ফুটবল

ক্রোয়েশিয়াকে রেকর্ড হারের লজ্জা দিল স্পেন

প্রকাশ: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮     আপডেট: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

অনলাইন ডেস্ক

ছবি: বিবিসি

রাশিয়া বিশ্বকাপে ক্রোয়েশিয়ার উত্থান এখনও অনেকের কাছে বিস্ময়ের। ২০১৮ বিশ্বকাপের রানার্সআপ তারা। স্পেনের বিপক্ষে ম্যাচ চলার সময় কথাটা কারো মনে পড়লে ভাবতে পারেন ভুল কিছু ভাবছি না তো। ভুল কিছু অবশ্য না। বিশ্বকাপ ফাইনালিস্ট ক্রোয়েশিয়াকে সাবেক চ্যাম্পিয়ন স্পেন সবচেয়ে বড় হারের স্বাদ দিয়েছে। উয়েফার নেশনস লিগে হারিয়েছে ৬-০ ব্যবধানে। 

রাশিয়া বিশ্বকাপের ফাইনালে হারা কিংবা ক্রোয়েশিয়াকে হারানোটা ফ্রান্সের জন্য সহজ ছিল না। ব্যবধান বড় হলেও বিশ্বকাপ ফাইনালের চাপ ছিল। কিন্তু স্পেন যেন নির্ভার থেকে ক্রোয়েশিয়াকে ৬-০ গোলে উড়িয়ে দিল। কোন প্রতিরোধই গড়তে পারেনি তারা। অ্যাসেনসিও, রদ্রিগো, রামোসদের আটকানোর কোন উপায় বের করতে পারেননি ক্রোয়েশিয়া কোচ গ্লাটকো ডালিচ। 

বিশ্বকাপ ফাইনালিস্টদের এর আগে সবেচেয় বড় হার ছিল নয় বছর আগে। ২০০৯ সালে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে ৫-১ ব্যবধানে হারে তারা। এবার বিশ্বকাপের সুখ স্মৃতি নিয়ে খেলতে আসে তারা। ম্যাচটা শেষ হলো বাজে স্মৃতি দিয়ে। স্পেনের জার্সিতে এ ম্যাচে দুর্দান্ত ফর্মে ছিলেন রিয়াল তারকা মার্কো অ্যাসেনসিও। দারুণ এক গোল করেছেন তিনি। গোলে শট নিয়েছেন তিনটি। তিন গোলে দিয়েছেন সহায়তা। এছাড়া ৫৯টি সফল পাস এসেছে তার পা থেকে। 

স্পেন কোচ লুইস এনরিকে দলের দায়িত্ব নিয়ে বুঝিয়ে দিলেন সব গুছিয়ে নিতে প্রস্তুত তিনি। প্রথমে ম্যাচে ইংল্যান্ডকে ২-১ গোলে হারানোর পর দ্বিতীয় ম্যাচে আরও উড়ন্ত তিনি ও তার দল। ম্যাচের শুরুর ২০ মিনিট এবং শেষ ২০ মিনিট অবশ্য স্পেনকে আটকে রাখতে পেরেছিল ক্রোয়েশিয়া। কিন্তু মাঝের ৫০ মিনিটে ছয় গোল হজম করেছে তারা। ২৪ মিনিটের মাথায় প্রথম গোল করেন স্পেনের সাউল। এরপর নিজের প্রথম এবং দলের দ্বিতীয় গোলটি করেন মার্কো অ্যাসেনসিও। তিনি ৩৩ মিনিটে ব্যবধান বাড়ান। 

এর দুই মিনিট পর আবার অ্যাসেনসিও। এবার তিনি গোল করেন নি। তবে ক্রোয়েশিয়া গোলরক্ষক লভরেন কালিনিচকে নিজেদের জালে বড় জড়াতে বাধ্য করেন। তার জোরোলো শর্ট ক্রসবারে লেগে কালিনিচের পায়ে লেগে গোলে ঢুকে যায়। এরপর রদ্রিগোকে দিয়ে দলের চতুর্থ গোল করান অ্যাসেনসিও। তার পরের গোলটি স্পেন ডিফেন্ডার সের্গিও রামোসের। 

এখানেই যেন থামার কথা ছিল না স্পেনের। ক্রোয়েশিয়ার মিডফিল্ড থেকে ডিফেন্স ততক্ষণে ওলনপালট করে ফেলেছে তারা। ম্যাচের ৭০ মিনিটে দলের ব্যবধান আরও বড় করলেন ইসকো। ব্যবধান ৬-০ গোলে নিয়ে গেলেন তিনি। তার গোলের কারিগরও অ্যাসেনসিও। বাকি সময়টুকু অবশ্য আর কোন গোল হজম করতে হয়নি ক্রোয়াটদের। কিন্তু ততক্ষণে মডরিচদের নিজেদের ফুটবল ইতিহাসের সবচেয়ে বড় পরাজয়ের স্বাদটা দিয়ে দিয়েছেন রামোস-অ্যাসেনসিওরা।

আরও পড়ুন

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নির্বাচনে যেতে চায় বিএনএ

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নির্বাচনে যেতে চায় বিএনএ

বিএনপির সাবেক মন্ত্রী ও তৃণমূল বিএনপির চেয়ারম্যান ব্যারিস্টার নাজমুল হুদার ...

কালাইয়ে বেড়েছে কিডনি বিক্রি

কালাইয়ে বেড়েছে কিডনি বিক্রি

জয়পুরহাটের কালাই উপজেলায় অভাবী মানুষের কিডনি বেচাকেনা আবারও বেড়েছে। অভাবের ...

চট্টগ্রামে মহড়া, অস্ত্রধারী ছাত্রলীগ নেতা গ্রেফতার

চট্টগ্রামে মহড়া, অস্ত্রধারী ছাত্রলীগ নেতা গ্রেফতার

চট্টগ্রাম কলেজে ছাত্রলীগের কমিটি ঘোষণাকে কেন্দ্র করে গত বুধবার দু'পক্ষের ...

জেএমবিকে অর্থ জোগাচ্ছে জঙ্গি শায়খের পরিবার

জেএমবিকে অর্থ জোগাচ্ছে জঙ্গি শায়খের পরিবার

নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন জামা'আতুল মুজাহিদীন অব বাংলাদেশকে (জেএমবি) চাঙ্গা ...

রাত ১১টার পর ফেসবুক বন্ধ করে দেয়া উচিত: রওশন

রাত ১১টার পর ফেসবুক বন্ধ করে দেয়া উচিত: রওশন

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক রাত ১১টার পর বন্ধ করে দেয়া ...

আফগানদের কাছে বড় হার বাংলাদেশের

আফগানদের কাছে বড় হার বাংলাদেশের

আফগানিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচটা বাংলাদেশ প্রস্তুতি হিসেবে নিচ্ছে। এমন একটা কথা ...

বিশ্বে প্রতি ৫ সেকেন্ডে ১ শিশুর মৃত্যু: জাতিসংঘ

বিশ্বে প্রতি ৫ সেকেন্ডে ১ শিশুর মৃত্যু: জাতিসংঘ

ইউনিসেফ, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও), জাতিসংঘের জনসংখ্যা বিভাগ ও বিশ্ব ...

বাবাকে বাঁচাতে গিয়ে ৬ বছরের শিশুর মৃত্যু

বাবাকে বাঁচাতে গিয়ে ৬ বছরের শিশুর মৃত্যু

লিজা আক্তার। বয়স মাত্র ৬ বছর। চোখের সামনে বাবা ট্রেনে ...