তালেবানের গুঁড়িয়ে দেওয়া বৌদ্ধমূর্তি এখন পাকিস্তানে শান্তির প্রতীক

প্রকাশ: ১২ জুলাই ২০১৮      

অনলাইন ডেস্ক

দীর্ঘদিন পর ২০১২ সালে মূর্তিটি পুনরুদ্ধারের কাজে হাত দেয় ইতালি সরকার। ছবি: আজকাল

সময়টা ২০০৭ সাল। আফগানিস্তানে তখন দাপিয়ে বেড়াচ্ছে তালেবান জঙ্গিরা। তার আঁচ এসে পড়েছিল প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানেও।

উত্তর পাকিস্তানের খাইবার পাখতুনখোয়া প্রদেশের সোয়াট উপত্যকায় একটি গ্রানাইট পাহাড়ের গায়ে খোদাই করা একটি গৌতম বৌদ্ধের স্থাপত্য ছিল। ওই স্থাপত্যটিকে বিস্ফোরণে গুঁড়িয়ে দিয়েছিল তালেবান জঙ্গিরা। তবে ঘটনার ১১ বছর পর ইতালির একদল পুরাতত্ত্বাবিদের সৌজন্যে স্থাপত্যটি পুনরুদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

সোয়াট উপত্যকার মঙ্গলাবর গ্রামের পাহাড়ের গায়ে খোদাই করা পদ্মাসনে বসে থাকা অপূর্ব বৌদ্ধ মূর্তিটি তৈরি হয়েছিল সপ্তম শতাব্দীতে। কিন্তু মাত্র ৯২ বছর আগে অর্থাৎ ১৯২৬ সালে এই বৌদ্ধ মূর্তির সন্ধান পান পুরাতত্ত্ববিদ স্যার ওরেল স্টিন৷ তারপর থেকেই মূর্তিটি নিয়ে গবেষণা করা হয়েছে।

কিন্তু প্রচলিত ধর্মীয় শাসনে কোনও মূর্তি থাকা বাঞ্ছনীয় নয় দাবি করে স্থাপত্যটি নষ্ট করেছিল তালেবান জঙ্গিরা৷ মূর্তিটি ধ্বংস করতে প্রায় ২০ ফুট ওপরে উঠে বিস্ফোরক লাগিয়েছিল তালেবান জঙ্গিরা। কিন্তু সবগুলো বিস্ফোরণ সফল না হওয়ায় মূর্তিটি আংশিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল।

দীর্ঘদিন পর ২০১২ সালে মূর্তিটি পুনরুদ্ধারের কাজে হাত দেয় ইতালি সরকার। পুরনো অংশ বাঁচিয়ে মূর্তিটি নতুন করে ফুটিয়ে তুলতে কাজ শুরু হয়৷ এরইমধ্যে শেষ হয়েছে সেই কাজ শেষ। গবেষণাগারে বিভিন্ন ছবি এবং থ্রি–ডি প্রযুক্তির সাহায্যে মূর্তিটিকে আগের রূপে ফিরিয়ে আনতে সফল হয়েছেন পুরাতত্ত্ববিজ্ঞানীরা। আপাতত এটি এখন পাকিস্তানে ভালবাসা, শান্তি, ভ্রাতৃত্বের প্রতীক। সূত্র: আজকাল 

আরও পড়ুন

কোটি টাকায় কেনা দীর্ঘশ্বাস

কোটি টাকায় কেনা দীর্ঘশ্বাস

ধানমণ্ডিতে সুপরিসর একটি ফ্ল্যাট কেনার উদ্যোগ নিয়েছিলেন ব্যবসায়ী আহাদুল ইসলাম। ...

বিএনপির জনসভায় আমন্ত্রণ পাচ্ছে না জামায়াত

বিএনপির জনসভায় আমন্ত্রণ পাচ্ছে না জামায়াত

বিএনপির বৃহস্পতিবারের সম্ভাব্য জনসভায় ২০ দলের শরিক জামায়াতে ইসলামীকে কৌশলগত ...

প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইটের ক্রুর মাদক সেবন

প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইটের ক্রুর মাদক সেবন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফ্লাইটের এক কেবিন ক্রুর মাদক সেবন ও ...

দুদককে পঙ্গু করতে চায় একটি মহল

দুদককে পঙ্গু করতে চায় একটি মহল

দুর্নীতি দমন কমিশনকে (দুদক) একটি অথর্ব প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে অপতৎপরতা ...

নিবর্তনমূলক ধারা বাতিল দাবি সাংবাদিক নেতাদের

নিবর্তনমূলক ধারা বাতিল দাবি সাংবাদিক নেতাদের

স্বাধীন সাংবাদিকতায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে পারে- এমন সব ধারা-উপধারা বহাল ...

ইয়াবা কারবারিরা তবু বেপরোয়া

ইয়াবা কারবারিরা তবু বেপরোয়া

মিয়ানমার থেকে নানা কৌশলে ভিন্ন ভিন্ন রুট ব্যবহার করে সারা ...

বিপিএলের কারণে রশিদকে চেনা ইমরুলের

বিপিএলের কারণে রশিদকে চেনা ইমরুলের

হুট করেই ইমরুল কায়েস এশিয়া কাপের দলে ডাক পান। এরপর ...

মৃত ব্যক্তিকে জীবিত দেখিয়ে ব্যাংক ঋণ!

মৃত ব্যক্তিকে জীবিত দেখিয়ে ব্যাংক ঋণ!

বরিশালে মৃত ব্যক্তিকে জীবিত দেখিয়ে ব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়ার অভিযোগ ...