রাজনীতি

আসছে ভোট: ঢাকা-১৫

বিএনপি নেতাকর্মীরা চান স্থানীয় প্রার্থী

প্রকাশ: ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮     আপডেট: ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮       প্রিন্ট সংস্করণ     

কামরুল হাসান

ঢাকা-১৫ (মিরপুর-কাফরুল) আসনে আগামী নির্বাচনে স্থানীয় কোনো নেতা মনোনয়ন পাবেন, নাকি এলাকার বাইরের কাউকে দলীয় প্রার্থী করা হবে, তা নিয়ে অনিশ্চয়তা রয়েছে বিএনপিতে। ২০০৮ সালের নির্বাচনে হামিদুল্লাহ খান বিএনপির মনোনয়ন পান। তার মৃত্যুর পর স্থানীয়ভাবে অভিজ্ঞ কোনো প্রার্থী না থাকায় কেন্দ্র থেকে বাইরের কাউকে এ আসনে আগামীবার মনোনয়ন দেওয়া হতে পারে বলে গুঞ্জন রয়েছে। তবে বিএনপির নেতাকর্মীরা চাইছেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে স্থানীয় কাউকে দলীয় প্রার্থী করা হোক।

বিএনপির সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে ব্যাপকভাবে আগাম নির্বাচনী কার্যক্রম চালাচ্ছেন যুবদলের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক মামুন হাসান। মনোনয়নপ্রত্যাশী হিসেবে তিনি ছাড়া বিএনপির আর কারও তৎপরতা এখনও দৃশ্যমান নয়,যদিও মনোনয়নপ্রত্যাশী হিসেবে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলালের নাম শোনা যাচ্ছে। ২০ দলীয় জোটের অন্যতম শরিক লেবার পার্টির  (একাংশ) চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরানও এ আসনে ধানের শীষের প্রার্থী হতে চান।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মিরপুর থানার ১৩ এবং কাফরুল থানার ৪, ১৪ ও ১৬ নম্বর ওয়ার্ড নিয়ে ঢাকা-১৫ আসন। ১৯৯১ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত এ এলাকা ঢাকা-১১ আসনে ছিল। নবম জাতীয় নির্বাচনের আগে সীমানা পুনর্বিন্যাস করে ঢাকা-১১ ভেঙে ঢাকা-১৪, ঢাকা-১৫ ও ঢাকা-১৬ নামে তিনটি আসন গঠন করা হয়। ওই নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থী উইং কমান্ডার (অব.) হামিদুল্লাহ খান আওয়ামী লীগের কামাল আহমেদ মজুমদারের কাছে পরাজিত হন। ২০১৪ সালে বিএনপি নির্বাচনে না আসায় দীর্ঘ প্রায় ১০ বছর ধরে এ আসনটি তাদের হাতছাড়া। হামলা-মামলার ভয়ে নেতাকর্মীরাও মাঠে নেই। সব মিলিয়ে বিএনপির ঘাঁটি হিসেবে পরিচিত এ আসনে বর্তমানে দলটির সাংগঠনিক অবস্থাও অত্যন্ত নাজুক। এমন পরিস্থিতিতে আগামী নির্বাচনে ঘুরে দাঁড়ানোর প্রত্যয় নিয়ে সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে প্রচার চালাচ্ছেন যুবদল নেতা মামুন। মিরপুরের মনিপুর এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা হিসেবে পারিবারিকভাবে এই এলাকায় তার বিশেষ গ্রহণযোগ্যতা রয়েছে। কর্মীবান্ধব নেতা হিসেবেও পরিচিতি পেয়েছেন তিনি। সাংগঠনিকভাবে দক্ষ এই নেতা আওয়ামী লীগ সরকার আমলে ৩২১টি মামলার আসামি হয়েছেন এবং নির্যাতনেরও শিকার হয়েছেন। তাই নেতাকর্মীদের সহানুভূতিও রয়েছে তার প্রতি। গত ১৩ জুলাই আদাবর থেকে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

মামুন সমর্থকরা জানান, ২০১৩ সালে টানা তিন মাসের অবরোধ আন্দোলন চলাকালে মামুনের বাসায় হামলার ঘটনা ঘটে। তার প্রতিবন্ধী বড় ভাইকেও গ্রেফতার করা হয়। এ ছাড়া তার ভাবি, ভাতিজি, বোনসহ একাধিক স্বজনকে আটক করে থানায় নেওয়া হয়। এসব ঘটনার পরপরই মামুনের ভাই ও মামা মারা যান। এ জন্য তার প্রতি এলাকার মানুষেরও সহানুভূতি রয়েছে।

বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলালকে আগামী নির্বাচনে এ আসনে প্রার্থী করা হতে পারে। আলাল ২০০৮ সালে ঢাকা-১৩ (মোহাম্মদপুর-আদাবর-শেরেবাংলানগর আংশিক) আসনে বিএনপি প্রার্থী হয়েছিলেন। আগামীবার ওই আসনে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আবদুস সালাম প্রার্থী হওয়ার তৎপরতা চালাচ্ছেন। তাই আলালকে ঢাকা-১৫ আসনে আনা হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। দলের হাইকমান্ড থেকে আলালকে এ আসনে কাজ করতে বলা হয়েছে বলে জানান তার ঘনিষ্ঠরা। অবশ্য আলালকে আগামীবার তার সাবেক আসন বরিশাল-২ (বানারীপাড়া-উজিরপুর) থেকে প্রার্থী করার চিন্তাও রয়েছে। ১৯৯৬ ও ২০০১ সালের নির্বাচনে ওই আসন থেকেই এমপি হয়েছিলেন আলাল।

ঢাকা-১৫ আসনে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, আলাল এখনও নির্বাচনী তৎপরতা শুরু করেননি। তার পরও তার প্রার্থী হওয়ার গুঞ্জনে নেতাকর্মীদের মধ্যে কিছুটা প্রতিক্রিয়া দেখা যাচ্ছে। বিগত দিনে তার বিরুদ্ধে প্রায় আড়াই শত মামলা হয়েছে। কারাগারে যেতে হয়েছে একাধিকবার। এ কারণে দলটির হাইকমান্ডের সুদৃষ্টিতে রয়েছেন তিনি। কেন্দ্রীয় যুবদলের সাবেক এই সভাপতির সুবক্তা হিসেবে সারাদেশের নেতাকর্মীদের মধ্যেও জনপ্রিয়তা রয়েছে। দলের নীতিনির্ধারণী মহলেও রয়েছে তার গ্রহণযোগ্যতা। এসব মিলিয়ে আগামী নির্বাচনে তার প্রার্থিতা নিয়েও হিসাব কষছেন এলাকার নেতাকর্মীরা।

অন্যদিকে, ২০ দলীয় জোটের শরিক লেবার পার্টির একাংশের চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান এ আসন থেকে নির্বাচন করতে চাইছেন। এলাকায় পোস্টারিংয়ের মাধ্যমে নিজের প্রার্থিতার কথা জানান দিয়েছেন তিনি। কিন্তু এলাকায় তার নিজস্ব কোনো অবস্থান না থাকায় এবং নির্বাচন কমিশনে তার দল নিবন্ধিত না হওয়ায় ও নিজের দল দ্বিখণ্ডিত হওয়ায় ইরানের এমন দাবিকে গুরুত্ব দিতে চাইছেন না জোটের শরিক নেতারাও। ইরান অবশ্য তার নিজ জেলা পিরোজপুরের একটি আসন থেকেও মনোনয়ন চাইবেন বলে জানা গেছে।

সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল সমকালকে বলেন, আগামী নির্বাচনে কোন আসন থেকে দলের মনোনয়ন চাইবেন, সে বিষয়ে এখন পর্যন্ত নির্দিষ্ট কোনো পরিকল্পনা নেই তার। তবে এই এলাকার নেতাকর্মীরা তার সঙ্গে যোগাযোগ করছেন। দলের সিনিয়র নেতারাও পরামর্শ দিয়েছেন। সবকিছু নির্ভর করছে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির ওপর। তিনিই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত দেবেন। এর আগে নির্বাচন ও প্রার্থিতা নিয়ে কথা বলা রাজনৈতিক ধৃষ্টতা। তার মুক্তির ওপর নির্ভর করছে বিএনপির নির্বাচনে অংশগ্রহণ করার বিষয়টি।

গ্রেফতার হওয়ার আগে এই প্রতিবেদককে মামুন হাসান বলেন, ঢাকা-১৫ আসনে বিএনপির সাংগঠনিক অবস্থা অনেক ভালো। স্থানীয় নেতা হিসেবে নির্বাচনকেন্দ্রিক জনসংযোগ ও প্রচারণা চালাচ্ছেন তারা। স্থানীয়ভাবে এই এলাকায় যিনি অধিক জনপ্রিয়, তাকেই দল মনোনয়ন দেবে বলে তিনি মনে করেন। বহিরাগত কাউকে মনোনয়ন দিলে স্থানীয়রা তার পক্ষে থাকবেন না। এর পরও দল যাকেই মনোনয়ন দেবে, তার পক্ষেই কাজ করবেন তিনি।

লেবার পার্টির ইরান বলেন, ঢাকা-১৫ আসনের স্থানীয় বাসিন্দা না হলেও ২০ দলীয় জোটে তার অবদানের কারণেই তিনি এখানে জোটের মনোনয়ন পাওয়ার অন্যতম দাবিদার। বিএনপি জোটের সঙ্গে গত ১২ বছর ধরে আছেন তিনি ও তার দল। এ কারণে একাধিকবার সরকারি দলের হামলার শিকার ও গ্রেফতার হয়েছেন তিনি। এটি বিবেচনায় রেখে জোট থেকে তাকে এ আসনে প্রার্থী করা হবে বলে আশাবাদী তিনি।

আরও পড়ুন

রাজাকারের সন্তানরাও সংসদে যেতে পারবে না: শাহরিয়ার কবির

রাজাকারের সন্তানরাও সংসদে যেতে পারবে না: শাহরিয়ার কবির

একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি, লেখক ও সাংবাদিক শাহরিয়ার ...

সংবাদ সম্মেলনে আসছেন প্রধানমন্ত্রী

সংবাদ সম্মেলনে আসছেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সোমবার সংবাদ সম্মেলনে আসছেন। বিকাল ৪টায় তার সরকারি ...

টাইম স্কেল ও সিলেকশন গ্রেড দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি মাধ্যমিক শিক্ষকদের

টাইম স্কেল ও সিলেকশন গ্রেড দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি মাধ্যমিক শিক্ষকদের

টাইম স্কেল ও সিলেকশন গ্রেড দ্রুত বাস্তবায়নের দাবি জানিয়েছেন সরকারি ...

মাগুরায় অনির্দিষ্টকালের বাস ধর্মঘটের ডাক

মাগুরায় অনির্দিষ্টকালের বাস ধর্মঘটের ডাক

ইজিবাইক ও নসিমন চালকেদের হাতে একাধিক বাস শ্রমিক জখম হওয়ার ...

সংসদের চলতি অধিবেশন চলবে ২৫ অক্টোবর পর্যন্ত

সংসদের চলতি অধিবেশন চলবে ২৫ অক্টোবর পর্যন্ত

বর্তমান দশম জাতীয় সংসদের ২৩তম ও শেষ অধিবেশনরোববার শুরু হয়েছে, ...

শাসকগোষ্ঠী জনমতকে তোয়াক্কা করছে না: মির্জা ফখরুল

শাসকগোষ্ঠী জনমতকে তোয়াক্কা করছে না: মির্জা ফখরুল

আসন্ন নির্বাচনকে ভোটারশুন্য করার জন্য সরকার নানা ফন্দি করছে বলে ...

চোখ হারানো সেই ১৭ জনকে ১০ লাখ করে টাকা দেওয়ার নির্দেশ

চোখ হারানো সেই ১৭ জনকে ১০ লাখ করে টাকা দেওয়ার নির্দেশ

চুয়াডাঙ্গা শহরের চক্ষু শিবিরে চিকিৎসা নিতে এসে অপারশেনের পর চোখ ...

মন্ত্রিসভার আকার ছোট হচ্ছে: ওবায়দুল কাদের

মন্ত্রিসভার আকার ছোট হচ্ছে: ওবায়দুল কাদের

জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে অল্প কয়েক দিনের মধ্যেই মন্ত্রিসভার আকার ...