ঝুঁকিপূর্ণ ভবন অপসারণ অভিযান থমকে আছে

সিলেট সিটি করপোরেশন

প্রকাশ: ১৩ জানুয়ারি ২০১৮      

মুকিত রহমানী, সিলেট ব্যুরো

নগরীতে চিহ্নিত ৩২টি ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের মধ্যে তিনটি অপসারণ করেই হাত গুটিয়ে আছে সিলেট সিটি করপোরেশনের (সিসিক)। এক বছর ধরে বাকি ভবনগুলো অপসারণ বা ভাঙার কোনো উদ্যোগ নেওয়া হয়নি। অবশ্য সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী জানিয়েছেন, এসব ভবন অপসারণ অভিযান বন্ধ হয়নি। অন্যান্য কার্যক্রমে জোর দেওয়ায় সাময়িকভাবে অভিযান করা হচ্ছে না। শিগগির আবার তা শুরু হবে।

সিসিক সূত্র জানায়, ২০০৫ সালের আগে সিলেট নগরীর ঝুঁকিপূর্ণ ভবনের কোনো তালিকা ছিল না। মাঝে মাঝে বড় ধরনের ভূমিকম্প হলে কিংবা কোনো ভবনে ফাটল দেখা দিলে নগর ভবন নড়েচড়ে বসত। বিচ্ছিন্নভাবে ওই সময় কয়েকটি ভবনকে ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করে তারা। ২০০৫ সালের পর আবার নতুন ঝুঁকিপূর্ণ ভবন চিহ্নিতের দাবি ওঠে। সে সময় শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রকৌশলী ও বিশেষজ্ঞদের দিয়ে ঝুঁকিপূর্ণ ভবন চিহ্নিতকরণ কার্যক্রম শুরু করা হয়। বিশেষজ্ঞরা নগরীর ৩২টি ভবন ঝুঁকিপূর্ণ হিসেবে চিহ্নিত করেন। সেগুলো হচ্ছে- জেল রোডের সমবায় ব্যাংক ভবন, মহিলাবিষয়ক কর্মকর্তার কার্যালয়, জিন্দাবাজারের কাস্টমস ও ভ্যাট অফিস ভবন, জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের এসএ রেকর্ড অফিস, সুরমা মার্কেট, বন্দরবাজারের সিটি সুপার মার্কেট, জিন্দাবাজারের রহমান প্লাজা, মিতালী ম্যানশন, রাজা ম্যানশন, মিরাবাজারের মডেল স্কুল, সিলেট ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, কারিগরি ইনস্টিটিউট, মদিনা মার্কেট এলাকার কয়েকটি বাসা, দরগাহ গেটের আজমির হোটেল ও মাহমুদ কমপ্লেক্সের পেছনের বাসা, শেখঘাটের পুরনো পাসপোর্ট অফিস সংলগ্ন বাসা, মদনমোহন কলেজের নবনির্মিত ভবন, মধুবন মার্কেট, পূর্ব শাহি ঈদগাহের অনামিকা এ/৭০ (খান কুঞ্জ), কালাশীল এলাকার মান্নান ভিউ, শেখঘাটের শুভেচ্ছা-২২৬ নম্বর বাসা, চৌকিদেখির ৫১/৩ সরকার ভবন, যতরপুরের নবপুষ্প ২৬/এ, পুরনো লেনের শফিকুল হকের কিবরিয়া লজ, দক্ষিণ সুরমার ভার্থখলায় সিদ্দিক আলীর ভবন ও খারপাড়ায় মিতালী-৭৪ নম্বর বাসা। এর মধ্যে ২০১৬ সালে শেখঘাটের একটি বাসা, অগ্রগামী বালিকা বিদ্যালয় ভবন, সিসিক মালিকানাধীন মিউনিসিপ্যাল মার্কেটের অংশবিশেষ ও তাঁতিপাড়ার একটি বাসা অপসারণ করা হয়।

২০০৭ সাল থেকেই সিসিক ঝুঁকিপূর্ণ বিভিন্ন ভবন মালিক ও কর্তৃপক্ষকে চিঠি দিয়ে আসছিল। ৮ বছর ধরে চিঠি চালাচালির পর ২০১৫ সালে ভবন অপসারণে উদ্যোগ নেয় সিসিক। এরপর বিভিন্ন স্থাপনা অপসারণ করা হলেও তালিকাভুক্ত বাকি ঝুঁকিপূর্ণ ভবনগুলো ভাঙার কার্যক্রম আর এগোয়নি।

বিষয়টি নিয়ে সিসিকের ভারপ্রাপ্ত প্রধান প্রকৌশলী নুর আজিজুর রহমান জানান, নগরীর বিভিন্ন রাস্তা সম্প্রসারণের কাজসহ অন্যান্য কাজ হচ্ছে। ফলে ঝুঁকিপূর্ণ ভবন অপসারণ আপাতত বন্ধ আছে। অচিরেই তা আবার শুরু হবে।
আসছে ভোট, প্রস্তুত ইসি

আসছে ভোট, প্রস্তুত ইসি

একাদশ সংসদ নির্বাচনের লক্ষ্যে নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে তফসিল ঘোষণা এবং ...

আজ শুভ বিজয়া দশমী

আজ শুভ বিজয়া দশমী

সব পূজামণ্ডপের বাতাসেই এখন বিষাদের ছায়া। হিন্দু ধর্মাবলম্বী মানুষের ঘরে ...

নবজাতককে নিয়ে হাসপাতালের ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়লেন মা!

নবজাতককে নিয়ে হাসপাতালের ছাদ থেকে লাফিয়ে পড়লেন মা!

নবজাতককে নিয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার একটি বেসরকারি হাসপাতালের ছাদ থেকে লাফ দিয়ে ...

দেখা হবে গানেই

দেখা হবে গানেই

আইয়ুব বাচ্চুকে আর চোখে দেখব না; তার গান শুনব খোলা ...

খাসোগির সন্ধানে 'জঙ্গলে তল্লাশি' পুলিশের

খাসোগির সন্ধানে 'জঙ্গলে তল্লাশি' পুলিশের

সৌদি রাজপরিবারের কঠোর সমালোচক সাংবাদিক জামাল খাসোগির অনুসন্ধান চালিয়ে যাচ্ছে ...

প্রিয়াঙ্কা-নিকের বিয়ে ডিসেম্বরেই

প্রিয়াঙ্কা-নিকের বিয়ে ডিসেম্বরেই

১০ বছরের ছোট মার্কিন সংগীত শিল্পী নিক জোনাসের সঙ্গে বাগদান ...

১০০ আসনে ছাড় দিতে পারে বিএনপি

১০০ আসনে ছাড় দিতে পারে বিএনপি

নির্বাচন ঘনিয়ে আসার সঙ্গে সঙ্গে জোট সম্প্রসারণেরও উদ্যোগ নিচ্ছে ক্ষমতাসীন ...

জসীমের উচ্ছেদ খেলায় নিঃস্ব মানুষ ফেরত চায় জমি

জসীমের উচ্ছেদ খেলায় নিঃস্ব মানুষ ফেরত চায় জমি

কালিয়াকৈরে মূর্তিমান আতঙ্কের নাম ছিল বনখেকো জসীম ইকবাল। পরে তার ...