রাজধানী

নামাজ পড়তে বেরিয়ে ফিরলেন লাশ হয়ে

প্রকাশ: ০৮ জুন ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

প্রতি শুক্রবার হাইকোর্ট মসজিদে জুমার নামাজ পড়তেন সমিরন আক্তার সেলিনা (৫০)। শুক্রবারও সেই উদ্দেশে তিনি বাসা থেকে বের হয়েছিলেন। কিন্তু মসজিদ পর্যন্ত আর পৌঁছানো হয়নি। 

পল্টনের তোপখানা সড়কে বাসচাপায় মৃত্যু হয় তার। শুক্রবার সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। 

শাহবাগ থানার ওসি আবুল হাসান সমকালকে বলেন, তোপখানা রোড থেকে হাইকোর্ট মসজিদের দিকে হেঁটে যাওয়ার সময় বাসচাপায় ওই নারীর মৃত্যু হয়। এর পরপরই দুর্ঘটনায় দায়ী মিডলাইন পরিবহনের বাসটি জব্দ ও চালক তরিকুলকে আটক করে পুলিশ। তার বিরুদ্ধে মামলা হবে। ময়নাতদন্তের জন্য সমিরনের লাশ ঢাকা মেডিকেল কলেজ মর্গে পাঠানো হয়েছে।

শাহবাগ থানা পুলিশ ও নিহতের স্বজনদের সূত্রে জানা যায়, পুরান ঢাকার সূত্রাপুরের নাসির উদ্দিন সর্দার লেনের ২৫/এ নম্বর বাসায় থাকতেন সমিরন। সকালে তিনি হাইকোর্ট মসজিদে নামাজ পড়ার উদ্দেশে বাসা থেকে বের হন। সকাল সোয়া ১০টার দিকে তিনি প্রেস ক্লাবের সামনে বাস থেকে নামেন। এর পরপরই মিডলাইন পরিবহনের একটি বাস তাকে চাপা দিয়ে পালানোর চেষ্টা করে। তবে পুলিশ ও জনতা মিলে বাসটি থামায়। এদিকে গুরুতর আহত অবস্থায় সমিরনকে উদ্ধার করে নেওয়া হয় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। সেখানে পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক জানান, পথেই মৃত্যু হয়েছে তার।

সমিরনের মৃত্যুর খবর শুনে ঢামেক হাসপাতালে ছুটে যান তার বড় বোন সালমা বেগম ও ছেলে উজ্জ্বলসহ স্বজনরা। তাদের কান্নায় ভারী হয়ে ওঠে হাসপাতালের পরিবেশ। 

উজ্জ্বল জানান, তার বাবার নাম আবদুল বারেক। তিনি প্রায় ১০ বছর আগে মারা যান। তার সঙ্গেই থাকতেন সমিরন। অন্য শুক্রবারের মতো তিনি সকালে হাইকোর্ট মসজিদে আসার জন্য বের হন। কিন্তু এমন একটি ঘটনা ঘটতে পারে এটা তার কল্পনায়ও ছিল না। প্রয়োজনে তিনি নিজেই মায়ের সঙ্গে আসতে পারতেন। মাকে মসজিদে পৌঁছে দিতে পারতেন। এভাবে দুর্ঘটনায় মায়ের মৃত্যুর জন্য নিজেকেই বারবার দুষছিলেন উজ্জ্বল।

নিহত সমিরনের গ্রামের বাড়ি মুন্সীগঞ্জের সিরাজদীখানে।

যানবাহনের বেপরোয়া গতির কারণে এপ্রিলে রাজধানীতে বেশ কিছু প্রাণঘাতী দুর্ঘটনা ঘটে। এর মধ্যে দুর্ঘটনায় হাত ও পা হারানোর পর কলেজছাত্র রাজীব হোসেন ও গৃহকর্মী রোজিনা আক্তার চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এ ছাড়াও বেশ কয়েকজন সড়ক দুর্ঘটনায় হতাহত হন। ১১ মে মিরপুরের শাহআলীতে বাস ও লেগুনার সংঘর্ষে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই ছাত্রসহ তিনজন নিহত হন।

তারা হলেন- মানারাত ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ছাত্র ইয়াসিন আহমেদ শুভ, নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শিবলি সাদিক ও সাত বছরের খাদিজা জোয়ারিয়া।

বিষয় : রাজধানী সড়ক দুর্ঘটনা

পরবর্তী খবর পড়ুন : যুক্তরাজ্যে ফোজিত শেখ বাবুর আলোকচিত্র প্রদর্শনী

আরও পড়ুন

ইংল্যান্ডের হ্যারি কেন দেখল তিউনেশিয়া

ইংল্যান্ডের হ্যারি কেন দেখল তিউনেশিয়া

রাশিয়া বিশ্বকাপের পরিচিত ঘটনা। শেষ সময়ে গোল করে সমতা ফেরানো ...

ঢাকা উত্তর নিয়ে বিপাকে বিএনপি

ঢাকা উত্তর নিয়ে বিপাকে বিএনপি

ঢাকা মহানগর উত্তর বিএনপির থানা ও ওয়ার্ড কমিটি নিয়ে বিপাকে ...

বিতর্ক থাকলেও সফল ভিএআর

বিতর্ক থাকলেও সফল ভিএআর

পিয়েরলুইগি কোলিনা এবং ফিফা রেফারি কমিটি সত্যিই প্রশংসার দাবিদার। এবারের ...

বন্যায় ভেসেছে ঈদ আনন্দ

বন্যায় ভেসেছে ঈদ আনন্দ

টানা বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা ঢলে মৌলভীবাজার, সিলেট, ...

ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগ, সুষ্ঠু নির্বাচন চায় বিএনপি

ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগ, সুষ্ঠু নির্বাচন চায় বিএনপি

গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচন স্থগিত হওয়ার এক মাস ১২ দিনের ...

বঙ্গোপসাগরে ট্রলার ডুবে নিখোঁজ ২১

বঙ্গোপসাগরে ট্রলার ডুবে নিখোঁজ ২১

বঙ্গোপসাগরের বাঁশখালী-কুতুবদিয়া চ্যানেলের সোনারচর এলাকায় ট্রলার ডুবে ২১ জন মাঝিমাল্লা ...

'খালেদা প্রকৃত অসুস্থ হলে হাসপাতাল ঠিক করতে এত সময় নিতেন না'

'খালেদা প্রকৃত অসুস্থ হলে হাসপাতাল ঠিক করতে এত সময় নিতেন না'

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, অনেকেই মনে করেন, বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা ...

লুকাকুর জোড়া গোলে বড় জয় বেলজিয়ামের

লুকাকুর জোড়া গোলে বড় জয় বেলজিয়ামের

প্রথমার্ধ গোল শুন্য সমতায় শেষ হয়েছিল বেলজিয়াম-পানামার ম্যাচটি। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে ...