হেলিকপ্টার কিনতে চায় সড়ক মন্ত্রণালয়

প্রকাশ: ১১ জানুয়ারি ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

হেলিকপ্টার কিনতে চায় সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের একাধিক বৈঠকে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়েছে। গত ডিসেম্বরে মাসিক সমন্বয় সভায় জানানো হয়, বিধিবিধান অনুযায়ী হেলিকপ্টার কেনার প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

গত ১৯ সেপ্টেম্বর সড়ক ও জনপথ (সওজ) অধিদপ্তরের তরফ থেকে হেলিকপ্টার কেনার প্রস্তাব আসে। এ দিন অনুষ্ঠিত মাসিক সমন্বয় সভায় সওজের প্রধান প্রকৌশলী ইবনে আলম হাসান প্রস্তাব করেন, সড়ক ও মহাসড়কের তদারকি এবং জরুরি প্রয়োজনে কর্মকর্তাদের যাতায়াতে হেলিকপ্টার প্রয়োজন। সওজের জরিপের কাজে ড্রোন কেনাও প্রয়োজন বলে প্রস্তাব করা হয়। সওজের প্রধান প্রকৌশলী জানিয়েছেন, হেলিকপ্টার কেনার প্রক্রিয়াটি একেবারেই প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে।

এদিকে প্রতি মাসেই সভায় হেলিকপ্টার কেনার বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হচ্ছে। গত নভেম্বরে সভায় জানানো হয়, ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা ও সিভিল এভিয়েশনের সঙ্গে যোগাযোগ করে হেলিকপ্টার কেনার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এটি কেনার উদ্যোগ অব্যাহত রাখতে হবে।

সবশেষে গত ১৩ ডিসেম্বর সড়ক বিভাগের সচিব নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় হেলিকপ্টার কেনার বিষয়টি আলোচনা হয়। সরকারের অন্যান্য সংস্থা কোন প্রক্রিয়ায় হেলিকপ্টার কিনেছে তা খোঁজ নেওয়ার পরামর্শ দেন সড়ক পরিবহন সচিব। তারা এটি কীভাবে রক্ষণাবেক্ষণ করছে, পরিচালনার জনবল ও পরিচালন ব্যয় সম্পর্কেও ধারণা নিতে বলেন তিনি।

এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে সড়ক বিভাগের অতিরিক্ত সচিব, সওজের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী (এমএসডব্লিউ) এবং অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলীকে (যান্ত্রিক) দায়িত্ব দেওয়া হয় সভা থেকে। সওজ সূত্রে জানা গেছে, প্রাকৃতিক দুর্যোগে রাস্তাঘাটের বেহাল অবস্থা তাৎক্ষণিক পরিদর্শন এবং জরুরি প্রয়োজনে মন্ত্রী-সচিব পর্যায়ের ব্যক্তিদের যাতায়াতের জন্য হেলিকপ্টার কেনার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে।

সশস্ত্র ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নিজস্ব হেলিকপ্টার রয়েছে। সফরে সশস্ত্র বাহিনীর হেলিকপ্টার ব্যবহার করেন প্রধানমন্ত্রী। প্রাকৃতিক দুর্যোগে সহায়তা কার্যক্রম চালায় ত্রাণ মন্ত্রণালয়। এ মন্ত্রণালয়েরও হেলিকপ্টার নেই।

বিষয় : সড়ক মন্ত্রণালয়

পরবর্তী খবর পড়ুন : ঢাকা-সিলেট মহাসড়কও এবার নিজস্ব অর্থায়নে

নেইমারের মতো ফাউলের শিকার হননি আর কেউ

নেইমারের মতো ফাউলের শিকার হননি আর কেউ

১৯৬৬ সালের বিশ্বকাপ দেখেছেন ও এখন বেচে আছেন এমন মানুষের ...

জকিগঞ্জে দেড় লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী

জকিগঞ্জে দেড় লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী

সিলেটের জকিগঞ্জের সুরমা-কুশিয়ারা নদীর পানি ২ সেন্টিমিটার কমলেও লোকালয়ে বৃদ্ধি ...

প্রত্যাশা নয়, ভালোর আশায় দ. কোরিয়া

প্রত্যাশা নয়, ভালোর আশায় দ. কোরিয়া

মহাদেশীয় কোটার কারণে বিশ্বকাপে এশিয়ার দল থাকে বটে। কিন্তু শিরোপার ...

'জায়ান্ট-কিলার' সুইডেনের সামনে দ. কোরিয়া

'জায়ান্ট-কিলার' সুইডেনের সামনে দ. কোরিয়া

রাশিয়া বিশ্বকাপে সব থেকেও 'কি যেন নেই নেই' ভাব, তার ...

ইব্রাহিমের ছবি মনে করিয়ে দেয় তরুণ সাইফফে

ইব্রাহিমের ছবি মনে করিয়ে দেয় তরুণ সাইফফে

বলিউড অভিনেতা সাইফ আলী খান ও কারিনা কাপুরের ছেলে তৈমুর ...

তাদের কাছে খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নয়, ইস্যু গুরুত্বপূর্ণ: কাদের

তাদের কাছে খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নয়, ইস্যু গুরুত্বপূর্ণ: কাদের

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসার বিষয়টি নিয়ে তার দলের নেতারা ...

মাগুরায় সড়ক দুর্ঘটনায় বাবা-মেয়ে নিহত

মাগুরায় সড়ক দুর্ঘটনায় বাবা-মেয়ে নিহত

মাগুরা-যশোর সড়কের মাগুরার শালিখা উপজেলার কৃষ্ণপুর এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় বাবা-মেয়ে ...

ছুটি শেষেও সচিবালয়ে ঈদের আমেজ

ছুটি শেষেও সচিবালয়ে ঈদের আমেজ

তিন দিন সরকারি ছুটির পর আজ সোমবার খুলেছে সব সরকারি ...