বিদ্যুৎ খাতে সহযোগিতা বাড়াতে নেপালের সঙ্গে এমওইউ সই

প্রকাশ: ১০ আগস্ট ২০১৮     আপডেট: ১০ আগস্ট ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

শুক্রবার নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুতে দেশটির জ্বালানি, পানি ও সেচ মন্ত্রণালয়ে সমঝোতা স্মারকটি সই হয়— সমকাল

বিদ্যুৎ খাতে সহযোগিতা বাড়াতে নেপালের সঙ্গে একটি সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই করেছে বাংলাদেশ। এতে নেপাল থেকে জলবিদ্যুৎ আমদানি এবং এ খাতে বিনিয়োগ প্রক্রিয়া তরান্বিত হবে বলে মনে করছে বাংলাদেশ।

শুক্রবার নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুতে দেশটির জ্বালানি, পানি ও সেচ মন্ত্রণালয়ে এক অনুষ্ঠানে সমঝোতা স্মারকটি সই হয়। বাংলাদেশের পক্ষে বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ এবং নেপালের পক্ষে দেশটির জ্বালানিমন্ত্রী বর্ষা মান পুন অনন্ত সমঝোতা স্মারকে সই করেন।

বিদ্যুৎ বিভাগের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী বিদ্যুৎ খাতে সহযোগিতা বাড়াতে দুই দেশের একটি যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপ এবং একটি স্টিয়ারিং কমিটি কাজ করবে।

অনুষ্ঠানে নসরুল হামিদ বলেন, এই চুক্তি বিদ্যুৎ খাতের জন্য একটি প্লাটফর্ম বা কাঠামো তৈরি করবে, যা বিদ্যুৎ বিনিময়, বিদ্যুৎ বাণিজ্য, গ্রিড সংযোগ, জলবিদ্যুৎ খাতের উন্নয়ন ও নবায়নযোগ্য জ্বালানির প্রসারে সহযোগিতা বৃদ্ধিতে সহায়তা করবে।

তিনি বলেন, নেপালে ৪০ হাজার মেগাওয়াট জলবিদ্যুৎ উৎপাদনের সম্ভাবনা রয়েছে। এখানে বাংলাদেশের সরকারি বা বেসরকারি কোম্পানিগুলো ভবিষ্যতে বিনিয়োগ করে সে বিদ্যুৎ দেশে নিতে পারবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, নেপাল থেকে অল্প পয়সায় বিদ্যুৎ পাওয়া যাবে। বাংলাদেশ ভারত থেকে বিদ্যুৎ আনছে। আগামী ১০ বছরের মধ্যে পাঁচ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ প্রতিবেশী দেশগুলো থেকে আমদানির পরিকল্পনা রয়েছে।

নেপালের জ্বালানিমন্ত্রী বলেন, নেপাল এখন ভারত থেকে ৪০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি করলেও আগামী ১০ বছরে ১৫ হাজার মেগাওয়াট জলবিদ্যুৎ উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে অনেক প্রকল্প বাস্তবায়নের কাজ চলছে।

চুক্তি স্বাক্ষরের আগে নসরুল হামিদ নেপালের প্রধানমন্ত্রী কে পি শর্মা অলির সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। এরপর দেশটির জ্বালানিমন্ত্রীর সঙ্গে দ্বি-পক্ষীয় বৈঠকে অংশ নেন। পরে দু'দেশের মধ্যে এমওইউ সই হয়।

নেপালের জ্বালানি, পানিসম্পদ ও সেচ বিষয়ক সচিব অনুপ কুমার উপাধ্যায়, নেপালের বিদ্যুৎ উন্নয়ন বিভাগের মহাপরিচালক নবিন রাজ সিং, নেপালে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মাশফী বিনতে শামস প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

জানা গেছে, ভারতের জিএমআর এনার্জি নেপালে আপার কারনালি প্রকল্পে ৯০০ মেগাওয়াট উৎপাদন ক্ষমতার একটি জলবিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণের কাজ শুরু করেছে। এই কেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ কেনার জন্য গত বছর জিএমআরইয়ের সঙ্গে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড-পিডিবি একটি এমওইউ সই করে। ভারত হয়ে এই বিদ্যুৎ বাংলাদেশে আনার পরিকল্পনা রয়েছে।

বাংলাদেশ বর্তমানে ভারত থেকে ৬৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানি করছে। আরো ৫০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আমদানির বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন।

আরও পড়ুন

পুলিশ জানে না খুনি কারা

পুলিশ জানে না খুনি কারা

রাজধানীর উপকণ্ঠ নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলায় তিন যুবকের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধারের ...

আস্থার প্রতিদান দিলেন ইমরুল-সাইফ

আস্থার প্রতিদান দিলেন ইমরুল-সাইফ

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে দুর্দান্ত সেঞ্চুরি করা ইমরুল কায়েস দলের অটোমেটিক চয়েস ...

বাংলাদেশেই চিরশায়িত বাংলার অকৃত্রিম বন্ধু

বাংলাদেশেই চিরশায়িত বাংলার অকৃত্রিম বন্ধু

ফাদার মারিনো রিগনের নিজ হাতে লাগানো 'সোনা ঝুড়ি' গাছটি ফুল ...

এবার সাদা ইয়াবা

এবার সাদা ইয়াবা

এবার সাদা রঙের ইয়াবা উদ্ধার হলো রাজধানীর রামপুরার উলন রোড ...

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে ইসির সাক্ষাৎ ১ নভেম্বর

রাষ্ট্রপতির সঙ্গে ইসির সাক্ষাৎ ১ নভেম্বর

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রচারে জীবন্ত কোনো প্রাণী ব্যবহার করা ...

সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আ' লীগ ১০ আসনও পাবে না: কাদের সিদ্দিকী

সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আ' লীগ ১০ আসনও পাবে না: কাদের সিদ্দিকী

বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী বলেছেন, সুষ্ঠু নির্বাচন হলে আওয়ামী লীগ ১০টির ...

চার্জশিটের আগে গ্রেফতারে সরকারের অনুমতি লাগবে

চার্জশিটের আগে গ্রেফতারে সরকারের অনুমতি লাগবে

আদালতে চার্জশিট গ্রহণের আগে সরকারি কর্মচারিদের গ্রেফতারে অনুমতি নিতে হবে-এমন ...

রণবীর-দীপিকার বিয়ের তারিখ চূড়ান্ত

রণবীর-দীপিকার বিয়ের তারিখ চূড়ান্ত

সকল জল্পনার অবসান ঘটিয়ে শিগগিরই বিয়ের পিঁড়িতে বসছেন বলিউডের দুই ...