রাজধানী

ঈদযাত্রায় রাস্তার জন্য যানজট হবে না: কাদের

প্রকাশ: ০১ জুন ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের— ফাইল ছবি

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, এবার ঈদযাত্রায় রাস্তার জন্য যানজট হবে না। কিন্তু ফিটনেসবিহীন গাড়িগুলো যানজট সৃষ্টি করতে পারে। কারণ এসব গাড়ি সহজেই রাস্তায় বিকল হয়ে যায়। পরে রেকার এনে সরাতে দীর্ঘ সময় লাগে। ততক্ষণে দীর্ঘ যানজট তৈরি হয়।

শুক্রবার সকালে যাত্রাবাড়ীর মাতুয়াইলে ফিটনেসবিহীন যানবাহনের বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালতের কার্যক্রম পরিদর্শনের পর তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালত মাতুয়াইলে চারটি গ্যারেজে ১৪টি গাড়ির কাগজপত্র পরীক্ষা করে। ফিটনেস না থাকায় দুটি গাড়ি ডাম্পিংয়ে পাঠানো হয়। বৈধ কাগজপত্র দেখাতে না পারায় গ্যারেজ মালিকদের ৮০ হাজার টাকা এবং একটি গাড়ির মালিককে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ফিটনেসবিহীন গাড়ি রাস্তায় চলছে কেন— এমন প্রশ্নের উত্তরে সেতুমন্ত্রী বলেন, ঈদের সময় কোটি মানুষ ঢাকার বাইরে যাবে। এই সুযোগে ফিটনেসবিহীন লক্কর-ঝক্কর গাড়িগুলো রংচং করিয়ে রাস্তায় নামানো হয়। এগুলো বন্ধের দায়িত্ব ছিল বিআরটিএর, তারা এ ব্যাপারে নাকে তেল দিয়ে ঘুমিয়েছে।

তিনি আরও বলেন, পুলিশের নাকের ডগায় এ ধরনের অবৈধ কাজ হচ্ছে। তারা এসব বিষয়ে ইনফর্ম করেননি। বিআরটিএ ও পুলিশ উভয়ের এ নিয়ে দায় আছে।

যেসব গ্যারেজে ফিটনেসবিহীন গাড়িতে রং করে আবার রাস্তায় নামানো হচ্ছে সেসব গ্যারেজ সিলগালা করার নির্দেশ দিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, এখন বিআরটিএর প্রধান কাজ হলো ফিটনেসবিহীন গাড়িগুলোর বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রাখা। ফিটনেসবিহীন গাড়ি যাতে রাস্তায় না আসে সেজন্য উৎস মুখ বন্ধ করতে হবে।

এ সময় মন্ত্রী যানজট কমাতে উল্টোপথে গাড়ি চলাচল বন্ধের ওপর জোর দিয়ে বলেন, দশজন ভিআইপিকে খুশি করতে গিয়ে লাখ লাখ লোককে কষ্ট দেয়া চলবে না।

ঈদের আগে রাজধানীতে রাস্তায় খোঁড়াখুড়ি বন্ধের জন্য ওয়াসা, বিদ্যুৎ ও টেলিফোন সংস্থাগুলোর প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, ঈদের আগে এবং পরে কয়েকদিন যেন কোনো খোঁড়াখুড়ি করা না হয়। খোঁড়াখুড়ির কারণে মানুষ রাজধানীতে ভীষণ কষ্টে আছে।

আরও পড়ুন

রোনালদো-লুকাকুকে ছাড়িয়ে হ্যারি কেন

রোনালদো-লুকাকুকে ছাড়িয়ে হ্যারি কেন

রাশিয়াতে ইংল্যান্ডের পতাকাটা বহন করছেন তিনি। কোনোভাবেই তাকে নিস্প্রভ হলে ...

আর্থিক খাতের সংকট থেকে বের হওয়া বড় চ্যালেঞ্জ: রেহমান সোবহান

আর্থিক খাতের সংকট থেকে বের হওয়া বড় চ্যালেঞ্জ: রেহমান সোবহান

দেশে আর্থিক খাত স্বাভাবিক নয়। স্বল্প মেয়াদি আমানত থেকে দীর্ঘ ...

বাবার হত্যাকারী ভাইকে গলাকেটে হত্যা, যুবক আটক

বাবার হত্যাকারী ভাইকে গলাকেটে হত্যা, যুবক আটক

কুমিল্লার দেবীদ্বারে মাদকের টাকার জন্য বাবাকে কুপিয়ে হত্যাকারী সেই মাদকাসক্ত ...

প্রশাসনে ৬ লাখ পদ সৃষ্টি করেছে বর্তমান সরকার

প্রশাসনে ৬ লাখ পদ সৃষ্টি করেছে বর্তমান সরকার

বর্তমান সরকারের সময়ে প্রশাসনে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ছয় লাখ ১৩ হাজার ...

বরিশালের ১৭  রুটের বাস ধর্মঘট প্রত্যাহার

বরিশালের ১৭ রুটের বাস ধর্মঘট প্রত্যাহার

ঝালকাঠি জেলা বাস মালিক সমিতির সঙ্গে বরিশাল, পটুয়াখালী ও বরগুনা ...

যেসব সমস্যা কাটিয়ে উঠতে হবে আর্জেন্টিনাকে

যেসব সমস্যা কাটিয়ে উঠতে হবে আর্জেন্টিনাকে

একেবারে খাদের কিনারে দাঁড়িয়ে আর্জেন্টিনা। মুহূর্তের ভুলে বিশ্বকাপের পরের পর্বটা ...

প্রচারণার শেষ দিনে গাজীপুরে দুই প্রার্থীর ব্যস্ত সময়

প্রচারণার শেষ দিনে গাজীপুরে দুই প্রার্থীর ব্যস্ত সময়

প্রচারণার শেষ দিনে ব্যস্ত সময় কাটালেন গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ...

শুধু একটি লোকের কারণে কেরানীগঞ্জের এই দুরবস্থা: কামরুল

শুধু একটি লোকের কারণে কেরানীগঞ্জের এই দুরবস্থা: কামরুল

কেরানীগঞ্জ উপজেলা চেয়ারম্যান শাহীন আহমেদকে উদ্দেশ্য করে খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ...