নির্বাচন ঘিরে অরাজকতা হলে কঠোর ব্যবস্থা

পুলিশ সদর দপ্তরে বৈঠক

প্রকাশ: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮     আপডেট: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮       প্রিন্ট সংস্করণ     

বিশেষ প্রতিনিধি

আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঘিরে কোনো নৈরাজ্য ও সহিংসতা হলে তা কঠোর ও কঠিনভাবে মোকাবেলার জন্য পুলিশকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। নির্বাচন ঘিরে কোনো সহিংসতা বরদাশত করবে না পুলিশ। এ ছাড়া ২০১৩-১৪ সালের মতো আগুন-সন্ত্রাস যাতে সৃষ্টি না হয়- সে ব্যাপারে সতর্ক থাকার কথা বলা হয়। এদিকে শিগগিরই সারাদেশে অবৈধ মোটরসাইকেলের বিরুদ্ধে বিশেষ অভিযান চালানোর সিদ্ধান্ত হয়। অতীতে দুর্বৃত্তরা নিবন্ধনহীন মোটরসাইকেল ব্যবহার করেই নাশকতার ঘটনা ঘটায়। গতকাল রোববার পুলিশ সদর দপ্তরে অর্ধবার্ষিকী অপরাধ পর্যালোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। পুলিশ মহাপরিদর্শক ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী এতে সভাপতিত্ব করেন। বৈঠকে সব পুলিশ কমিশনার, রেঞ্জ ডিআইজি, ৬৪ জেলার পুলিশ সুপার, ঢাকার বিভিন্ন ইউনিটের প্রধানসহ সারাদেশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। নির্বাচনের আগে এ বৈঠককে গুরুত্বপূর্ণ মনে করা হচ্ছে। মাঠপর্যায়ের করণীয় নিয়ে সেখানে আলোচনা হয়। দায়িত্বশীল একাধিক সূত্র সমকালকে এসব তথ্য জানান।

বৈঠকে আইজিপি বলেছেন, সবার সহযোগিতায় আমরা একটি সুন্দর নির্বাচন আয়োজনে সক্ষম হব। কাউকে নির্বাচন ঘিরে অরাজকতা সৃষ্টির সুযোগ দেওয়া হবে না। অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে মাঠ পর্যায়ের পুলিশ কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেন আইজিপি।

জানা গেছে, নির্বাচনের আগে অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধারের বিষয়টিকে গুরুত্ব সহকারে দেখা হচ্ছে। এ ছাড়া লাইসেন্স করা একজনের অস্ত্র যাতে অন্য কেউ ব্যবহার করতে না পারে সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখতে হবে। শিগগিরই জোরালোভাবে অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার অভিযান চালানোর কথা বলা হয়।

এ ছাড়া দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচন ঠেকাতে একটি চক্র সারাদেশে নৈরাজ্য চালিয়েছে। এবার যাতে এ ধরনের কোনো নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি তৈরি করতে না পারে সে ব্যাপারে আগে থেকে সতর্ক পদক্ষেপ নিতে হবে। ওই সময়ের ঘটনায় যেসব আসামি এখনও গ্রেফতার হয়নি তাদের সমন্বিত তালিকা করে আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলা হয়। এ ছাড়া নতুনভাবে কেউ ষড়যন্ত্র করছে কি-না, সেদিকেও খেয়াল রাখতে হবে।

বৈঠক সূত্রে জানা যায়, সড়ক দুর্ঘটনা প্রতিরোধে পুলিশ যাতে আরও কার্যকর উদ্যোগ নিতে পারে সে ব্যাপারে সক্রিয় ভূমিকা রাখতে হবে। দূরপাল্লার সব গাড়িতে স্পিড কন্ট্রোলার বসানোর ব্যাপারে সিদ্ধান্ত হয়, যাতে কোনো গাড়ি ৮০ কিলোমিটারের বেশি গতিতে চললে তা ধরা পড়ার ব্যবস্থা থাকে। এরই মধ্যে এনা পরিবহনের গাড়িতে এ ধরনের স্পিড কন্ট্রোলার বসানোর উদ্যোগকে ইতিবাচকভাবে দেখা হচ্ছে। ট্রাফিক শৃঙ্খলা ভঙ্গকারীদের কোনো ছাড় দেওয়া হবে না। পুলিশের কোনো কর্মকর্তা বা সদস্য আইন ভঙ্গ করলেও কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে স্মরণ করিয়ে দেওয়া হয়। সীমান্ত পথে যাতে কোনো চোরাই মোটরসাইকেল দেশে ঢুকতে না পারে সে ব্যাপারে সতর্ক থাকবে পুলিশ।

এদিকে আসন্ন নির্বাচন ঘিরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ও ভুঁইফোঁড় অনলাইনে বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়িয়ে নৈরাজ্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টির বিরুদ্ধে সতর্ক থাকবে পুলিশ। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মনিটরিংয়ে সক্ষমতা বাড়ানোর ওপর জোর দেওয়া হয়েছে। গুজব ছড়িয়ে যাতে কোনো গোষ্ঠী আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতির অবনতি ঘটাতে না পারে সে ব্যাপারে পুলিশ সুপারদের সজাগ থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

বৈঠকে জঙ্গিরা যাতে ফের মাথাচাড়া দিয়ে উঠতে না পারে সে ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। বলা হয়, জঙ্গিবাদ মোকাবেলায় আত্মতুষ্টিতে ভোগা যাবে না। তাদের ব্যাপারে নিরবচ্ছিন্ন দৃষ্টি রাখার কথা বলা হয়। এ ছাড়া মাদক নির্মূলে সর্বোচ্চ কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ এসেছে। পুলিশের পেশাদারি অভিযানের কারণেই জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রণে এসেছে বলে উল্লেখ করা হয়।

বৈঠকে বলা হয়, মাদকের বিরুদ্ধে 'জিরো টলারেন্স' নীতি সরকারের। মাদক ব্যবসায়ী যতই শক্তিশালী হোক তাদের বিন্দুমাত্র ছাড় দেওয়া হবে না। এ ছাড়া আসন্ন আশুরা ও দুর্গাপূজা নির্বিঘ্নে উদযাপনের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে পুলিশ সুপারদের নির্দেশ দেন আইজিপি।

বৈঠকে অপরাধ পর্যালোচনায় দেখা যায়- চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসে সারাদেশে এক লাখ ১৪ হাজার ১২৪টি মামলা রুজু হয়েছে। এ সময়ে মাদকদ্রব্য ও চোরাচালানকৃত পণ্য উদ্ধারের ঘটনায় মামলার সংখ্যাও বেড়েছে। ডাকাতি, দস্যুতা, দ্রুত বিচার, দাঙ্গা, নারী ও শিশু নির্যাতন, অপহরণ, সিঁধেল চুরি, চুরি, সড়ক দুর্ঘটনার মামলা সংখ্যা কমেছে। চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসে গাড়ি চুরির মামলা হয়েছে ৭১৪টি। এর মধ্যে পুলিশ ৫৭৩টি গাড়ি উদ্ধার করেছে। এ সময়ে মাদক আইনে মামলার সংখ্যাও বৃদ্ধি পেয়েছে।

সভায় অতিরিক্ত আইজিপি (্‌প্রশাসন) মো. মোখলেসুর রহমান, সিআইডির অতিরিক্ত আইজিপি শেখ হিমায়েত হোসেন, পুলিশ একাডেমি সারদার প্রিন্সিপ্যাল মোহাম্মদ নাজিবুর রহমান, শিল্পাঞ্চল পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি আবদুস সালাম, এপিবিএনের অতিরিক্ত আইজিপি সিদ্দিকুর রহমান, রেলওয়ে পুলিশের অতিরিক্ত আইজিপি মোহাম্মদ আবুল কাশেম, ডিএমপির পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া, এসবির অতিরিক্ত আইজিপি মীর শহীদুল ইসলামসহ পুলিশ সদর দপ্তরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আরও পড়ুন

মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে করণীয়

মুখের দুর্গন্ধ দূর করতে করণীয়

অনেকেই মুখের দুর্গন্ধের সমস্যায় ভোগেন। কাঁচা পেঁয়াজ খেলে, মুখের ভেতরের ...

যশোর ও বান্দরবানে ‌'বন্দুকযুদ্ধে' নিহত ২

যশোর ও বান্দরবানে ‌'বন্দুকযুদ্ধে' নিহত ২

যশোর ও বান্দরবানে পৃথক ‌'বন্দুকযুদ্ধে' দুইজন নিহত হয়েছেন। শুক্রবার গভীর ...

নাটোরে নির্মাণাধীন ড্রেনে আবারও মিললো গ্রেনেড

নাটোরে নির্মাণাধীন ড্রেনে আবারও মিললো গ্রেনেড

নাটোর শহরে নির্মাণাধীন ড্রেন থেকে আরও একটি গ্রেনেড উদ্ধার করা ...

ঢাকায় সাপের দংশনে প্রাণ গেল কলেজছাত্রের

ঢাকায় সাপের দংশনে প্রাণ গেল কলেজছাত্রের

ঢাকার ধামরাইয়ের রামদাইল গ্রামে বিষাক্ত সাপের দংশনে দেলোয়ার হোসেন সোহাগ ...

আওয়ামী লীগের নির্বাচনী সড়কযাত্রা শুরু

আওয়ামী লীগের নির্বাচনী সড়কযাত্রা শুরু

সড়কযাত্রার মাধ্যমে দেশের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলের জেলাগুলোতে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করলো আওয়ামী ...

শেষের রোমাঞ্চে হার আফগানদের

শেষের রোমাঞ্চে হার আফগানদের

এখন পর্যন্ত এশিয়া কাপের সবচেয়ে রোমাঞ্চকর ম্যাচ উপহার দিয়েছে পাকিস্তান-আফগানিস্তান। ...

ভারতের কাছেও বড় হার বাংলাদেশের

ভারতের কাছেও বড় হার বাংলাদেশের

পরপর দুই ম্যাচে বড় হারের স্বাদ পেয়েছে বাংলাদেশ। আফগানিস্তানের বিপক্ষে ...

বরিশালে ইউপি চেয়ারম্যানকে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা

বরিশালে ইউপি চেয়ারম্যানকে প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা

বরিশালের উজিরপুর উপজেলার জল্লাদ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বিশ্বজিৎ হালদার নান্টুকে ...