প্রস্তাবিত বাজেট নিয়ে বিরোধী দলের বক্তব্য উগ্র: অর্থমন্ত্রী

প্রকাশ: ২৬ জুন ২০১৮     আপডেট: ২৬ জুন ২০১৮      

বিশেষ প্রতিনিধি

অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত -ফাইল ফটো

প্রস্তাবিত ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেট নিয়ে জাতীয় সংসদে সাংসদের বক্তব্যের সমালোচনা করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। 

তিনি বলেন, সরকারের অংশ হয়েও বিরোধী দলের কিছু সদস্য যে ভাষায় বক্তব্য রাখেন তা 'দারুণ রকমের উগ্র'। তারা যেসব কথা-বার্তা বলেছেন তা,যথাযথ নয়। কারণ, বাজেট ঘোষণার আগে যখন মন্ত্রীসভায় অনুমোদন করা হয়, তারা উপস্থিত থেকে সম্মতি দেন। 

তাদের সমালোচনার জবাব সংসদেই দেবেন বলে জানান মুহিত।

মঙ্গলবার সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে এসব কথা বলেন তিনি। 

মুহিত আরও বলেন, তারা বিরোধী দল ঠিক আছে। তবে এটা মনে রাখা উচিত বিরোধী দল হলেও সরকারের অংশ। তাদের দলের ক্যাবিনেট সদস্যরাও প্রস্তাবিত বাজেটে অনুমোদন দেন। সুতরাং এটা আমার একার বাজেট নয়। 

বিরোধীতার বিষয়ে ব্যাখা করে মুহিত জানান, আমি অধিকাংশ সময় সংসদে উপস্থিত ছিলাম। তারা সংসদে এমন আচারণ করেন যে, তারা সরকারের কোনো অংশ নয়।

উল্লেখ্য, গত ৭ জুন এই সরকারের দ্বিতীয় মেয়াদে শেষ বাজেট ঘোষণা করেন মুহিত। এই বাজেটে ব্যাংক খাতে করপোরেট কর কমানোসহ বেশ কিছু কর প্রস্তাব করেন তিনি। বাজেটে অধিবেশনে সংসদে ওপর সাধারণ আলোচনায় বিরোধী দল জাতীয় পার্টির কয়েকজন সাংসদ মুহিতকে তীর্যক ভাষায় আক্রমণ করে বক্তব্য রাখেন এবং ব্যাংক খাতে লুটপাটের জন্য তাকে দায়ী করেন। 

ব্যাংক খাত: সাংবাদিকদের সঙ্গে ব্যাংক খাত নিয়েও কথা বলেন মুহিত। তার মতে, ব্যাংক খাতের সবচেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে খেলাপি ঋণ বেড়ে যাওয়া। এ ব্যাপারে কিছু করতে হবে।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ব্যাংক খাতের লুটপাট হচ্ছে বলে যে অভিযোগ উঠেছে তার সঙ্গে একমত নই আমি। লুটপাট মানে হচ্ছে ব্যাংকের সম্পদ পরিচালকরা নিয়ে নিচ্ছেন। এমনটি হচ্ছে না। তবে এক্ষেত্রে একটা খারাপ দিক রয়েছে। সেটি হচ্ছে এক ব্যাংকের পরিচালক অন্য ব্যাংকের পরিচালকদের সঙ্গে যোগসাজশ করে ঋণ নেন। এই অনিয়ম বন্ধ করতে হবে। এই বিষয়ে কী করতে হবে তা মোটামুটি ঠিক করে ফেলেছি। আগামী জুলাইয়ের মধ্যে কিছু একটা করবো। স্টক হোল্ডারদের সঙ্গে আলোচনা করতে হবে। তাই জুলাই পর্যন্ত সময় লাগবে- মন্তব্য করেন মুহিত। 

আরও পড়ুন

কোটি টাকায় কেনা দীর্ঘশ্বাস

কোটি টাকায় কেনা দীর্ঘশ্বাস

ধানমণ্ডিতে সুপরিসর একটি ফ্ল্যাট কেনার উদ্যোগ নিয়েছিলেন ব্যবসায়ী আহাদুল ইসলাম। ...

বিএনপির জনসভায় আমন্ত্রণ পাচ্ছে না জামায়াত

বিএনপির জনসভায় আমন্ত্রণ পাচ্ছে না জামায়াত

বিএনপির বৃহস্পতিবারের সম্ভাব্য জনসভায় ২০ দলের শরিক জামায়াতে ইসলামীকে কৌশলগত ...

প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইটের ক্রুর মাদক সেবন

প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইটের ক্রুর মাদক সেবন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফ্লাইটের এক কেবিন ক্রুর মাদক সেবন ও ...

দুদককে পঙ্গু করতে চায় একটি মহল

দুদককে পঙ্গু করতে চায় একটি মহল

দুর্নীতি দমন কমিশনকে (দুদক) একটি অথর্ব প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে অপতৎপরতা ...

নিবর্তনমূলক ধারা বাতিল দাবি সাংবাদিক নেতাদের

নিবর্তনমূলক ধারা বাতিল দাবি সাংবাদিক নেতাদের

স্বাধীন সাংবাদিকতায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে পারে- এমন সব ধারা-উপধারা বহাল ...

ইয়াবা কারবারিরা তবু বেপরোয়া

ইয়াবা কারবারিরা তবু বেপরোয়া

মিয়ানমার থেকে নানা কৌশলে ভিন্ন ভিন্ন রুট ব্যবহার করে সারা ...

বিপিএলের কারণে রশিদকে চেনা ইমরুলের

বিপিএলের কারণে রশিদকে চেনা ইমরুলের

হুট করেই ইমরুল কায়েস এশিয়া কাপের দলে ডাক পান। এরপর ...

মৃত ব্যক্তিকে জীবিত দেখিয়ে ব্যাংক ঋণ!

মৃত ব্যক্তিকে জীবিত দেখিয়ে ব্যাংক ঋণ!

বরিশালে মৃত ব্যক্তিকে জীবিত দেখিয়ে ব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়ার অভিযোগ ...