'২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলায় আসামিপক্ষ অপ্রয়োজনীয় বক্তব্য দিচ্ছে'

প্রকাশ: ২৮ আগস্ট ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

গ্রেনেড হামলার ধ্বংসংজ্ঞ- ফাইল ছবি

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে আওয়ামী লীগের সন্ত্রাসবিরোধী সমাবেশে ২০০৪ সালের ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার দুই মামলায় আসামিপক্ষের যুক্তিতর্ক উপস্থাপন অব্যাহত রয়েছে। 

মঙ্গলবার এ মামলার ৪৫তম আসামি বিএনপি নেতা সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবরের পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন করেন আইনজীবী নজরুল ইসলাম। তবে রাষ্ট্রপক্ষের প্রধান কৌঁসুলি সৈয়দ রেজাউর রহমান বিচারকের কাছে অভিযোগ করেছেন, আসামিপক্ষের আইনজীবী জেরায় অপ্রয়োজনীয় বক্তব্য দিচ্ছেন।

মঙ্গলবার আসামিপক্ষের আইনজীবীর বক্তব্য অসমাপ্ত থাকায় বুধবার ফের শুনানির জন্য দিন ধার্য করা হয়েছে। পুরান ঢাকার নাজিমুদ্দিন রোডে সাবেক কেন্দ্রীয় কারাগারের পাশে স্থাপিত ঢাকার ১ নম্বর দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক শাহেদ নুর উদ্দিনের আদালতে এ মামলার বিচারকাজ চলছে।

যুক্তিতর্কের সপ্তম দিনে মঙ্গলবার আদালতের কার্যক্রম শুরু হলে আসামি বাবরের পক্ষে যুক্তি উপস্থাপন করেন আইনজীবী নজরুল ইসলাম। তিনি দাবি করেন, এ মামলায় লুৎফুজ্জামান বাবরকে জড়িয়ে আদালতে হরকাতুল জিহাদ নেতা মুফতি হান্নান যে সাক্ষ্য দিয়েছেন, তা সম্পূর্ণ মিথ্যা-বানোয়াট। তার জবানবন্দি বিশ্বাসযোগ্য নয়।

তিনি বলেন, মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তদন্ত প্রতিবেদনে বলেছেন, হাওয়া ভবন ও আবদুস সালাম পিন্টুর ধানমণ্ডির বাসভবনে বৈঠক হয়েছে এবং তাতে ষড়যন্ত্র করা হয়েছে।

বাবর পিন্টুর বাসা চেনেন না, কোনোদিন যাননি দাবি করে এ আইনজীবী বলেন, যদিও রাষ্ট্রপক্ষ এসবের সপক্ষে আদালতে কোনো তথ্য-প্রমাণ উপস্থাপন করতে পারেনি। বাবর সে সময় সরকারের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী ছিলেন। অথচ তার গানম্যান, গাড়িচালক, ব্যক্তিগত সহকারীকে সাক্ষী করা হয়নি। তিনি যে হাওয়া ভবন বা পিন্টুর ধানমণ্ডি সরকারি বাসভবনে বৈঠক করলেন, সেসব ভবনের কেয়ারটেকার বা দারোয়ানকেও সাক্ষী করা হয়নি। মিথ্যা সাক্ষীর ভিত্তিতে এ মামলায় বাবরকে আসামি করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ অসত্য, বানোয়াট ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত।

নজরুল ইসলাম আরও বলেন, মুফতি হান্নান আদালতে দেওয়া জবানবন্দিতে বলেছেন, আবদুস সালাম পিন্টু ও মাওলানা তাজউদ্দিনের সঙ্গে বাবরের ঘনিষ্ঠ সম্পর্ক ছিল। এটা সত্য নয়। বাবর তাকে জানিয়েছেন, মাওলানা তাজউদ্দিনকে তিনি কোনোদিন দেখেননি, চেনেনও না। মুফতি হান্নান সম্পর্কেও তার বিন্দুমাত্র ধারণা নেই। কীভাবে তাকে জড়িয়ে মিথ্যা জবানবন্দি দেওয়া হলো, তা তার ধারণার বাইরে।

আইনজীবী নজরুল দাবি করেন, রাষ্ট্রপক্ষের ৭০, ৭১, ৭২ ও ৮২ নম্বর সাক্ষী আসামি লুৎফুজ্জামান বাবর সম্পর্কে যা বলেছেন, তা মিথ্যা ও বানোয়াট। সাক্ষীরা যা বলেছেন তা শুনে বলেছেন।

মুফতি হান্নানের স্বীকারোক্তির বিষয়ে এ আইনজীবী বলেন, একজন আসামির এক মামলায় একবার স্বীকারোক্তি দেওয়ার পর দ্বিতীয়বার স্বীকারোক্তির বিধান নেই। উচ্চ আদালতেরও এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত আছে।

এ সময় রাষ্ট্রপক্ষের প্রধান কৌঁসুলি সৈয়দ রেজাউর রহমান আপত্তি জানিয়ে বলেন, কী দরকার ছিল, কী উচিত ছিল না, এসব বলার দরকার নেই। আপনার আসামির পক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন। এ সময় তিনি বিচারকের কাছে অভিযোগ রাখেন, আসামিপক্ষ জেরা করতে গিয়ে অপ্রয়োজনীয় বক্তব্য দিচ্ছেন। এ পর্যায়ে বিচারক আসামিপক্ষের আইনজীবীকে অপ্রয়োজনীয় বক্তব্য না দিয়ে যুক্তিসঙ্গত যুক্তি উপস্থাপনের জন্য বলেন।

মঙ্গলবার আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন প্রধান কৌঁসুলি সৈয়দ রেজাউর রহমান, মোশাররফ হোসেন কাজল, আবু আবদুল্লাহ ভুইয়া, আকরাম উদ্দিন শ্যামল, ফারহানা রেজা, আমিনুর রহমান প্রমুখ।

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার ঘটনায় পৃথক দুই মামলায় মোট আসামির সংখ্যা ৫২। এর মধ্যে ৩ আসামির অন্য মামলায় মৃত্যুদণ্ড কার্যকর হওয়ায় তাদের এ মামলা থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। তারা হলেন- যুদ্ধাপরাধী আলী আহসান মোহাম্মদ মুজাহিদ, জঙ্গি নেতা মুফতি হান্নান ও শরীফ সাহেদুল আলম বিপুল। এখন ৪৯ আসামির বিচার চলছে। এর মধ্যে বিএনপি নেতা তারেক রহমান, হারিছ চৌধুরীসহ ১৮ জন পলাতক। লুৎফুজ্জামান বাবর, আবদুস সালাম পিন্টুসহ ২৩ আসামি কারাগারে। এ ছাড়া আটজন জামিনে রয়েছেন।

আরও পড়ুন

ম্যাচের ভাগ্য টসের ওপর?

ম্যাচের ভাগ্য টসের ওপর?

পাকিস্তানের বিপক্ষে বাংলাদেশের ম্যাচটি অলিখিত সেমিফাইনালে রূপ নিয়েছে। ফাইনালে যাওয়ার ...

মিস পাকিস্তানকে নিয়ে ইমন

মিস পাকিস্তানকে নিয়ে ইমন

প্রয়াত বরেণ্য শিল্পী লাকী আখন্দ। অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে থাকা অবস্থায় ...

সুনামগঞ্জে ইয়াকুব হত্যায় একজনের মৃত্যুদণ্ড

সুনামগঞ্জে ইয়াকুব হত্যায় একজনের মৃত্যুদণ্ড

সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার মাইজবাড়ি এলাকার মোবাইল ফোন মেকানিক ইয়াকুব আলী ...

ওজন কমায় মিষ্টি কুমড়ার জুস

ওজন কমায় মিষ্টি কুমড়ার জুস

বিভিন্ন পুষ্টি গুণে সমৃদ্ধ মিষ্টি কুমড়া খেতেও সুস্বাদু।।এর বীজও স্বাস্থ্যের ...

৭.৫% প্রবৃদ্ধি হবে, এডিবির পূর্বাভাস

৭.৫% প্রবৃদ্ধি হবে, এডিবির পূর্বাভাস

চলতি অর্থবছরে বাংলাদেশ মোট দেশজ উৎপাদনে (জিডিপি) ৭ দশমিক ৫ ...

বগুড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল মা-মেয়ের

বগুড়ায় সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ গেল মা-মেয়ের

বগুড়ায় দুটি ট্রাকের সংঘর্ষে মা ও মেয়ে নিহত হয়েছেন। এ ...

চুরি হওয়া নবজাতকের লাশ মিললো পুকুরে

চুরি হওয়া নবজাতকের লাশ মিললো পুকুরে

মাগুরা সদর উপজেলার নিশ্চিন্তপুর গ্রামে ১০ দিন বয়সী এক নবজাতককে ...

জলবায়ু পরিবর্তনে ঝুঁকির মুখে বাংলাদেশের ১৩ কোটি মানুষ: বিশ্ব ব্যাংক

জলবায়ু পরিবর্তনে ঝুঁকির মুখে বাংলাদেশের ১৩ কোটি মানুষ: বিশ্ব ব্যাংক

জলবায়ু পরিবর্তনের কারণে তাপমাত্রা বৃদ্ধি ও অতিবর্ষণে বাংলাদেশের ১৩ কোটি ...