জামিন পেয়ে যা বললেন নওশাবা

প্রকাশ: ২৩ আগস্ট ২০১৮     আপডেট: ২৩ আগস্ট ২০১৮      

অনলাইন ডেস্ক

তথ্যপ্রযুক্তি আইনের মামলায় অভিনেত্রী ও মডেল কাজী নওশাবা আহমেদকে গত মঙ্গলবার জামিন দিয়েছেন আদালত। ঢাকা মহানগর হাকিম দেবব্রত বিশ্বাস ১ অক্টোবর পর্যন্ত নওশাবার অন্তর্বর্তীকালীন জামিন মঞ্জুর করেন।

জামিন পেয়ে পরিবারের সঙ্গে ঈদ উদযাপন করেছেন এ অভিনেত্রী। জামিনে মুক্তি পাওয়ার পর নওশাবার মনের অবস্থা ও বর্তমান অনুভূতি তার স্বামী ঈশান রহমান জিয়া বৃহস্পতিবার তুলে ধরেছেন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে।

নওশাবার পক্ষ থেকে ফেসবুকে ইশান লিখেছেন, 'দেশের সবাইকে ঈদুল আজহার বিলম্বিত শুভেচ্ছা জানাচ্ছি। আপনারা জানেন, আমাকে ঈদের আগের বিকেলে নিম্ন আদালত জামিন প্রদান করেছেন। এর মধ্য দিয়ে দেশের স্বাধীন বিচার বিভাগ তার মানবিকতার উজ্জ্বল এক দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। আমি অভিভূত। আমার আইনজীবীদের প্রতি আমার কৃতজ্ঞতার শেষ নেই।'

'আমার একমাত্র কন্যা প্রকৃতি’র সঙ্গে ঈদের আনন্দ পরিপূর্ণভাবে অনুভব করার সুযোগ করে দেয়ার জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানানোর উপযুক্ত ভাষা আমার জানা নেই। তিনি বাংলাদেশের ষোল কোটি মানুষের একজন পরীক্ষিত, প্রকৃত ও সুযোগ্য অভিভাবক। এই ভূমিকার বাইরেও তিনি যে একজন মমতাময়ী মা তা আবারো আমি নিজে একজন মা হিসেবে হৃদয়ের অন্তঃস্থল থেকে বুঝতে পারলাম। নিকট অতীতেও রোহিঙ্গা ইস্যুতে তার মাতৃত্বসুলভ গুণাবলীর অনেক দৃষ্টান্ত তিনি রেখেছেন।'

ফেসবুকে নওশাবার পক্ষে তার স্বামী আরও লিখেছেন, 'পুলিশ, র‍্যাব, ডিবি, সাইবার ক্রাইম ইউনিট আর কাশিমপুর কারাগারে দায়িত্বরত আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর প্রতিটি সদস্য, ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসকেরা এবং নার্সেরা— যারাই আমাকে অনেক প্রফেশনালিজম আর সহমর্মিতার সঙ্গে প্রতিটি স্তরে হেফাজত করেছিলেন, তাদের প্রতিও আমার আকুণ্ঠ কৃতজ্ঞতা।'

তিনি লিখেছেন, 'অভিনয় শিল্পী সমিতির প্রেসিডেন্ট এবং সদস্যবৃন্দ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদসহ অন্যান্য বিভাগের শিক্ষক-ছাত্রছাত্রী, বিভিন্ন গণমাধ্যমের কর্মী আর বাংলাদেশের সকল শিশুসহ আমার শুভাকাঙ্ক্ষীদের বলতে চাই আপনারা যারা বিগত কয়েক সপ্তাহে আমার পরিবারের পাশে থেকেছেন, ক্রমাগত সাহস আর আশ্বাস দিয়েছেন। যার যার ব্যক্তিগত ও পেশাগত অবস্থান থেকে এগিয়ে এসেছেন, তাদের জন্য আমার অনেক ভালোবাসা রইল। আপনাদের সবার নিঃস্বার্থ প্রার্থনাতেই আমার মেয়ে প্রকৃতি ঈদের সারাটা দিন তার মাকে কাছে পেয়েছে।'

'পরিশেষে আমি আবারো একান্ত অনুরোধ করে বলতে চাই, যেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা, গণতান্ত্রিক বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী তার চিরায়ত মাতৃত্বসুলভ মমতায় আমার আবেগতাড়িত ও অনিচ্ছাকৃত ভুলকে ক্ষমাসুন্দর দৃষ্টিতে দেখেন।'

গত ৪ আগস্ট ধানমণ্ডির জিগাতলায় নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীদের সঙ্গে একদল যুবকের সংঘর্ষের সময় ফেসবুক লাইভে এসে আন্দোলনের শিক্ষার্থীদের সর্ম্পকে নানা নেতিবাচক তথ্য দিয়েছিলেন। ওই সময় সেই ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে পড়ে। লাইভে নওশাবা যা বলেছিলেন ওই ঘটনার কোনো সত্যতা পাওয়া যায়নি। মিথ্যা গুজব ছড়ানোর দায়ে একইদিন সন্ধ্যায় উত্তরার একটি শুটিং বাড়ি থেকে গ্রেফতার হন নওশাবা।

আরও পড়ুন

মিরপুরের কালশি বস্তিতে মাদকবিরোধী অভিযান

মিরপুরের কালশি বস্তিতে মাদকবিরোধী অভিযান

রাজধানীর মিরপুরের কালশী বস্তিতে মাদকবিরোধী অভিযান শুরু করেছে যৌথবাহিনী। রোববার ...

ছোট ভাইকে হাতুড়িপেটা করে মারল বড় ভাই!

ছোট ভাইকে হাতুড়িপেটা করে মারল বড় ভাই!

পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলায় পারিবারিক বিরোধের জের ধরে ছোট ভাইকে হাতুড়ি-বাটাল ...

২৬ বছরের অভিনেত্রীর সঙ্গে ৭০ বছরের মহেশ ভাটের প্রেম!

২৬ বছরের অভিনেত্রীর সঙ্গে ৭০ বছরের মহেশ ভাটের প্রেম!

এক তরুণ অভিনেত্রীর কাঁধে মাথা রেখেছেন খ্যাতিমান পরিচালক মহেশ ভাট। ...

ইরানে সামরিক কুচকাওয়াজে হামলা: ৩ রাষ্ট্রদূতকে তলব

ইরানে সামরিক কুচকাওয়াজে হামলা: ৩ রাষ্ট্রদূতকে তলব

ইরাক সীমান্তের কাছে ইরানের সামরিক কুচকাওয়াজে নির্বিচারে গুলি চালিয়ে শিশু ...

ফেঁসে যেতে পারেন যুক্তরাষ্ট্রে গ্রিন কার্ড আবেদনকারীরা

ফেঁসে যেতে পারেন যুক্তরাষ্ট্রে গ্রিন কার্ড আবেদনকারীরা

যুক্তরাষ্ট্রে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন একটি প্রস্তাবনা দিয়েছে যার ফলে ...

বগুড়ায় রেলসেতুর মেরামত কাজ সন্ধ্যা নাগাদ শেষ হতে পারে

বগুড়ায় রেলসেতুর মেরামত কাজ সন্ধ্যা নাগাদ শেষ হতে পারে

বগুড়ায় দেবে যাওয়া রেলসেতুর মেরামত কাজ শেষ না হওয়ায় রোববার ...

সাতক্ষীরায় পুলিশের বিশেষ অভিযানে আটক ৬৩, ইয়াবা-ফেনসিডিল উদ্ধার

সাতক্ষীরায় পুলিশের বিশেষ অভিযানে আটক ৬৩, ইয়াবা-ফেনসিডিল উদ্ধার

সাতক্ষীরা জেলাব্যাপী পুলিশের বিশেষ অভিযানে জামায়াত-শিবিরের ছয় নেতাকর্মীসহ ৬৩ জনকে ...

জলাতঙ্ক থেকে বাঁচার উপায়

জলাতঙ্ক থেকে বাঁচার উপায়

র‌্যাবিসকে বাংলায় জলাতঙ্ক বলা হয়। অর্থাৎ জলে যার আতঙ্ক। এই ...