কোটা সংস্কার আন্দোলন

গোপন তৎপরতার প্রযুক্তিভিত্তিক তদন্তে গোয়েন্দারা

প্রকাশ: ০৮ জুলাই ২০১৮       প্রিন্ট সংস্করণ     

সাহাদাত হোসেন পরশ

ফাইল ছবি

কোটা সংস্কার আন্দোলনের পেছনে ভিন্ন উদ্দেশ্য ছিল কি-না, তা খতিয়ে দেখছে একাধিক গোয়েন্দা সংস্থা। প্রযুক্তিনির্ভর তদন্তের মধ্য দিয়ে আন্দোলনের নেপথ্যে 'কোনো বিশেষ মহলে'র উপস্থিতিও খুঁজে দেখতে চায় পুলিশ। এরই মধ্যে কোটা আন্দোলনে সম্পৃক্ত ১০ ছাত্রকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কার কার সঙ্গে তারা যোগাযোগ রাখতেন, তা বের করা হচ্ছে। একই সঙ্গে অনলাইনে 'গোপন চ্যাট গ্রুপে' কোটা আন্দোলনের নেতারা কী ধরনের মতামত রাখতেন, তা বিশ্নেষণ করা হচ্ছে। তাদের নামে-বেনামে হিসাব নম্বরেরও খোঁজ নিচ্ছেন গোয়েন্দারা। কোটা আন্দোলনের যুগ্ম আহ্বায়ক রাশেদ খানকে তথ্যপ্রযুক্তি আইনে দায়ের করা একটি মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে পাঁচ দিনের রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে ঢাকা মহানগর পুলিশের সাইবার ক্রাইম বিভাগ। তার বিরুদ্ধে মামলা করেন ছাত্রলীগের আইন সম্পাদক আল নাহিয়ান খান।

পুলিশের এক কর্মকর্তা জানান, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কোটা আন্দোলনকে ইস্যু করে একটি চক্র 'ভিন্ন উদ্দেশ্য' হাসিল করতে নানা ধরনের উস্কানিমূলক পোস্ট দেয়। সেখানে রাষ্ট্রের নীতিনির্ধারকদের কটাক্ষ করা হয়। অনেকে আবার ভুল তথ্য দিয়ে ছাত্রদের বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করেছে- এটা পরিকল্পিতভাবে করা হচ্ছে বলে মনে করছে পুলিশ। কোটা ইস্যুকে কেন্দ্র করে পরিস্থিতি ঘোলাটে করার মধ্য দিয়ে কেউ রাজনৈতিক উদ্দেশ্য হাসিল করার অপচেষ্টায় লিপ্ত কি-না, তা বের করার চেষ্টা চলছে। বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে বিএনপি-জামায়াতপন্থি  শিক্ষকরা আন্দোলনে কোনো ধরনের উস্কানি দিয়েছিলেন কি-না, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

তদন্ত-সংশ্নিষ্ট এক কর্মকর্তা জানান, কোটা আন্দোলন শুরুর পর যারা নেতৃত্বে ছিলেন, তাদের অনেকে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের হিসাব নম্বর খোলেন। এসব হিসাব নম্বরে অনেকে টাকা পাঠিয়েছেন। মোবাইল ব্যাংকিংয়ের বিভিন্ন হিসাব নম্বরে এখন পর্যন্ত ১০ টাকা থেকে পাঁচ হাজার টাকা পাঠানোর প্রমাণ মিলেছে। এ ছাড়া বিদেশ থেকে কিছু নম্বরে অর্থ এসেছিল। এমনকি কোটা আন্দোলনকারীদের গ্রেফতারের পর 'বাঁশের কেল্লা'সহ শিবিরের কিছু সাইটে বিভ্রান্তি তথ্য ছড়ানো হচ্ছে। যারা এসব কর্মকাণ্ডে জড়িত, তাদের আইনের আওতায় নেবে পুলিশ।

পুলিশের উচ্চপদস্থ একাধিক কর্মকর্তা জানান, রিমান্ডে জিজ্ঞাসাবাদে রাশেদ 'সরকারবিরোধী' কোনো কর্মকাণ্ডে জড়িত থাকার কথা অস্বীকার করেছেন। তবে ফেসবুকে লাইভে তিনি যে ধরনের বক্তব্য রেখেছেন, তার জন্য 'দুঃখ' প্রকাশ করেন। রাশেদ জানান, আন্দোলনের সময় আনুষঙ্গিক খরচ জোগাতে ওই হিসাব নম্বর খোলা হয়। হিসাব নম্বর অনেকে তাদের ফেসবুকে দিয়ে অর্থ সহায়তা চেয়েছিল।

তদন্ত-সংশ্নিষ্টরা বলছেন, আন্দোলনের একপর্যায়ে সাধারণ শিক্ষার্থীদের কারও কারও আচরণ ও বক্তব্য ছিল 'উগ্রপন্থি'। কেউ তাদের মগজধোলাই করে আন্দোলনকে সহিংস পর্যায়ে নিতে সহায়তা করেছে কি-না, তা জানতে চায় পুলিশ।

পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইউনিটের ডিসি আলিমুজ্জামান সমকালকে বলেন, আন্দোলনকারীদের গোপন অন্য কোনো উদ্দেশ্য ছিল কি-না, তা বের করার চেষ্টা চলছে। কিছু ব্যাংক হিসাব নম্বরের তথ্য খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

রাশেদ যে মামলায় অভিযুক্ত, সে মামলার বাদী আল নাহিয়ান বলেন, ২৭ জুন রাতে রাশেদ ফেসবুক লাইভে এসে প্রধানমন্ত্রীকে কটাক্ষ করে বক্তব্য দেন। তার লক্ষ্য ছিল বিশ্ববিদ্যালয়ে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটানো। এ কারণে রাশেদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন বলে জানান তিনি।

সংশ্নিষ্টরা বলছেন, পরপর কোটা আন্দোলনে জড়িত ১০ নেতা গ্রেফতার হওয়ায় আন্দোলনকারী অন্যদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। অনেকে এরই মধ্যে গা-ঢাকা দিচ্ছেন। আবার গ্রেফতার অনেক ছাত্রের পরিবারের পক্ষ থেকে সংবাদ সম্মেলন করে তাদের সন্তানদের স্বাভাবিক শিক্ষাজীবনের সুযোগ করে দেওয়ার অনুরোধ করা হয়।

ভিসির বাসা ভাংচুর মামলায় গ্রেফতার সেই মাহফুজ :কোটা সংস্কার আন্দোলনের যুগ্ম আহ্বায়ক ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দর্শন বিভাগের ছাত্র মাহফুজ খান এখন কোথায় রয়েছেন, তা জানেন না তার পরিবার। তবে পুলিশ জানিয়েছে, গত রোববার মাহফুজকে তার বন্ধু রাশেদের সঙ্গে ভাসানটেক এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এরপর বিশ্ববিদ্যালয় এলাকায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের মামলায় তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

কোটা সংস্কারের দাবিতে গত এপ্রিলে ঢাকাসহ সারাদেশে ব্যাপক বিক্ষোভ করেন বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা। গত ৮ এপ্রিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে জড়ো হওয়া আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের সঙ্গে সারারাত সংঘর্ষ হয় পুলিশের। উপাচার্যের বাসভবনে চালানো হয় তা ব। এসব ঘটনায় শাহবাগ থানায় তিনটি মামলা করে পুলিশ। কোটা আন্দোলনের নয়জন নেতাকে ওই সব মামলায় গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। আর একজনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে তথ্যপ্রযুক্তি আইনে।

আরও পড়ুন

সাতক্ষীরায় পুলিশের বিশেষ অভিযানে আটক ৬৩, ইয়াবা-ফেনসিডিল উদ্ধার

সাতক্ষীরায় পুলিশের বিশেষ অভিযানে আটক ৬৩, ইয়াবা-ফেনসিডিল উদ্ধার

সাতক্ষীরা জেলাব্যাপী পুলিশের বিশেষ অভিযানে জামায়াত-শিবিরের ছয় নেতাকর্মীসহ ৬৩ জনকে ...

জলাতঙ্ক থেকে বাঁচার উপায়

জলাতঙ্ক থেকে বাঁচার উপায়

র‌্যাবিসকে বাংলায় জলাতঙ্ক বলা হয়। অর্থাৎ জলে যার আতঙ্ক। এই ...

সৌম্য-ইমরুল কি খেলবেন আজ

সৌম্য-ইমরুল কি খেলবেন আজ

বিমানবন্দর থেকে হোটেলে ফিরতে ফিরতে রাত প্রায় ১১টা। আজ দুবাই ...

গোপালগঞ্জে বাসচাপায় শিশু নিহত

গোপালগঞ্জে বাসচাপায় শিশু নিহত

গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে বাসচাপায় পাপ্পী দাস (৭) নামে এক শিশু নিহত ...

সরকারকে আলোচনার আলটিমেটাম

সরকারকে আলোচনার আলটিমেটাম

নির্বাচনকালীন নিরপেক্ষ সরকার গঠনে আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সব দলের ...

এবার ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয় টাইগারদের

এবার ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয় টাইগারদের

গল্পে পড়া উঠের পিঠে চড়া সেই বেদুইনরা নাকি এখন শুধুই ...

বালুখেকোরা খুবলে খাচ্ছে সুরমা

বালুখেকোরা খুবলে খাচ্ছে সুরমা

সিলেটের প্রাণ সুরমা নদীকে খুবলে খাচ্ছে বালুখেকোরা। অথচ এই নদী ...

বরিশালেও প্রকাশ্যে অবৈধ বালু উত্তোলন

বরিশালেও প্রকাশ্যে অবৈধ বালু উত্তোলন

হিজলা ও মুলাদী উপজেলার মধ্যবর্তী নয়াভাঙ্গুলী নদীর ৮-১০টি পয়েন্টে এবং ...