গলে শুরু গলেই সারা

প্রকাশ: ০৯ নভেম্বর ২০১৮     আপডেট: ০৯ নভেম্বর ২০১৮      

অনলাইন ডেস্ক

ছবি: ফাইল

গল টেস্ট শেষ হয়েছে। সারা হয়েছে শ্রীলংকার দুই দশকের এক ক্রিকেট বৃক্ষের। ১৯৯৯ সালে গলে শ্রীলংকার টেস্ট ক্যাপ পরেছিলেন রঙ্গনা হেরাথ। গলেই খুললেন সেই ক্যাপ। মধ্যে পেরিয়ে গেছে ১৯টা বছর। প্রায় দুই বছরের ক্যারিয়ারে ৪৩৩টি টেস্ট উইকেট পেয়েছেন তিনি। মুরালিধরন-শেন ওয়ার্নদের থেকে বেশ কম বটে। কিন্তু হেরাথ নামের বৃক্ষের ক্যারিয়ারের বড় সময় যে কেটে গেছে মুরালিধরলের ছায়ায়। এরপর বিপদের দিনে ধরেন লংকানদের স্পিন আক্রমণের হাল। হয়তো হেরাথের আফসোস হাল-জোয়ালটা তেমন কারো কাঁধে দিয়ে যেতে পারলেন না তিনি।

তবে ৪০ বছর বয়সী এই কিংবদন্তি স্পিনার ক্রিকেটারদের প্রেরণার নাম হয়ে থাকবেন। তার তো একদিন থামতে হতো। আর তাই থেমে গেলেন। ক্যারিয়ারের ১০০ টেস্ট খেলার আগেই বিদায় বলে দিলেন তিনি। যে গ্যালারিতে ক্রিকেট উচ্ছ্বাস দেখতে দেখতে মাঠে নেমেছিলেন। সেই গ্যালারিতে ৯৩ টেস্টের পর নিলেন অবরস। এমন খেলোয়াড়কে যোগ্য সম্মান দিয়েছেন টেস্ট ক্রিকেটকে আলাদা সম্মান দেওয়া দল ইংল্যান্ড। ব্যাটিংয়ে নামার সময় সারিবদ্ধ হয়ে দাঁড়ায় রুটের দল। করতালিতে জানান অভিবাদন তথা গার্ড অব অনার।

শেষটায় ব্যাটে নামার সময় হেরাথকে গার্ড অব অনার দেয় ইংল্যান্ড ক্রিকেটাররা; ছবি: টুইটার

ইংল্যান্ডের বিপক্ষে গল টেস্টে শ্রীলংকার হার নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিল আগেই। হয়তো প্রথম সারীর ব্যাটসম্যানরা ফিরে যাবার পর সমর্থকরা অন্য ব্যাটসম্যানদের বিদায়ের অপেক্ষা করছিলেন। কারণ শেষটায় যে নামবেন হেরাথ। তিনি মাঠে নামতেই জেগে ওঠে লংকান সমর্থকরা। জেগে ওঠে গল স্টেডিয়াম। সমর্থকদের ভালোবাসার চিৎকার তখন গ্যালারিতে। ক্রিকেটার হিসেবে হেরাথের শেষটা ক্যামেরায় জীবন্ত করে রাখছে যে যার মতো। মাঠে ঢুকে তিনি পেয়েছেন গার্ড অব অনার। এরপর তার আউট হওয়ার মধ্যে দিয়ে অলআউট হয়ে যায় শ্রীলংকা। শেষটায় হার নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় হেরাথের।

শেষটায় অবশ্য হেরাথ বল হাতে খুব ভালো করতে পারেননি। লংকান স্পিন স্বর্গে তিনি দুই ইনিংসে নিতে পেরেছেন মোটে ৩ উইকেট। অন্য দিকে ব্যাট হাতে দারুণ ব্যর্থ লংকান ব্যাটসম্যানরা। দুই ইনিংসে কেবল অর্ধ-শতক পেয়েছেন অ্যাঞ্জেল ম্যাথুস। দুই ইনিংসে ৫২ ও ৫৩ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। অন্য ব্যাটসম্যানরা ছিলেন আসা-যাওয়ার মিছিলে। আর তাই ২১১ রানের বড় জয় পেয়েছে ইংল্যান্ড।

নিজের শেষ ম্যাচ খেলা হেরাথ ম্যাচ শেষে বলেন, 'এটা সত্যি খুব আবেগঘন মুহূর্ত। কিন্তু আমার অন্য একটা জীবন শুরু করা দরকার। ২০১১ সাল থেকে আমার স্ত্রী, সন্তান এবং পরিবারের অন্য সদস্যদের অবদান ছিল অসাধারণ। আমি সমর্থকদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি। তারা ছাড়া আমি এখানটায় আসতে পারতাম না।' পরিবারের সঙ্গে হেঁটে এগিয়ে যান হেরাথ। তার নতুন জীবনের দিকে। প্রথম বাঁ-হাতি স্পিনার হিসেবে টেস্টে ৪০০ উইকেট পাওয়ায় তাকে দেওয়া হয় বিশেষ এক স্মারক 'কয়েন'।

আরও পড়ুন

এক আসনেই আ'লীগের ৫২ মনোনয়নপ্রত্যাশী

এক আসনেই আ'লীগের ৫২ মনোনয়নপ্রত্যাশী

আসন্ন সংসদ নির্বাচনে লড়াইয়ের জন্য এক আসনেই আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশীর ...

নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে যাত্রীবাহী বাস মার্কেটে, আহত ২০

নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে যাত্রীবাহী বাস মার্কেটে, আহত ২০

সীতাকুন্ডের ভাটিয়ারী পোর্টলিংকে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে হানিফ পরিবহনের যাত্রীবাহী বাস রাস্তার ...

ছাড়পত্র পাওয়া রোহিঙ্গারা ক্যাম্প ছেড়ে পালাচ্ছে

ছাড়পত্র পাওয়া রোহিঙ্গারা ক্যাম্প ছেড়ে পালাচ্ছে

বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আগামী ১৫ নভেম্বর থেকে রোহিঙ্গা ...

১০ বছর পর উৎসবমুখর নয়াপল্টন

১০ বছর পর উৎসবমুখর নয়াপল্টন

প্রায় দশ বছর পর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ...

সাক্ষাৎকার নয় দিকনির্দেশনা দেবেন প্রধানমন্ত্রী

সাক্ষাৎকার নয় দিকনির্দেশনা দেবেন প্রধানমন্ত্রী

এবার আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার নেওয়া হবে না। তবে তাদের ...

হুমায়ূন আহমেদ সাহিত্য পুরস্কার পেলেন রিজিয়া রহমান

হুমায়ূন আহমেদ সাহিত্য পুরস্কার পেলেন রিজিয়া রহমান

'হুমায়ূন আহমেদ নেই, হুমায়ূন আহমেদ আছেন। যারা তার সাহচর্য পেয়েছিলেন, ...

আসন হারানোর শঙ্কায় জাপা

আসন হারানোর শঙ্কায় জাপা

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মহাজোটের প্রধান শরিক আওয়ামী লীগের কাছে ...

জামায়াতও ৩৫ আসনের কমে মানতে নারাজ

জামায়াতও ৩৫ আসনের কমে মানতে নারাজ

নিবন্ধন বাতিল হওয়ায় দলীয় পরিচয়ে ভোটে অংশ নেওয়ার সুযোগ নেই ...