ঢাবিতে বিক্ষোভ

৭ কলেজের অধিভুক্তি বাতিল না করলে কঠোর কর্মসূচি

প্রকাশ: ১১ জানুয়ারি ২০১৮      

ঢাবি সংবাদদাতা

'এক দফা এক দাবি, অধিভুক্ত মুক্ত ঢাবি' এই স্লোগানে জোরদার হয়ে উঠেছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (ঢাবি)। রাজধানীর সাত কলেজের অধিভুক্তি বাতিলের দাবিতে বৃহস্পতিবারও ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করেন শিক্ষার্থীরা। দাবি পূরণ না হলে কঠোর কর্মসূচিরও ঘোষণা দেন তারা। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ঢাবির অধিভুক্ত সাত কলেজ বাতিলের দাবিতে বেলা ১১টায় ছাত্র শিক্ষক কেন্দ্রের (টিএসসি) রাজু ভাস্কর্যের সামনে মানববন্ধন করেন শিক্ষার্থীরা। এতে প্রায় দুই হাজার শিক্ষার্থী অংশ নেন। এ সময় সেখানকার সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। দেড় ঘণ্টা মানববন্ধন কর্মসূচি পালনের পর একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করেন শিক্ষার্থীরা। মিছিলটি ক্যাম্পাসের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে প্রশাসনিক ভবনে উপাচার্যের কার্যালয়ের সামনে এসে জড়ো হয়। সেখানে দুপুর ২টা পর্যন্ত অবস্থান নেন আন্দোলনকারীরা। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অধ্যাপক ড. এ কে এম গোলাম রব্বানীর নেতৃত্বে শিক্ষকদের একটি প্রতিনিধি দল এসে শিক্ষার্থীদের দাবির বিষয়ে যথাযথ পদক্ষেপ নেওয়ার কথা জানায়। আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা জানান, অধিভুক্ত সাত কলেজ শিক্ষার্থীদের শুধু শিক্ষা-সংক্রান্ত সুবিধা পাওয়ার কথা। কিন্তু তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র পরিচয় দিয়ে নানামুখী সুবিধা নিচ্ছে। এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ওপর বাড়তি চাপ সৃষ্টি হচ্ছে। অথচ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের জন্যই পর্যাপ্ত পরিমাণ আবাসন ও পরিবহনের সুবিধা নেই। আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সমন্বয়ক মশিউর রহমান সাদিক দাবির পেছনে উপযুক্ত কারণ তুলে ধরে বলেন, 'গত বছর রাজধানীর সাত কলেজকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত করার পর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পরিচয় নিয়ে বিড়ম্বনা সৃষ্টি, প্রশাসনিক কার্যক্রম ব্যাহত, ক্যাম্পাসে বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি, বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম ক্ষুণ্ণ ও শিক্ষার মানের অবনতি হচ্ছে।' এ সময় অধিভুক্তি বাতিল ও বহিরাগত যান চলাচল নিয়ন্ত্রণেরও দাবি জানান তিনি। অধিভুক্ত সাত কলেজের সমন্বয়ক বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবসা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. শিবলী রুবাইয়াতুল ইসলাম সমকালকে বলেন, 'দাবির বিষয়ে আমার কিছু বলার নেই। উপাচার্য আমাকে যে দায়িত্ব দিয়েছেন তা পালন করছি।' উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো আখতারুজ্জামান সমকালকে বলেন, 'নিজেদের অধিকার আদায়ে শিক্ষার্থীরা তাদের যুক্তিক দাবি উত্থাপন করেছে। আমরা বিষয়টি দেখব।'

আরও পড়ুন

এক মাসের মধ্যেই রাষ্ট্রপতি নির্বাচন

এক মাসের মধ্যেই রাষ্ট্রপতি নির্বাচন

রাষ্ট্রপতির দায়িত্বে মো. আবদুল হামিদের ৫ বছর মেয়াদ পূর্ণ হচ্ছে ...

পরিবেশের সর্বনাশ

পরিবেশের সর্বনাশ

'ত্রিশ বছর আগেও চার-পাঁচটি জেলেপল্লী ছিল সাভারের সাধাপুর থেকে ধামরাই ...

একই সুতোয় দুই বাংলা

একই সুতোয় দুই বাংলা

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তরাঞ্চল আর বাংলাদেশের উত্তরবঙ্গ- এ দুই এলাকায় যেসব ...

আওয়ামী লীগে একক প্রার্থী বিএনপিতে অস্থিরতা

আওয়ামী লীগে একক প্রার্থী বিএনপিতে অস্থিরতা

একক প্রার্থী নিশ্চিত থাকায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ...

মেয়ে হয়ে জন্মানোই ছিল অপরাধ!

মেয়ে হয়ে জন্মানোই ছিল অপরাধ!

প্রথম সন্তান মেয়ে হওয়ায় বাবার চাওয়া ছিল পরেরটি ছেলে হোক। ...

ভালো হওয়ার সুযোগ পাবে 'বিপথগামীরা'

ভালো হওয়ার সুযোগ পাবে 'বিপথগামীরা'

জঙ্গিবাদে জড়িত থাকার সুনির্দিষ্ট অভিযোগে সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জ থেকে এক তরুণকে ...

রিয়ালের স্বস্তির জয়

রিয়ালের স্বস্তির জয়

সবশেষ গত বছরের ডিসেম্বরে সেভিয়াকে বিধ্বস্ত করে লা লীগায় জয়ের ...

পদবঞ্চিতদের বিক্ষোভের মুখে ওবায়দুল কাদের

পদবঞ্চিতদের বিক্ষোভের মুখে ওবায়দুল কাদের

গঠন প্রক্রিয়ায় থাকা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপকমিটির সহসম্পাদক পদ নিয়ে ...