চাকরিতে প্রবেশের বয়স সর্বোচ্চ ৩২ হতে পারে

প্রকাশ: ৩০ আগস্ট ২০১৮     আপডেট: ৩০ আগস্ট ২০১৮       প্রিন্ট সংস্করণ     

সমকাল প্রতিবেদক

সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বাড়ানো হচ্ছে। বর্তমান ৩০ বছর থেকে বাড়িয়ে তা সর্বোচ্চ ৩২ বছর করা হচ্ছে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়সহ সংশ্নিষ্ট মন্ত্রণালয়ের শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তারা সর্বসম্মতভাবে এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব তৈরি করেছেন। অনুমোদনের সুপারিশ করে শিগগিরই প্রস্তাবটি জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দপ্তরে পাঠানো হবে।

প্রধানমন্ত্রীর প্রাথমিক অনুমোদনের পর প্রস্তাবটির চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য মন্ত্রিসভায় উপস্থাপন করা হবে। এ পর্যায়ে সাধারণ ও মুক্তিযোদ্ধা সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অবসরের বয়সসীমা বাড়ানোর কোনো পরিকল্পনা সরকারের নেই। অবসরের বয়সসীমা আগের মতোই থাকবে।

গত ২০ আগস্ট মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠক শেষে সচিবালয়ে প্রেস ব্রিফিংয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মোহাম্মদ শফিউল আলম বলেছিলেন, আসন্ন নির্বাচনের আগেই সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বাড়তে পারে। এ নিয়ে পারস্পরিক আলোচনা চললেও বিষয়টি এখনও চূড়ান্ত হয়নি। তবে অবসরের বয়স বাড়ানোর বিষয়ে কোনো নির্দেশনা নেই।

গত জুন মাসে চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩০ বছর থেকে বাড়িয়ে ৩৫ বছর করার সুপারিশ করে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি। এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়েও পাঠায় সংসদীয় কমিটি। এর অনুলিপি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়েও পাঠানো হয়।

বর্তমানে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩০ বছর; মুক্তিযোদ্ধার সন্তানদের ক্ষেত্রে তা ৩২ বছর। দেশে উচ্চশিক্ষা ও বেকারত্বের হার বৃদ্ধি, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সেশনজট ইত্যাদি কারণে দীর্ঘদিন ধরে চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ বছর করার দাবি জানিয়ে আসছেন চাকরিপ্রত্যাশীরা।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে, চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা সর্বোচ্চ বয়স ৩২ বছর নির্ধারণ সংক্রান্ত প্রস্তাব প্রস্তুত করে প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদনের জন্য পাঠানো হবে। তবে সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায় ইচ্ছা করলে তা আরও বাড়াতে পারে।

১৯৯০ সাল পর্যন্ত সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়স ছিল ২৭ বছর। ১৯৯১ সালে তা বাড়িয়ে ৩০ বছর করা হয়। এরপর আর বয়সসীমা বাড়েনি। তবে ২০১১ সালের ডিসেম্বরে সরকারি চাকরিতে সাধারণ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অবসরের বয়স ৫৭ থেকে দুই বছর বাড়িয়ে ৫৯ বছর করা হয়।

পাশাপাশি মুক্তিযোদ্ধা কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অবসরের বয়স এক বছর বাড়িয়ে ৬০ বছর করা হয়। অবসরের বয়স বৃদ্ধির কারণে সরকারি চাকরিতে শূন্য পদের সংখ্যা কমে যায়। এরপর থেকেই চাকরিতে প্রবেশের বয়স বাড়ানোর দাবি আবারও সামনে চলে আসে। এ দাবিকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্যরা যৌক্তিক মনে করলেও বিশেষজ্ঞ ও নাগরিকদের মধ্যে এ নিয়ে বিতর্ক রয়েছে।।

জয়পুরহাটে লেভেল ক্রসিংয়ে অল্পের জন্য বাঁচলো ৪৮ বাস যাত্রী

জয়পুরহাটে লেভেল ক্রসিংয়ে অল্পের জন্য বাঁচলো ৪৮ বাস যাত্রী

জয়পুরহাটের আক্কেলপুর পৌর এলাকার পশ্চিম আমুট্ট (মহিলা কলেজ সংলগ্ন) এলাকায় ...

সিডরে নিখোঁজের ১১ বছর পর প্রত্যাবর্তন

সিডরে নিখোঁজের ১১ বছর পর প্রত্যাবর্তন

প্রলংয়করী ঘূর্ণিঝড় সিডরে নিখোঁজের ১১ বছর পর বাড়ি ফিরেছেন শরণখোলা ...

সরকারি কাজে বাধা দেয়ায় রাবি ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতির জেল

সরকারি কাজে বাধা দেয়ায় রাবি ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতির জেল

সরকারি কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক ...

আসন বণ্টনের আলোচনা চেয়ে প্রধানমন্ত্রীকে এরশাদের চিঠি

আসন বণ্টনের আলোচনা চেয়ে প্রধানমন্ত্রীকে এরশাদের চিঠি

আসন বণ্টন নিয়ে আলোচনা করতে সময় চেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ...

নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র দেশবাসী ক্ষমা করবে না: বি. চৌধুরী

নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র দেশবাসী ক্ষমা করবে না: বি. চৌধুরী

যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান ও বিকল্পধারার প্রেসিডেন্ট একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী বলেছেন, নির্বাচন ...

মিটু আন্দোলন: যৌন নিপীড়নের বিরুদ্ধে সোচ্চার বাংলাদেশের নারীরাও

মিটু আন্দোলন: যৌন নিপীড়নের বিরুদ্ধে সোচ্চার বাংলাদেশের নারীরাও

যৌন নিপীড়নের শিকার যে কেউ হতে পারে। শুধু নারী ও ...

নির্বাচনকে হালকা করে দেখার সুযোগ নেই: আসাদুজ্জামান নূর

নির্বাচনকে হালকা করে দেখার সুযোগ নেই: আসাদুজ্জামান নূর

সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর বলেছেন, 'নির্বাচনকে হালকা করে দেখার কোনো সুযোগ ...

পক্ষপাতহীনভাবে নির্বাচন পরিচালনা করবে ইসি: গণপূর্ত মন্ত্রী

পক্ষপাতহীনভাবে নির্বাচন পরিচালনা করবে ইসি: গণপূর্ত মন্ত্রী

নির্বাচন কমিশন (ইসি) পক্ষপাতহীনভাবে নির্বাচন পরিচালনা করবে বলে আশা প্রকাশ ...