কলকাতায় সেতু ভেঙে নিহত ৫

প্রকাশ: ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮     আপডেট: ০৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

কলকাতা প্রতিনিধি

দক্ষিণ কলকাতার তারাতলা-ডায়মন্ড হারবার সড়কের মাঝেরহাট সেতুর একাংশ মঙ্গলবার স্থানীয় সময় বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে ভেঙে পড়েছে। এ সময় সেতুতে অনেক গাড়ি চলাচল করছিল। 

এ ঘটনায় অনেক মানুষের হতাহতের আশঙ্কা করা হচ্ছে। রাজ্য সরকার তাৎক্ষণিকভাবে পাঁচজনের মৃত্যুর কথা জানিয়েছে। গুরুতর আহত হয়েছেন নয়জন। তবে কর্তৃপক্ষ আশঙ্কা করছে, অনেকে বিচ্ছিন্নভাবে কিংবা গাড়ির মধ্যে সেতুর ভাঙা অংশের নিচে আটকা রয়েছেন। 

দুর্ঘটনার পরই সেখানে পৌঁছেন রেলের কর্মকর্তারা। তাদের তৎপরতায় শুরু হয় উদ্ধার কাজ। 

পশ্চিমবঙ্গের সরকারি সূত্র জানায়, মাঝেরহাট সেতুটির একাংশ বিকেলে ভেঙে পড়ার সময় সেতুর ওপর ছাড়াও তার নিচ দিয়ে গাড়ি চলাচল করছিল। তাই এ দুর্ঘটনায় বড় ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে। এ সেতুর নিচেই রয়েছে বজবজ শাখার ট্রেন লাইন। ঘটনার পরেই শিয়ালদহ ডিভিশনের ওই লাইনে সব ট্রেন চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। অন্যদিকে সেতুর পাশেই রয়েছে মাঝেরহাট স্টেশন। 

উদ্ধারকর্মী ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে আরও জানা যায়, দুর্ঘটনার সময় সেতুর নিচে বহু মানুষ অবস্থান করছিল। অসংখ্য শ্রমিকও ছিলেন। শ্রমিকদের অনেকেই বাস করেন সেতুর নিচে। একটি খালও রয়েছে সেখানে।

দুর্ঘটনার পর পুলিশ, সেনাবাহিনী, সিআইএসএফ, দমকল বাহিনী, বিপর্যয় মোকাবেলা কমিটির সদস্যরা উদ্ধার কাজে অংশ নেন। দুর্ঘটনার খবর শুনে সেখানে যান পশ্চিমবঙ্গের পৌরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম, কলকাতার পুলিশ কমিশনার রাজীব কুমারসহ দমকলমন্ত্রী।

পুলিশ বলেছে, দুর্ঘটনার পর কিছু রক্তাক্ত দেহ এবং ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা কিছু গাড়ি তারা দেখতে পেয়েছে। এরই মধ্যে আহত ১১ জনকে কলকাতার পিজি হাসপাতাল ও সিএমআরআই হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। আর বিধ্বস্ত সেতুর ধ্বংসাবশেষ না সরানো পর্যন্ত কত মানুষ তার নিচে চাপা পড়ে আছে, তা বলা যাচ্ছে না।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী রবীন্দ্রনাথ প্রামাণিক বলেন, চোখের সামনেই সেতুটাকে ভেঙে পড়তে দেখলাম। প্রতিদিনের মতোই যাচ্ছিলাম নিউ আলিপুরে। আমি মহেশতলার বাসিন্দা। আকরা থেকে ট্রেনে করে যাই নিউ আলিপুর। এই দিন মাঝেরহাট স্টেশনে দাঁড়ানো ছিল আপ বজবজ শিয়ালদহ লোকাল ট্রেন। হঠাৎ শুনতে পেলাম বিকট একটা শব্দ। ট্রেনের দরজা থেকে বাইরে দেখি ভেঙে পড়েছে নীল-সাদা রঙ করা সেতুটি।

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, একটা দুর্ঘটনা ঘটে গেছে। দুর্ঘটনা তো কেউই চায় না। কেন ঘটল, কীভাবে ঘটল, সেসব নিয়ে পরে আলোচনা হবে। নিশ্চয়ই সব খতিয়ে দেখা হবে। কিন্তু তার আগে জরুরি সেখানে আটকে পড়া মানুষকে উদ্ধার করা। তাদের নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়ে যাওয়া এবং চিকিৎসার ব্যবস্থা করা। এমন জরুরি পরিস্থিতিতে সবাইকে সব রকম ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলেন তিনি। 

আরও পড়ুন

শেখর-রোহিতের সেঞ্চুরিতে উড়ে গেল পাকিস্তান

শেখর-রোহিতের সেঞ্চুরিতে উড়ে গেল পাকিস্তান

দুবাইয়ের খবর অনুযায়ী, ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের টিকিট বিক্রি হয়নি ভালো। আয়ের ...

ফেনসিডিল আত্মসাতের ঘটনায় দুই পুলিশ কর্মকর্তা বরখাস্ত

ফেনসিডিল আত্মসাতের ঘটনায় দুই পুলিশ কর্মকর্তা বরখাস্ত

মাদকবিরোধী অভিযানে উদ্ধার করা ফেনসিডিল আত্মসাতের অভিযোগে শিবগঞ্জ থানার দুই ...

৭ থেকে ২৮ অক্টোবর ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ

৭ থেকে ২৮ অক্টোবর ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ

আগামী ৭ অক্টোবর থেকে প্রধান প্রজনন মৌসুমের ২২ দিন ইলিশ ...

অনলাইনের আওতায় ৮৭ শতাংশ ব্যাংক শাখা

অনলাইনের আওতায় ৮৭ শতাংশ ব্যাংক শাখা

গ্রাহকদের চাহিদা বিবেচনায় দ্রুত প্রসার হচ্ছে অনলাইন ব্যাংকিং সেবার। বেসরকারি ...

নির্বাচনের কারণে অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্ত হবে না: অর্থমন্ত্রী

নির্বাচনের কারণে অর্থনীতি ক্ষতিগ্রস্ত হবে না: অর্থমন্ত্রী

আসন্ন জাতীয় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে রাজনৈতিক অঙ্গনে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি সৃষ্টির ...

উজিরপুরে সাংসদের পিএসের বিরুদ্ধে মামলা

উজিরপুরে সাংসদের পিএসের বিরুদ্ধে মামলা

বরিশালের উজিরপুরের জল্লা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বিশ্বজিৎ হালদার নান্টু হত্যায় ...

রাজশাহী শহর রক্ষা বাঁধে ধস, ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা

রাজশাহী শহর রক্ষা বাঁধে ধস, ঝুঁকিপূর্ণ ঘোষণা

রাজশাহী নগরীর শ্রীরামপুর পুলিশ লাইনের সামনে পদ্মা নদীতে শহর রক্ষা ...

ইন্টারপোলের মাধ্যমে ফেরানো হলো মোনালিসার অভিযুক্ত খুনিকে

ইন্টারপোলের মাধ্যমে ফেরানো হলো মোনালিসার অভিযুক্ত খুনিকে

নারায়ণগঞ্জে ১২ বছর বয়সী স্কুলছাত্রী মোনালিসাকে ধর্ষণের পর হত্যা করে ...