সিটি নির্বাচন

ইসির নির্দেশনায় আপত্তি আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর

তিন সিটি নির্বাচন

প্রকাশ: ১৩ জুলাই ২০১৮       প্রিন্ট সংস্করণ     

সমকাল প্রতিবেদক

রাজশাহী, বরিশাল ও সিলেট সিটি করপোরেশন এলাকায় নির্বাচনী প্রচারকালে বিনা পরোয়ানায় গ্রেফতার না করতে নির্বাচন কমিশনের নির্দেশনা বিষয়ে আপত্তি জানিয়েছে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। তারা বলেছে, গণমাধ্যমে এ সংক্রান্ত সংবাদ ছাপা হলেও ইসির পক্ষ থেকে লিখিত কোনো আদেশ তারা পায়নি।

জবাবে কমিশনের পক্ষ থেকে ফৌজদারি কার্যবিধি অনুসরণের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। তবে নির্বাচনে কারও বিরুদ্ধে হয়রানি ও বৈষম্যমূলক ব্যবস্থা না নিতে তাদেরকে নির্দেশ দিয়েছে ইসি। এমনকি আটকের পর পুরনো মামলার অজ্ঞাত আসামি হিসেবে গ্রেফতার না দেখাতেও বলা হয়েছে। তিন সিটি নির্বাচন উপলক্ষে গতকাল বৃহস্পতিবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে আয়োজিত আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত বৈঠকে এসব কথা বলা হয়। বৈঠকে উপস্থিত একাধিক সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে. এম. নুরুল হুদার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় অন্য চার কমিশনার, দেশের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী সব বাহিনী ও গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিনিধি এবং তিন রিটার্নিং কর্মকর্তাসহ সংশ্নিষ্টরা অংশ নেন।

সূত্র জানায়, বৈঠকে গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিনিধিদের পক্ষ থেকে তিনি সিটি করপোরেশন এলাকায় স্বাভাবিক অবস্থা বিরাজ করছে বলে ইসিকে জানানো হয়। তবে তাদের আশঙ্কা, বরিশাল সিটিতে সহিংসতা ও রাজশাহী সিটির মতিহার থানা এলাকায় জঙ্গি তৎপরতা দেখা দিতে পারে। মতিহার থানার পাশে রয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়। এসব এলাকায় আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের বিশেষ নজর রাখতে বলা হয়েছে। এ ছাড়া নির্বাচনী এলাকায় টাকার খেলা চলছে উল্লেখ করে তা নিয়ন্ত্রণে মনিটরিং বাড়ানোর পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। সহিংসতা এড়াতে তিন সিটির কাউন্সিলর প্রার্থীদের কর্মকাণ্ডের ওপর দৃষ্টি বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে।

বৈঠক শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের উদ্দেশে সিইসি কে. এম. নুরুল হুদা বলেন, নির্বাচনে সবার জন্য সমান সুযোগ তৈরি আছে এবং তা থাকবে। তিনি এখনও আশা করেন, আগামী জাতীয় নির্বাচনে বিএনপি অংশ নেবে। তিনি বলেন, তিন সিটি করপোরেশনের নির্বাচন যাতে সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করা যায়, সেই নির্দেশনা ইসির পক্ষ থেকে দেওয়া হয়েছে। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কথাও ইসি শুনেছে। সবার আশা, সুষ্ঠুভাবে এই তিন সিটির নির্বাচন করা সম্ভব হবে। বাড়তি কোনো ব্যবস্থা নেওয়ার দরকার হবে না। এক প্রশ্নের জবাবে সিইসি বলেন, জাতীয় নির্বাচন সামনে রেখে এই নির্বাচন যাতে প্রশ্নবিদ্ধ না হয়, সুষ্ঠুভাবে পরিচালনার জন্য যা যা করণীয়, তা করা হবে বলে বৈঠকে উপস্থিত সংশ্নিষ্টদের পক্ষ থেকে প্রতিশ্রুতি পাওয়া গেছে।

সিইসি আশা করেন, আগামী জাতীয় নির্বাচনেও বিএনপি অংশ নেবে। সবাইকে নিয়েই নির্বাচন হবে।

বৈঠক সূত্র জানায়, নির্বাচন কমিশনার কবিতা খানম আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতিনিধিদের উদ্দেশে বলেন, সিআরপিসি (ফৌজদারি কার্যবিধি) অনুযায়ী গ্রেফতার করা যাবে। গ্রেফতারের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আদালতে হাজির করতে হবে। সুনির্দিষ্ট অভিযোগ না থাকলে পুরনো মামলার অজ্ঞাতনামা আসামি হিসেবে কাউকে গ্রেফতার করা যাবে না। আরেক নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী বলেন, যাদের বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট নেই, তাদের বিরুদ্ধে নতুন করে ওয়ারেন্ট ইস্যু করিয়ে গ্রেফতার করা যাবে না। ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্র নির্ধারণ নিয়েও প্রশ্ন তোলেন তিনি।

বৈঠকে পুলিশের এক ডিআইজি আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, নির্বাচনে বৈধ অস্ত্রের অবৈধ ব্যবহার হতে পারে। গোয়েন্দা সংস্থার এক কর্মকর্তা বলেন, নির্বাচন সুষ্ঠু হবে- এ বিষয়ে কোনো শঙ্কা নেই। তবে ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রে অস্ত্রধারী পুলিশ ও আনসারের সংখ্যা বাড়ানোর প্রস্তাব দেন তিনি। ওই কর্মকর্তা বলেন, শুধু মেয়র নয়, কাউন্সিলর প্রার্থীদেরও নজরদারি করা দরকার। তারাই সহিংসতায় জড়িয়ে পড়েন।

বিবিসি’র অনুপ্রেরণাদায়ী নারীর তালিকায় হৃদয়ের মা

বিবিসি’র অনুপ্রেরণাদায়ী নারীর তালিকায় হৃদয়ের মা

বিবিসি’র অনুপ্রেরণাদায়ী ও প্রভাবশালী একশ নারীর তালিকায় স্থান পেয়েছেন সেই ...

মা-বাবা এমন নিষ্ঠুরও হয়!

মা-বাবা এমন নিষ্ঠুরও হয়!

নির্যাতিত শিশুর কথা শুনে তার বাড়ির রাস্তায় দাঁড়াতেই প্রতিবেশী শিরিনা ...

নিউইয়র্কে ডাকাত ধরতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ বাংলাদেশি

নিউইয়র্কে ডাকাত ধরতে গিয়ে গুলিবিদ্ধ বাংলাদেশি

যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে ডাকাত ধরতে গিয়ে গুলি খেলেন বাংলাদেশি যুবক মোহাম্মদ ...

যশোরের বিএনপি নেতা আবু ঢাকায় 'অপহৃত'

যশোরের বিএনপি নেতা আবু ঢাকায় 'অপহৃত'

যশোর জেলা বিএনপির সহসভাপতি ও কেশবপুর উপজেলার মজিদপুর ইউনিয়ন পরিষদ ...

দেশে হঠাৎ বন্ধ স্কাইপি

দেশে হঠাৎ বন্ধ স্কাইপি

দেশে হঠাৎ করে সোমবার বিকেল থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম স্কাইপি ...

জেনে-শুনে মন্তব্য করা উচিত: দুদক চেয়ারম্যান

জেনে-শুনে মন্তব্য করা উচিত: দুদক চেয়ারম্যান

'তদন্ত করলে দুদকেও দুর্নীতি বেরুবে'- জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যানের ওই ...

আগাম প্রচার সামগ্রী সরানো না হলে জরিমানা: ইসি

আগাম প্রচার সামগ্রী সরানো না হলে জরিমানা: ইসি

জাতীয় নির্বাচন উপলক্ষে আগাম প্রচার সামগ্রী যারা সরাননি, তাদের জরিমানা ...

পুরুষের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠার দাবি

পুরুষের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠার দাবি

'বৈষম্য নয় পুরুষের ন্যায্য অধিকার প্রতিষ্ঠিত হোক' প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে ...