অন্য কোনো কর্তৃপক্ষের কাছে কোনো প্রশ্ন উত্থাপন করা যাইবে না।'

জানতে চাইলে ব্যাংকের এমডি দেওয়ান মুজিবুর রহমান সমকালকে বলেন, 'কেন্দ্রীয় ব্যাংকের নির্দেশনার বিরুদ্ধে স্থগিতাদেশ পেয়েছি। আজ (বৃহস্পতিবার) অফিসও করছি।'

ব্যাংক কোম্পানি আইনের ৪৮ ধারার বিষয়ে অবহিত করা হলে তিনি বলেন, 'আমি আইনের ব্যাখ্যা দিতে পারবো না। আইনের ব্যাখ্যা দেবেন আইনজ্ঞরা।'

দীর্ঘ প্রক্রিয়া শেষে বুধবার এনআরবিসি ব্যাংকের এমডিকে অপসারণ করে বাংলাদেশ ব্যাংক। একই সঙ্গে আগামী দুই বছর ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সব ধরনের চাকরিতে তাকে নিষিদ্ধ করা হয়। ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদে উপস্থিতির বিষয়ে তথ্য গোপনসহ বিভিন্ন অনিয়মের সঙ্গে সম্পৃক্ততা এবং আমানতকারীদের স্বার্থ রক্ষায় ব্যর্থতার দায়ে তার বিরুদ্ধে এ ব্যবস্থা নেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

এর আগে গত বছরের ২০ মার্চ তাকে কেন অপসারণ করা হবে না জানতে চেয়ে নোটিশ দেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। তবে নোটিশের জবাব না দিয়ে ২৮ মার্চ আদালতের স্থগিতাদেশ নেন তিনি। পরে ১২ এপ্রিল স্থগিতাদেশ খারিজ হয়ে যাওয়ার পর নোটিশের জবাব দেন তিনি। তবে তার জবাব সন্তোষজনক না হওয়ায় ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের অনিয়ম-দুর্নীতি প্রতিরোধে গঠিত কেন্দ্রীয় ব্যাংকের স্থায়ী কমিটিতে তাকে শুনানির জন্য ডাকা হয়। গত ১৬ থেকে ২৪ অক্টোবর শুনানি শেষে এই কমিটির সুপারিশের পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার তাকে অপসারণের চিঠি দেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

জানতে চাইলে এনআরবিসির চেয়ারম্যান প্রকৌশলী ফরাছত আলী সমকালকে বলেন, যতই লেখালেখি হোক না কেন, এতে কোনো লাভ হবে না।

'কিক-টু' ছবিতে জ্যাকুলিন

'কিক-টু' ছবিতে জ্যাকুলিন

কিছুদিন আগে সালমান খান এক অনুষ্ঠানে বলেছিলেন, 'কিক' ছবির সিকুয়েল ...

প্রশ্ন ফাঁসে ৫২ মামলায় গ্রেফতার ১৫৩: শিক্ষামন্ত্রী

প্রশ্ন ফাঁসে ৫২ মামলায় গ্রেফতার ১৫৩: শিক্ষামন্ত্রী

চলমান এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার প্রশ্ন ফাঁসের ঘটনায় সারাদেশে ৫২টি ...

বিএনপি নেতারাই খালেদার দীর্ঘ কারাবাস চান: কামরুল

বিএনপি নেতারাই খালেদার দীর্ঘ কারাবাস চান: কামরুল

বিএনপি নেতারাই খালেদা জিয়ার দীর্ঘ কারাবাস চান বলে দাবি করেছেন ...

বুলডোজার দিয়ে রোহিঙ্গা নির্যাতনের আলামত নষ্ট করছে মিয়ানমার: এইচআরডব্লিউ

বুলডোজার দিয়ে রোহিঙ্গা নির্যাতনের আলামত নষ্ট করছে মিয়ানমার: এইচআরডব্লিউ

মিয়ানমারের রাখাইনে সেনাবাহিনীর দমন অভিযানে জনশূন্য হয়ে পড়া রোহিঙ্গা গ্রামগুলো ...

খালেদার জিয়ার জামিনে বিলম্ব বিএনপির প্লাস পয়েন্ট: মওদুদ

খালেদার জিয়ার জামিনে বিলম্ব বিএনপির প্লাস পয়েন্ট: মওদুদ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেছেন, দেশের বিচার ...

বগুড়ায় স্বেচ্ছাসেবক দলের দু'গ্রুপে সংঘর্ষ, নিহত ১

বগুড়ায় স্বেচ্ছাসেবক দলের দু'গ্রুপে সংঘর্ষ, নিহত ১

বগুড়ায় স্বেচ্ছাসেবক দলের দু'গ্রুপের মধ্যে নেতৃত্বের দ্বন্দ্ব ও আধিপত্য বিস্তার ...

রোহিঙ্গাদের ফেরাতে সিঙ্গাপুরের সহযোগিতা চাইলেন রাষ্ট্রপতি

রোহিঙ্গাদের ফেরাতে সিঙ্গাপুরের সহযোগিতা চাইলেন রাষ্ট্রপতি

মিয়ানমার থেকে জোরপূর্বক বাস্তুচ্যুত রোহিঙ্গাদের নিজ দেশে প্রত্যাবর্তনে সিঙ্গাপুরের সহযোগিতা ...

শেরপুরে যুবককে ডেকে নিয়ে গলা কেটে হত্যা

শেরপুরে যুবককে ডেকে নিয়ে গলা কেটে হত্যা

শেরপুর সদর উপজেলায়  ফোন করে পাওনা টাকা দেওয়ার কথা বলে ...