বইমেলা

চোখ জুড়িয়ে যায়

প্রকাশ: ১২ ফেব্রুয়ারি ২০১৮      

দীপন নন্দী

অমর একুশে গ্রন্থমেলার প্রবেশমুখেই দেখা হলো আগারগাঁওয়ের সামরিনা আমীর প্রীতির সঙ্গে। কথাপ্রকাশের প্যাভিলিয়নের সামনে দাঁড়িয়ে ঝটপট দুটো সেলফি তুলেই এগিয়ে গেলেন পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্সের প্যাভিলিয়নের সামনে; সেখানেও তুললেন ছবি। সঙ্গে কিনে ফেললেন চার-পাঁচটি বইও। বললেন, 'গত কয়েক বছর ধরেই বইমেলা প্রাঙ্গণে দারুণ সব প্যাভিলিয়ন ও স্টল নির্মাণ হচ্ছে। এবারও হয়েছে। বন্ধুরা এসে ছবি তুলে নিয়ে গেছে। নিজেও তাই বই কিনতে এসে ছবি তুললাম।'


গত কয়েক বছর ধরে নান্দনিকভাবে নিজেদের প্যাভিলিয়ন ও স্টলসজ্জা করছেন প্রকাশকরা। যাদের প্যাভিলিয়ন বা স্টল সবচেয়ে নান্দনিক হবে, তারা পাবেন 'কাইয়ুম চৌধুরী স্মৃতি পুরস্কার'। গত বছর পেয়েছিল বাতিঘর, সংবেদ ও পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স।


সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রবেশ করে খানিকটা হাঁটতেই ডানদিকে দেখা মিলবে একটি বাগানের। কাঠের ফ্রেমের মাঝে ছোট ছোট গাছ দিয়ে সাজানো হয়েছে প্যাভিলিয়নটি। যার ওপরে রয়েছে কাগজের নৌকার আদলে কাঠের নৌকা। এবারই প্রথমবারের মতো প্যাভিলিয়ন বরাদ্দ পেয়ে 'সৃজনের আনন্দে পথচলা' প্রতিপাদ্যকে যথার্থ প্রমাণ করেছে প্রকাশনা সংস্থা কথাপ্রকাশ। দিনে এক রূপ, সন্ধ্যার পর আরেক রূপ, যা নিয়ে কথাপ্রকাশ ইতিমধ্যে মুগ্ধ করেছে মেলায় আগতদের। কথাপ্রকাশের প্যাভিলিয়নের ইনচার্জ ইউনুস আলী সমকালকে বলেন, 'প্রয়াত নিসর্গবিদ দ্বিজেন শর্মা গত বছর আমাদের ছেড়ে চলে গেছেন। তার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে কথাপ্রকাশের প্যাভিলিয়নটি গাছ দিয়ে সাজানো হয়েছে। যার নকশা করেছেন সব্যসাচী হাজরা।'


প্রতিবারের মতো অন্যপ্রকাশ-এর প্যাভিলিয়ন  সজ্জাতে এবারও রয়েছেন হুমায়ূন আহমেদ। কার্জন হলের আদলে তৈরি করা এই প্যাভিলিয়নটি মন জয় করে নিয়েছে মেলায় আগতদের। অন্যপ্রকাশের প্রধান নির্বাহী মাজহারুল ইসলাম জানান, প্রতি বছরই হুমায়ূন আহমেদকে প্যাভিলিয়নের মধ্যে শৈল্পিকভাবে উপস্থাপন করা হয়; এবারও হয়েছে। বইমেলা তো শুধু বইয়ের মেলা নয়, এটি ঐতিহ্যের ধারক ও বাহক। তাই স্টলের সাজেও আমরা ঐতিহ্যবাহী কার্জন হলকে সবার সামনে তুলে ধরেছি। যার নকশা করেছেন মাসুম রহমান।


পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্সের প্যাভিলিয়নের নকশা করেছেন রাজীব রায়, যা দেখতে দৈত্যাকৃতির পাঠাগারের মতো। তিনি জানান, এমন একটি পরিবেশ তৈরি করার চেষ্টা হয়েছে, যাতে পাঠকরা মনে করেন, তারা পাঠাগারের ভেতরে বসে বই পড়ছেন। রাজীব রায়ের এই পরিকল্পনা দারুণভাবে সফল হয়েছে। কারণ এখানে ছবি তুলতে ছোট-বড় সব বয়সী পাঠকেরই ভিড় থাকছে সব সময়।


জার্নিম্যান বুকসের প্যাভিলিয়নেও রয়েছে সাদার ছোঁয়া। এর স্বত্বাধিকারী কবি তারিক সুজাত ও তার স্ত্রী নাজনীন হক মিমি যৌথভাবে এর নকশা করেছেন। চারদিকে খোলা এ প্যাভিলিয়নের ছোট্ট ছোট্ট জানালার ফাঁকে দেখা মেলে বিভিন্ন ধরনের ফুলের গাছ। অশোক কর্মকারের নকশায় প্রথমা প্রকাশনের প্যাভিলিয়নের সজ্জায় রাখা হয়েছে শ্বেত-শুভ্র বর্ণ। পিরামিড আদলে গড়া এ প্যাভিলিয়নটিও নজর কেড়েছে সবার।


দুই ইউনিটের স্টল নিমফিয়া পাবলিকেশন্সের স্টলের সজ্জাও করেছেন সব্যসাচী হাজরা। রিকশাচিত্রের শিল্পী প্রশান্ত কুমার দাশের রিকশাচিত্র অবলম্বনে এ স্টলটি সাজিয়েছেন তিনি। তাম্রলিপির প্রকাশক একেএম তারিকুল ইসলাম রনি ও তার স্ত্রী তাসনুভা আদিবা সেঁজুতি যৌথভাবে কমলা বর্ণের চারচালা ঘরের আদলে সাজিয়েছেন তাদের প্রকাশনা সংস্থার প্যাভিলিয়ন। লালবাগ কেল্লার আদলে সজ্জিত বাতিঘরের স্টলের নকশা করেছেন শাহিনূর রহমান। স্থপতি সাঈদ খন্দকারের নকশায় সংবেদ এবং তৌফিকুর রহমান খানের নকশায় ইউনিভার্সিটি প্রেস লিমিটেডের স্টলও নজর কেড়েছে সবার।


নতুন বই : বাংলা একাডেমির তথ্যকেন্দ্র জানিয়েছে, গতকাল রোববার মেলার একাদশতম দিনে নতুন ১০২টি বই প্রকাশিত হয়েছে। এর মধ্যে গল্প ১৬, উপন্যাস ১২, প্রবন্ধ ৫, কবিতা ৩৭, গবেষণা ১, ছড়া ২, শিশুসাহিত্য ১, জীবনী ২, মুক্তিযুদ্ধ ২, বিজ্ঞান ১, ভ্রমণ ২, ইতিহাস ৩, রাজনীতি ১, রম্য/ধাঁধা ৩ এবং অন্যান্য বিষয়ের ওপর ১৪টি নতুন বই প্রকাশ পেয়েছে।


এর মধ্যে রয়েছে সালেক খোকনের 'আদিবাসী বিয়ে কথা' ও আলম তালুকদারের 'যে ছড়া রবীন্দ্রনাথ লেখে নাই' (কথাপ্রকাশ), কাজী আবদুল ওদুদের 'হিন্দু মুসলমানের বিরোধ', শামসুজ্জামান খানের 'ফোকলোর সংগ্রহমালা-১১৫', রশীদ হায়দারের 'স্মৃতি :১৯৭১ প্রথম খণ্ড' (বাংলা একাডেমি), আহমদ রফিকের 'নির্বাসিত নায়ক' (অনিন্দ্য প্রকাশ), হাসান আজিজুল হকের 'চলচ্চিত্রের খুঁটিনাটি' (আলেয়া বুক ডিপো), কাজী খলীকুজ্জমান আহমদের 'এনভায়রনমেন্ট; ক্লাইমেট চেঞ্জ অ্যান্ড ওয়াটার রিসোর্স' (পাঠক সমাবেশ), আল মাহমুদের 'জীবন যখন বাঁক ঘোরে' (সরলরেখা), পরিবেশক বইঘর; মুনতাসীর মামুনের 'ওয়েন লিওনার্দ যখন ঢাকায়' (জার্নিম্যান); আনজীর লিটনের 'ও ছড়া তুই যাস কই' (চন্দ্রাবতী একাডেমি) এবং অতনু তিয়াসের 'আমি অথবা অন্য কেউ' (ঐতিহ্য)।


মেলামঞ্চের আয়োজন : গতকাল মেলার মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় 'রুশ বিপ্লবের শতবার্ষিকী' শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন কথাসাহিত্যিক-সাংবাদিক ইমতিয়ার শামীম। আলোচনায় অংশ নেন ডা. সারওয়ার আলী ও সৈয়দ আজিজুল হক। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক পবিত্র সরকার।


ইমতিয়ার শামীম বলেন, 'একশ বছর আগে এই পৃথিবীর একটি দেশে এক বিপ্লব হয়েছিল, যার দিকে এখনও আমাদের ফিরে তাকাতে হয়, যা এখনও আমাদের উদ্দীপ্ত করে।'


পবিত্র সরকার বলেন, 'পৃথিবীতে শ্রেণিবিভক্ত সমাজ প্রতিষ্ঠার পর থেকেই শোষকের বিরুদ্ধে শোষিতের বিপ্লবের ইতিহাস রয়েছে। তার ধারাবাহিকতাতেই ১৯১৭ সালে মহান রুশ বিপ্লবের মাধ্যমে সমাজতান্ত্রিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠিত হয়।'


সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সঙ্গীত পরিবেশন করে সাংস্কৃতিক সংগঠন কেন্দ্রীয় খেলাঘর আসর, স্বভূমি লেখক শিল্পী কেন্দ্র এবং সারেগামাপা সঙ্গীত পরিষদ।


আজকের আয়োজন : আজ সোমবার অমর একুশে গ্রন্থমেলার ১২তম দিন। মেলা চলবে বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত। বিকেলে গ্রন্থমেলার মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে শিক্ষা শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন আবুল মোমেন। আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন রাশেদা কে চৌধুরী, আতিউর রহমান এবং এবং এ. এম. মাসুদুজ্জামান। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন মনজুর আহমেদ। সন্ধ্যায় রয়েছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

আরও পড়ুন

মাংস ব্যবসায়ীদের এত কারসাজি!

মাংস ব্যবসায়ীদের এত কারসাজি!

মাংসের দোকানিদের কারসাজির যেন শেষ নেই। কেউ পানিতে চুবিয়ে মাংসের ...

অমীমাংসিত ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীর ভূমিকা জাতি জানতে চায়: মির্জা ফখরুল

অমীমাংসিত ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রীর ভূমিকা জাতি জানতে চায়: মির্জা ফখরুল

ভারতের সঙ্গে তিস্তার পানি বণ্টনসহ বিভিন্ন অমীমাংসিত সমস্যা সমাধানে প্রধানমন্ত্রীর ...

নির্বাচনের আগে সংসদ ভাঙার দাবি বি. চৌধুরীর

নির্বাচনের আগে সংসদ ভাঙার দাবি বি. চৌধুরীর

যুক্তফ্রন্টের চেয়ারম্যান ও বিকল্পধারা বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট একিউএম বদরুদ্দোজা চৌধুরী একাদশ ...

আর্জেন্টিনাকে আত্মবিশ্বাসে ফিরতে হবে: মাচেরানো

আর্জেন্টিনাকে আত্মবিশ্বাসে ফিরতে হবে: মাচেরানো

বছর চারের ধরে দারুণ ফুটবলের প্রদর্শনী দেখিয়েছে আর্জেন্টিনা। কিন্তু সামগ্রিকভাবে ...

বাংলাদেশের রাজনীতিতে বিএনপি দুষ্টগ্রহ: কামরুল

বাংলাদেশের রাজনীতিতে বিএনপি দুষ্টগ্রহ: কামরুল

খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম বলেছেন, বাংলাদেশের রাজনীতিতে বিএনপি দুষ্টগ্রহ।এই দুষ্টগ্রহকে বাংলাদেশের ...

কবিরাজির নামে নারীদের ধর্ষণ করতেন তারা!

কবিরাজির নামে নারীদের ধর্ষণ করতেন তারা!

কবিরাজি চিকিৎসার নামে নারীদের ধর্ষণ, ধর্ষণের ভিডিওচিত্র ধারণ ও সেই ...

 নাদিয়ার চোখ দিয়ে রক্ত ঝরছে

নাদিয়ার চোখ দিয়ে রক্ত ঝরছে

চোখ দিয়ে রক্ত ঝরছে! শুনতে অবাক লাগলেও সত্য। নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জের ...

প্রধানমন্ত্রীর সফর যৌক্তিক করতে তিস্তা চুক্তি করুন: মোশাররফ

প্রধানমন্ত্রীর সফর যৌক্তিক করতে তিস্তা চুক্তি করুন: মোশাররফ

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, বাংলাদেশের ...