পুলিশ কর্মকর্তা মামুন হত্যা

পরিচয় জানার পরই খুন, জড়িত অনেকেই

প্রকাশ: ১৩ জুলাই ২০১৮       প্রিন্ট সংস্করণ     

সাহাদাত হোসেন পরশ

বনানীতে পুলিশের বিশেষ শাখার (এসবি) পরিদর্শক মামুন ইমরান খান হত্যা রহস্যের জট খুলতে শুরু করেছে। ঘটনার রাতে পেশাদার প্রতারক চক্রই তাকে ফাঁসাতে ওই ফ্ল্যাটে ডেকে নিয়েছিল। এই চক্রের সদস্যরা বনানীসহ রাজধানীর বিভিন্ন অভিজাত এলাকায় বাসা ভাড়া করে কৌশলে সমাজের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষকে ডেকে নিয়ে অসামাজিক ছবি তুলতে বাধ্য করে। এরপর সেই ছবি দিয়ে ব্ল্যাকমেইল করে তারা টাকা হাতিয়ে নেয়। সেদিন রাতে মামুনকেও তারা একই কৌশলে ফাঁসানোর চেষ্টা করেছিল। তবে তার পরিচয় জানার পর ভবিষ্যতে বিপদে পড়ার আশঙ্কায় তাকে মেরে ফেলার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। মামুন হত্যাকাণ্ডে এ পর্যন্ত তিন নারীসহ অন্তত ১২ জনের সংশ্নিষ্টতা পেয়েছে ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। তাদের মধ্যে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর কয়েকজন সাবেক সদস্যও রয়েছেন। তারা মূলত অভিজাত এলাকায় তরুণীদের ব্যবহার করে নানা ধরনের প্রতারণা করে আসছিলেন। তদন্ত সংশ্নিষ্ট একাধিক দায়িত্বশীল সূত্র গতকাল সমকালকে এসব তথ্য জানান।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে ডিবির যুগ্ম কমিশনার আবদুল বাতেন সমকালকে বলেন, মামুন হত্যার তদন্তে বেশ অগ্রগতি রয়েছে। দু-একদিনের মধ্যে বিষয়গুলো আরও পরিস্কার হবে।

এসবির পরিদর্শক মামুন ইমরান গত রোববার সন্ধ্যার পর থেকে নিখোঁজ ছিলেন। এ ঘটনায় পরদিন সোমবার সবুজবাগ থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন তার ভাই। নিখোঁজ মামুনের সন্ধানে নিবিড় তদন্ত শুরু হওয়ার পর মঙ্গলবার ইমরানের লাশ উদ্ধার করা হয়।

তদন্তকারীরা জানতে পেরেছেন, বনানীর যে ফ্ল্যাটে এ ঘটনা ঘটেছে, সেটি দুই মাস আগে নজরুল ইসলাম নামে একজন ভাড়া নেন। সেখানে চেয়ার-টেবিল ছাড়া আর কোনো আসবাবপত্র ছিল না। একটি প্রতারক চক্র বনানী ও গুলশান এলাকায় ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে এ ধরনের প্রতারণামূলক কাজ করে আসছে। এ চক্রে একটি সরকারি পোশাকি বাহিনীর সাবেক দুই সদস্য জড়িত রয়েছেন। চক্রের সদস্যরা তাদের ভাড়া করা বাসায় তেমন আসবাবপত্র রাখে না। টার্গেট করা লোকজনকে ফাঁসানোর পর তারা পুরনো বাসা ছেড়ে নতুন বাসা নেয়।

এখন পর্যন্ত এ হত্যার ঘটনায় যাদের সংশ্নিষ্টতা পাওয়া গেছে, তাদের মধ্যে রয়েছে- রহমত উল্যাহ, দিদার, রবিউল, শেখ হৃদয়, আতিক, মিজান, সুরাইয়া আক্তার রেখা, মেহেরুন নেসা স্বর্ণা ওরফে আফরিন ও ফারিয়া বিনতে মীম। একটি সূত্র জানিয়েছে, হত্যার সময় ঘটনাস্থলে থাকা আফরিনসহ তিন নারীর সঙ্গে মামুনের কোনো পূর্ববিরোধ ছিল কি-না, তা তদন্ত করা হচ্ছে। তারা প্রতারক চক্রের হয়ে টাকার বিনিময়ে মানুষকে ফাঁসানোর কাজে সংশ্নিষ্ট কি-না, তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। হত্যা মিশনে জড়িত কয়েকজনকে নজরদারিতে রেখেছে পুলিশ। এ ছাড়া রহমত উল্যাহর গাড়িচালকসহ কয়েকজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে এ ব্যাপারে তথ্য উদ্ঘাটনের চেষ্টা করছে ডিবি।

ঘটনায় জড়িতদের মধ্যে আফরিন ও রহমত উল্যাহ মামুনের পূর্বপরিচিত। কয়েকটি বেসরকারি টেলিভিশনে অপরাধবিষয়ক অনুষ্ঠানে মামুন ও আফরিন অভিনয় করেছিলেন। গত রোববার আফরিনের জন্মদিনের কথা বলেই বনানীতে মামুনকে ডেকে নেওয়া হয়েছিল। রহমত উল্যাহ ছিলেন মামুনের ঘনিষ্ঠ বন্ধু। তিনিও ঘটনার সময় বনানীর চেয়ারম্যানবাড়ী এলাকায় সাবেক এক প্রতিমন্ত্রীর মালিকানাধীন ওই বাড়ির দ্বিতীয় তলার ফ্ল্যাটে ছিলেন।

অশ্নীল ছবি তুলে মোটা অঙ্কের টাকা আদায়ের লক্ষ্য থেকে প্রতারক চক্রের সদস্যরা প্রথমে রহমতকে অসামাজিক কাজে জড়ানোর চেষ্টা করে। এতে বাধা দিলে রহমত ও মামুনকে কিল-ঘুষি মারতে থাকে তারা। এক পর্যায়ে পরিচয় জানার পর মামুনকে হত্যা করা হয়। পরে এসিড দিয়ে পুড়িয়ে বিকৃত করা লাশ বস্তায় ভরে গাজীপুরের কালীগঞ্জের একটি জঙ্গলে ফেলে দেয় দুর্বৃত্তরা। এ কাজে রহমতের গাড়ি ব্যবহার করে তারা।

বিবিসি’র অনুপ্রেরণাদায়ী নারীর তালিকায় হৃদয়ের মা

বিবিসি’র অনুপ্রেরণাদায়ী নারীর তালিকায় হৃদয়ের মা

বিবিসি’র অনুপ্রেরণাদায়ী ও প্রভাবশালী একশ নারীর তালিকায় স্থান পেয়েছেন সেই ...

মা-বাবা এমন নিষ্ঠুরও হয়!

মা-বাবা এমন নিষ্ঠুরও হয়!

নির্যাতিত শিশুর কথা শুনে তার বাড়ির রাস্তায় দাঁড়াতেই প্রতিবেশী শিরিনা ...

নিউইয়র্কে ডাকাত ধরতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ বাংলাদেশি

নিউইয়র্কে ডাকাত ধরতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ বাংলাদেশি

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে ডাকাত ধরতে গিয়ে গুলি খেলেন বাংলাদেশি যুবক মোহাম্মদ ...

যশোরের বিএনপি নেতা আবু ঢাকায় 'অপহৃত'

যশোরের বিএনপি নেতা আবু ঢাকায় 'অপহৃত'

যশোর জেলা বিএনপির সহসভাপতি ও কেশবপুর উপজেলার মজিদপুর ইউনিয়ন পরিষদ ...

দেশে হঠাৎ বন্ধ স্কাইপি

দেশে হঠাৎ বন্ধ স্কাইপি

দেশে হঠাৎ করে সোমবার বিকেল থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম স্কাইপি ...

জেনে-শুনে মন্তব্য করা উচিত: দুদক চেয়ারম্যান

জেনে-শুনে মন্তব্য করা উচিত: দুদক চেয়ারম্যান

'তদন্ত করলে দুদকেও দুর্নীতি বেরুবে'- জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যানের ওই ...

আগাম প্রচার সামগ্রী সরানো না হলে জরিমানা: ইসি

আগাম প্রচার সামগ্রী সরানো না হলে জরিমানা: ইসি

জাতীয় নির্বাচন উপলক্ষে আগাম প্রচার সামগ্রী যারা সরাননি, তাদের জরিমানা ...

পুরুষের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠার দাবি

পুরুষের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠার দাবি

'বৈষম্য নয় পুরুষের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠিত হোক' প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে ...