ফুরিয়ে না যাওয়া মানুষের গল্প

প্রকাশ: ১০ আগস্ট ২০১৮     আপডেট: ১০ আগস্ট ২০১৮      

অনলাইন ডেস্ক

চাকুরি থেকে  রিটায়ার করার পর অনেকটা  অসহায় লাগে, একা লাগে। কারণ তেষট্টি বছরের বুড়োকে সময় দেবার মতো কাওকেই যেন পাওয়া যায়না। পৃথিবীর উপর অনেক বিরক্তি আসে তখন। দীর্ঘদিন দিন ধরে এই পথেই এগিয়ে যাচ্ছে পৃথিবী, আগামীও হয়তো এ পথেই চলবে। চাকুরি থেকে অবসরের পর একাকিত্ব অনুভব করে ঘুরে দাড়ানো কয়েকজন মানুষের গল্প নিয়েই মাসুম শাহরীয়ারের রচনায় আবু হায়াত মাহমুদ নির্মাণ করলেন নাটক ‌‌'আবার এলো যে সন্ধ্যা'।

 নাটকটির একটি দৃশ্যে তিনু করিম,সাফা কবির, মিশু সাব্বির সুজাত শিমুল,শহীদুল্লাহ সবুজ আহমেদ সুজন। 

নাটকটির গল্পে দেখা যাবে, অবসরের পর অতীত খুব মনে পড়ে রঞ্জনের। পূরানো আনেক বন্ধুদের সঙ্গে যোগাযোগ নেই তার। চারপাশের মানুষের ব্যাস্ততা দেখে রঞ্জন দীর্ঘশ্বাস ফেলে। অথচ এখন তার কোন ব্যস্ততা নেই। একজন মানুষ এভাবেই ফুরিয়ে যায়। অপ্রয়োজনীয় হয়ে পড়ে। তার আর কোন কাজ থাকে না। রঞ্জনের তখন তরুন বয়সের কথা মনে পড়ে। ইউরোপে পড়তে গিয়ে তাদের চারজনের বন্দুত্ব হয়েছিলো। তার মধ্যে রাশেদের মৃত্যুর খবর রঞ্জন জানে। কিন্তু লায়লা আর শাহাদাতের খবর জানেনা সে। 

নাটকের দৃ্শ্যে  আবুল হায়াত, দিলারা জামান,মামুনুর রশিদ ও শহিদুজ্জামান সেলিম 

কিন্তু কাকতালিয়ভাবে লায়লার সঙ্গে রঞ্জনের দেখা হয়।দুজন গল্প করে, বেলা শেষের গল্প, ফুরিয়ে যাবার গল্প। লায়লা তাদের পূরানা গানের দলটার কথা মনে করে। রাশেদ আর শাহাদাতের কথা মনে করে। রঞ্জন হঠাৎ কি ভেবে বলো, আমরা পূরানো গানের দলটা আবার শুরু করতে পারি। লায়লা অবাক হয় শুনে।  ‌টিল ডট' নামে তাদের পুরানো গানের দল ছিল। সেটা আবার শুরু করে ওরা দুইজনে মিলে।  ইউটিউবে এই বুড়ো-বুড়ির একটা গান হঠাৎ আলোচনায় চলে আসে। তারপর একর পর এক গান গায় ওরা শ্রাতাদের আগ্রহের কারনেই। বিভিন্ন অনুষ্ঠানে গান গাওয়ার জন্যে তাদের ডাক আসে। তখন তাদের ধারণা পাল্টে যায়, মানুষ আসলে কখনোই ফুরিয়ে যায় না।

একদিন একটি টিভি অনুষ্ঠানে  হাজির হন তারা দু’জন। সেখানেই যে গল্প এতোদিন কেউ জানতো না তা উঠে আসে। অনেক বছর আগে তাদের গানের দলটা কেন ভেঙে গিয়েছিলো তা জানান তারা। ফ্ল্যাশব্যাকে দেখানো হয় চল্লিশ বছর আগের সে অতীত। 

নতুন এ পুরোনো দুই প্রজন্মের তারকাদের নিয়ে নির্মিত হয়েছে টেলিফিল্মটি। এদের মধ্যে রয়েছেন  দিলারা জামান, ড. ইনামুল হক, আবুল হায়াত, মামুনুর রশিদ, শহিদুজ্জামান সেলিম এবং তাদের তরুণ বয়সের চরিত্রে অভিনয় করেছেন সাফা কবির, সুজাত শিমুল, মিশু সাব্বির, শহীদুল্লাহ সবুজ,তিনু করিম, আহমেদ সুজন। 

টেলিফিল্মটি ঈদুল আজহায় চ্যানেল আইতে প্রচার হবে বলে জানিয়েছেন নির্মাতা আবু হায়াত মাহমুদ। 

আরও পড়ুন

কর্মেই বেঁচে থাকবেন গোলাম সারওয়ার

কর্মেই বেঁচে থাকবেন গোলাম সারওয়ার

কর্মের মধ্যে বেঁচে থাকবেন বরেণ্য সাংবাদিক গোলাম সারওয়ার। জীবনের শেষ ...

কেরালায় আজও বৃষ্টির পূর্বাভাস: চলছে উদ্ধার অভিযান

কেরালায় আজও বৃষ্টির পূর্বাভাস: চলছে উদ্ধার অভিযান

গত একশ বছরের ইতিহাসে সবচেয়ে ভয়াবহ থমকে গেছে ভারতের দক্ষিণাঞ্চলীয় ...

শরণখোলায় বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু

শরণখোলায় বজ্রপাতে কৃষকের মৃত্যু

বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলায় বজ্রপাতে আমিনুল খান (৪০) নামে এক কৃষকের ...

প্রশান্ত মহাসাগরে ৮.২ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প

প্রশান্ত মহাসাগরে ৮.২ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প

ফিজির কাছে প্রশান্ত মহাসাগরে ৮ দশমিক ২ মাত্রার শক্তিশালী ভূমিকম্প ...

সেনা সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা

সেনা সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা

ঝিনাইদহে সাইফুল ইসলাম (৩২) নামে এক সেনা সদস্যকে কুপিয়ে হত্যা ...

সড়কে ধীরগতি ট্রেনেও বিলম্ব

সড়কে ধীরগতি ট্রেনেও বিলম্ব

ঈদ যত ঘনিয়ে আসছে, বাড়িফেরা মানুষের দুর্ভোগ ততই বাড়ছে। এবারের ...

নেপথ্যে ইউপিডিএফের ভাঙন

নেপথ্যে ইউপিডিএফের ভাঙন

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগ পর্যন্ত পাহাড়ে সংস্কারপন্থি জনসংহতির সঙ্গে ...

হাটভরা কোরবানির পশু, ক্রেতার অপেক্ষা

হাটভরা কোরবানির পশু, ক্রেতার অপেক্ষা

কোরবানি উপলক্ষে আনুষ্ঠানিকভাবে রাজধানীর অস্থায়ী পশুহাটগুলো ভরে উঠতে শুরু করেছে। ...