ব্যাংকে নিয়োগ পরীক্ষায় বিশৃঙ্খলা, ২ কেন্দ্রে ফের পরীক্ষা

প্রকাশ: ১২ জানুয়ারি ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

রাষ্ট্রায়ত্ত আট ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষা শুক্রবার বিকেলে রাজধানীর বিভিন্ন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয়, ছবিটি ডেমরার শামসুল হক খান কলেজে তোলা—সংগৃহীত

আসন সংকট ও অব্যবস্থাপনার কারণে রাষ্ট্রায়ত্ত আট ব্যাংকের নিয়োগ পরীক্ষায় রাজধানীর দুটি কেন্দ্রে পাঁচ হাজার ছয়শ' চাকরিপ্রার্থী পরীক্ষা দিতে পারেননি। এ ঘটনায় শুক্রবার বিকেলে মিরপুরের ওই দুই কেন্দ্রে ব্যাপক হট্টগোল ও মারামারির ঘটনা ঘটেছে। পরে এসব পরীক্ষার্থীর জন্য আগামী ২০ জানুয়ারি পরীক্ষার নতুন তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

রাষ্ট্রায়ত্ত ছয় ব্যাংক ও দুই আর্থিক প্রতিষ্ঠানে সিনিয়র অফিসার, অফিসার ও ক্যাশ অফিসার পদে নিয়োগের জন্য এ সমন্বিত নিয়োগ পরীক্ষা বিকেলে রাজধানীর বিভিন্ন কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত হয়।

১ হাজার ৬৬৩টি শূন্য পদে নিয়োগ পেতে প্রায় তিন লাখ চাকরিপ্রত্যাশী এ পরীক্ষায় অংশ নিতে আবেদন করেছিলেন। এক ঘণ্টায় ১০০ নম্বরের এমসিকিউ পরীক্ষা ব্যাংকার্স রিক্রুটমেন্ট কমিটির তত্ত্বাবধানে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা বিভাগ আয়োজন করে।

সংশ্নিষ্টরা জানান, মিরপুর বাঙ্‌লা কলেজ কেন্দ্রে চার হাজার ও মিরপুর শাহ আলী মহিলা কলেজ কেন্দ্রে এক হাজার ৬০০ জন পরীক্ষা দিতে গিয়ে সেখানে ঠিকমত তাদের আসন খুঁজে পাননি। এমনকি এক বেঞ্চে আট থেকে ১০ জনকে বসতে দেওয়া হয়। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন ওই দুই কেন্দ্রের পরীক্ষার্থীরা। এতে কেন্দ্রে ব্যাপক বিশৃঙ্খলা তৈরি হয়। হইচই করে অনেকে প্রশ্নপত্র নিয়ে কেন্দ্রের বাইরে এসে বিক্ষোভ করেন।

একটি কেন্দ্রে মারামারির ঘটনাও ঘটেছে বলে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান। তারা জানান, পরীক্ষায় অংশ নিতে না পেরে প্রার্থীরা বাঙ্‌লা কলেজের সামনের সড়কে বিক্ষোভ করেন। শাহ আলী মহিলা কলেজ কেন্দ্রের বাইরেও বিক্ষোভ ও ভাংচুরের খবর পাওয়া যায়। বিক্ষুব্ধ পরীক্ষার্থীরা মাজার রোড অবরোধ করেন।

এ দুই কেন্দ্রে বিশৃঙ্খলার খবর জানার পর ব্যাংকার্স রিক্রুটমেন্ট কমিটি জরুরি বৈঠক করে ২০ জানুয়ারি বিকেল সাড়ে ৩টা থেকে সাড়ে ৪টা একই কেন্দ্রে তাদের পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয়।

কমিটির সদস্য সচিব বাংলাদেশ ব্যাংকের মহাব্যবস্থাপক মোশাররফ হোসেন খান সমকালকে বলেন, 'আসন সমস্যার কারণে মিরপুর বাঙ্‌লা কলেজ কেন্দ্রে চার হাজার ও মিরপুর শাহ আলী মহিলা কলেজ কেন্দ্রে এক হাজার ৬০০ প্রার্থী পরীক্ষা দিতে পারেননি। তারা আবার পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ পাবেন।'

এ সিদ্ধান্ত অন্য কেন্দ্রের পরীক্ষার্থীদের ক্ষেত্রে কোনো প্রভাব ফেলবে না বলে তিনি উল্লেখ করেন।

এ পরীক্ষা নিয়ে এর আগে আদালতেও গিয়েছিল একপক্ষ। তাদের রিট আবেদনে হাইকোর্ট এ পরীক্ষা স্থগিত করে। পরে গত বৃহস্পতিবার চেম্বার আদালত ওই আদেশ স্থগিত করলে নিয়োগ পরীক্ষা নেওয়ার বাধা কেটে যায়।

আরও পড়ুন

এক মাসের মধ্যেই রাষ্ট্রপতি নির্বাচন

এক মাসের মধ্যেই রাষ্ট্রপতি নির্বাচন

রাষ্ট্রপতির দায়িত্বে মো. আবদুল হামিদের ৫ বছর মেয়াদ পূর্ণ হচ্ছে ...

পরিবেশের সর্বনাশ

পরিবেশের সর্বনাশ

'ত্রিশ বছর আগেও চার-পাঁচটি জেলেপল্লী ছিল সাভারের সাধাপুর থেকে ধামরাই ...

একই সুতোয় দুই বাংলা

একই সুতোয় দুই বাংলা

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের উত্তরাঞ্চল আর বাংলাদেশের উত্তরবঙ্গ- এ দুই এলাকায় যেসব ...

আওয়ামী লীগে একক প্রার্থী বিএনপিতে অস্থিরতা

আওয়ামী লীগে একক প্রার্থী বিএনপিতে অস্থিরতা

একক প্রার্থী নিশ্চিত থাকায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে ...

মেয়ে হয়ে জন্মানোই ছিল অপরাধ!

মেয়ে হয়ে জন্মানোই ছিল অপরাধ!

প্রথম সন্তান মেয়ে হওয়ায় বাবার চাওয়া ছিল পরেরটি ছেলে হোক। ...

ভালো হওয়ার সুযোগ পাবে 'বিপথগামীরা'

ভালো হওয়ার সুযোগ পাবে 'বিপথগামীরা'

জঙ্গিবাদে জড়িত থাকার সুনির্দিষ্ট অভিযোগে সম্প্রতি নারায়ণগঞ্জ থেকে এক তরুণকে ...

রিয়ালের স্বস্তির জয়

রিয়ালের স্বস্তির জয়

সবশেষ গত বছরের ডিসেম্বরে সেভিয়াকে বিধ্বস্ত করে লা লীগায় জয়ের ...

পদবঞ্চিতদের বিক্ষোভের মুখে ওবায়দুল কাদের

পদবঞ্চিতদের বিক্ষোভের মুখে ওবায়দুল কাদের

গঠন প্রক্রিয়ায় থাকা আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় উপকমিটির সহসম্পাদক পদ নিয়ে ...