কর্মদিবসে সড়কে মিছিল-সমাবেশ নয়: সেতুমন্ত্রী

প্রকাশ: ০৭ জানুয়ারি ২০১৮     আপডেট: ০৭ জানুয়ারি ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

রোববার নগর ভবনে ঢাকা যানবাহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের পরিচালনা পরিষদের দশম সভায় সভাপতিত্ব করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের—ফোকাস বাংলা

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, যানজটের দুর্ভোগ এড়াতে ছুটির দিন ছাড়া রাজধানীতে সড়কে মিছিল-সমাবেশ করা যাবে না। ঢাকায় বাস চলাচলের জন্য সড়কে আলাদা করিডর হবে। এতে সরকারি বাস চলবে। বাস পরিচালনায় 'বাস নেটওয়ার্ক ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি' গঠন করা হবে। পরীক্ষামূলকভাবে বিমানবন্দর থেকে সায়েদাবাদ ও কুড়িল থেকে পূর্বাঞ্চল সেক্টর-২—এই দুই করিডরে সরকারি ব্যবস্থাপনায় ১০৫টি আর্টিকুলেটেড বাস চলবে।

রোববার ঢাকা যানবাহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষের (ডিটিসিএ) পরিচালনা পরিষদের দশম সভায় এসব সিদ্ধান্ত হয়। নগর ভবনে ডিটিসিএ'র সভাকক্ষে সভা শেষে ব্রিফিংয়ে মন্ত্রী এসব সিদ্ধান্তের কথা জানান।

সভায় জানানো হয়, ঢাকায় প্রতিদিন তিন কোটি ট্রিপ হয়। এর মধ্যে ৪৭ ভাগ ট্রিপ হয় বাসে। মেট্রোরেল ও বাস র‌্যাপিড ট্রানজিট (বিআরটি) চালুর পরও ৪০ ভাগ ট্রিপ বাসে হবে। এ কারণে যানজট নিরসনে রাজধানীর অভ্যন্তরীণ রুটে চলাচলকারী বাস ব্যবস্থাপনা শৃঙ্খলায় আনতে হবে।

ছুটির দিন ছাড়া সড়কে মিছিল-সমাবেশ করা যাবে না—এ সিদ্বান্তের কথা জানিয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, 'সামনে জাতীয় নির্বাচন। বড় বড় রাজনৈতিক দলগুলো রাস্তায় মিছিল-মিটিং করার চেষ্টা করবে। এতে যানজট হবে। তাই সামাজিক, সাংস্কৃতিক, রাজনৈতিক কোনো দলকে রাস্তা বন্ধ করে সভা-সমাবেশ করতে দেওয়া হবে না। সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ও দিবসের শোভাযাত্রাও কর্মদিবসে করা যাবে না।'

ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানান, আওয়ামী লীগ ইতোমধ্যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে ছুটির দিন ছাড়া শোভাযাত্রা, সভা-সমাবেশ করা হবে না।

এ প্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, 'আওয়ামী লীগ মেনে চললে, অন্যদের মানতে সমস্যা কোথায়? ছাত্রলীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ছিল ৪ জানুয়ারি। জনভোগান্তির কথা ভেবে তারা সেদিন শোভাযাত্রা করেনি। গত শনিবার ছুটির দিনে শোভাযাত্রা করেছে। তারপরও কিছু যানজট হয়েছে।'

সভার কার্যপত্রে বলা হয়েছে, রাজধানীর গণপরিবহন ব্যবস্থার উন্নয়নে ২০১৬ সালে বিশ্বব্যাংকের সহায়তায় 'বাস নেটওয়ার্ক স্টাডি' করা হয়েছে। এতে বলা হয়েছে, ঢাকার বাসে বিশৃঙ্খলার অন্যতম কারণ অত্যাধিক রুট সংখ্যা। বর্তমানে রুটের সংখ্যা ২৩০টিরও বেশি। রাজধানীর সব সড়ককে ১০টি প্যাকেজের আওতায় আনার সুপারিশ করা হয়েছে স্টাডিতে। যেখানে রুটের সংখ্যা কিছুতেই ৯০-এর বেশি হবে না। এসব রুটে চলাচলকারী বাসগুলোতে যাত্রী সেবা ও মান পর্যালোচনায় সরকারি কোম্পানি 'বাস নেট' গঠন করার সিদ্ধান্ত হয় ডিটিসিএ'র সভায়।

এতে ভারতের দিল্লি, দক্ষিণ কোরিয়ার সিউল ও সিঙ্গাপুরের আদলে ঢাকায় বাস চলাচল ব্যবস্থাপনা গড়ে তোলার সুপারিশ করা হয়েছে। এ পদ্ধতিতে নির্ধারিত করিডরে বাস চলবে। যেসব মালিক করিডরে চলতে রাজি হবেন না, তাদের বাস অন্যত্র চলবে। করিডরে চলাকারী সব বাসকে সরকারের সঙ্গে চুক্তির মাধ্যমে একই কোম্পানির আওতায় চলতে হবে। এতে বাসের সংখ্যা কমবে, পারস্পরিক প্রতিযোগিতাও থাকবে না। বাড়বে গতি। বর্তমানে রাজধানীতে বাসের গতি ঘণ্টায় ৫ থেকে ৭ কিলোমিটার। বাস নেট চালু হলে ঘণ্টায় গতি ১৫ থেকে ১৭ কিলোমিটারে উন্নীত হবে বলে সভার কার্যপত্রে বলা হয়েছে।

সভায় সিদ্ধান্ত হয়, পাইলট প্রজেক্ট হিসেবে বিমানবন্দর থেকে সায়েদাবাদ পর্যন্ত ১৭ কিলোমিটার ও কুড়িল থেকে পূর্বাঞ্চল সেক্টর-২ পর্যন্ত বাস করিডর চালু হবে। প্রথম করিডরে বাস স্টপেজ থাকবে বিমানবন্দর, খিলক্ষেত, কুড়িল, নদ্দা, নতুন বাজার, বাড্ডা, রামপুরা, মালিবাগ, বাসাবো, কমলাপুর ও সায়েদাবাদ। দ্বিতীয় করিডরে স্টপেজ হবে কুড়িল, বসুন্ধরা, মাস্তুল, ইউসুফগঞ্জ ও পূর্বাঞ্চল সেক্টর-২।

সভা শেষে ব্রিফিংয়ে ওবায়দুল কাদের জানান, ঢাকা শহরের প্রধান সমস্যা যানজট। সমস্যা সমাধানে মেট্রোরেল, বিআরটি নির্মাণ করা হচ্ছে। তবে এসব প্রকল্পের বাস্তবায়ন ও সুফল পেতে সময় লাগবে। সাময়িকভাবে যানজট নিরসনে পদক্ষেপ নিতে হবে।

তিনি বলেন, হেলমেট ছাড়া মোটরসাইকেল চালানো ও তিনজন ওঠা মাঝে বন্ধ হয়েছিল। কিন্তু আবারও এ অনিয়ম শুরু হয়েছে। দুর্ঘটনা বেড়েছে। মন্ত্রী পুলিশকে নিয়ম ভঙ্গে মামলা করার নির্দেশ দেন। একইসঙ্গে 'প্রাইভেট সিএনজি অটোরিকশায়' যাত্রী পরিবহন বন্ধে ব্যবস্থা নিতেও পুলিশকে নির্দেশ দেন তিনি।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের প্রয়াত মেয়র আনিসুল হক রাজধানীতে চার হাজার বাস নামানোর উদ্যোগ নিয়েছিলেন। 'বাস ফ্রাঞ্চাইজি সিস্টেম' (বিএফএস) চালু করতে চেয়েছিলেন তিনি। এ উদ্যোগটি এগিয়ে নিতে সভায় ডিটিসিএ'কে দায়িত্ব দেওয়া হয়। ঢাকার দুই করপোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তাসহ অন্যান্য সংস্থার প্রধানদের নিয়ে কমিটি গঠন করে দেন মন্ত্রী।

সভায় উপস্থিত ছিলেন নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশনের মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভী, সাগুফতা ইয়াসমিন এমপি, ডা. এনামুর রহমান এমপি, নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন এমপি। এ ছাড়াও ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন, ঢাকার পার্শ্ববর্তী পৌরসভার মেয়র, সরকারি সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন

প্রেমের 'ফাঁদে ফেলে' স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

প্রেমের 'ফাঁদে ফেলে' স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের অভিযোগ

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে প্রেমের ফাঁদে ফেলে অষ্টম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণের ...

পুতিনকে যুক্তরাষ্ট্রে আমন্ত্রণ ট্রাম্পের

পুতিনকে যুক্তরাষ্ট্রে আমন্ত্রণ ট্রাম্পের

রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে যুক্তরাষ্ট্রে সফরের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ...

কাস্টিং কাউচের ফাঁদে সৌমিলি!

কাস্টিং কাউচের ফাঁদে সৌমিলি!

কাস্টিং কাউচের ফাঁদে পড়ে সিনেমার কাজ হারাতে হয়েছে ভারতীয় অভিনেত্রী ...

‘ধড়ক’-এর প্রিমিয়ারে কাঁদলেন জাহ্নবী

‘ধড়ক’-এর প্রিমিয়ারে কাঁদলেন জাহ্নবী

জাহ্নবী’র প্রথম ছবি ‘ধড়ক’ নিয়ে সবচেয়ে বেশি উৎসাহ ছিল তার ...

সাতক্ষীরায় আটক ৭২

সাতক্ষীরায় আটক ৭২

সাতক্ষীরায় অভিযান চালিয়ে ৭২ জনকে আটক করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ...

চাঁপাইনবাবগঞ্জ কারাগারে গরমে অসুস্থ ১১ কয়েদি

চাঁপাইনবাবগঞ্জ কারাগারে গরমে অসুস্থ ১১ কয়েদি

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা কারাগারে প্রচণ্ড গরমে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন ১১ জন ...

জামালপুরে ট্রাক খাদে পড়ে নিহত ৩

জামালপুরে ট্রাক খাদে পড়ে নিহত ৩

জামালপুরের সরিষাবাড়ি উপজেলার তারাকান্দি-ভুয়াপুর সড়কেরস্থল নামক স্থানে লোহা বোঝাই একটি ...

সিলেট সিটি নির্বাচনে নাটকীয় মোড়

সিলেট সিটি নির্বাচনে নাটকীয় মোড়

সিলেট সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপির রাজনীতিতে হঠাৎ নতুন মেরুকরণ হয়েছে। ...