অন্যমাত্রা

শরণার্থী শিবির থেকে

প্রকাশ: ১৩ জানুয়ারি ২০১৮      

তানিমা খাতুন

ওয়াহীদ আরিয়ান একজন মেধাবী চিকিৎসক। মেডিসিন নিয়ে পড়াশোনা করেছেন যুক্তরাজ্যের ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ে। সামনে তার উজ্জ্বল ভবিষ্যতের হাতছানি। কিন্তু তিনি স্রোতে গা না ভাসিয়ে ফিরে এলেন অস্থিতিশীল দেশ আফগানিস্তানে। এখানে জীবনের কোনো নিরাপত্তাই নেই। যেখানে তার শৈশব কেটেছে দৈন্যদশার মধ্য দিয়ে। তিনি কেন এই জীবনে আবার ফিরে আসতে চেয়েছেন এ নিয়ে একটি ডকুমেন্টারি প্রকাশ করেছে বিবিসি। আরিয়ানের বর্ণনায় উঠে আসে শরণার্থী শিবিরে দুঃসহ জীবন কাটানোর কথা।

পর্বতে চিরসবুজ বন, ওক, পপলার, হেজেলনাট ঝাড়, কাঠবাদাম, পেস্তাবাদাম আরও হরেক রকম বিচিত্র উদ্ভিদরাজির দেশ আফগানিস্তান। উদ্ভিদের সংখ্যা কম, অধিকাংশ জায়গা বৃক্ষহীন সমতলভূমি। চুনি, নীলা ও পান্নার মতো পাথরের উৎসস্থল এ দেশটি। ভৌগোলিক কারণে আফগানিস্তান এশিয়ার একটি গুরুত্বপূর্ণ সন্ধিস্থল হিসেবে পরিচিত। আর এতেই বিপত্তি আফগানবাসীর।

সোভিয়েত আক্রমণ এবং পরবর্তী গৃহযুদ্ধের শিকার হয় আফগানরা। সোভিয়েত অধিকৃতির আগে থেকেই আফগানিস্তানের জীবনমান ছিল নিম্ন পর্যায়ের। তবে সোভিয়েত-আফগান যুদ্ধ ও গৃহযুদ্ধ দেশটির চরম বিপর্যয় ঘটাতে সাহায্য করে। ১৯৭৯ সালে সোভিয়েত আক্রমণের পর থেকেই আফগানদের জনজীবন বিপর্যস্ত হয়ে ওঠে। মানুষ ঘরবাড়ি ছেড়ে পালাতে শুরু করে। তখন থেকেই শরণার্থীর জীবন শুরু তাদের। '৮৯ সালে যুদ্ধ থামলেও শরণার্থীরা গৃহহীন থেকে যায়। দেশের ভেতরে রাজনৈতিক সংঘাত, নিরাপত্তা সংকট, বিভিন্ন জঙ্গিগোষ্ঠীর দৌরাত্ম্য দেশটিকে অস্থিতিশীল করে তোলে। জঙ্গিগোষ্ঠী নির্মূলের নামে নতুন করে আমেরিকার আক্রমণের মুখে পড়েন আফগানরা। এতে করে জনগণের স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ব্যাহত হয়। জাতিসংঘের দাবি, প্রতিদিন আফগানিস্তান ছাড়ছে ১ হাজার মানুষ। এসব মানুষের বড় একটি অংশ আশ্রয় নিয়েছে পাকিস্তান ও ইরানে।

এ ধরনের পরিস্থিতির শিকার ওয়াহীদ আরিয়ান বলছিলেন তার অভিজ্ঞতার কথা। শরণার্থী ক্যাম্পটি মোটেও জীবনধারণের জন্য যথেষ্ট সহায়ক ছিল না। ওদের ১০ জনের একটি পরিবারের জন্য মাত্র একটি কাঁচা রুম বরাদ্দ ছিল। অসহনীয় তাপমাত্রা থাকার কারণে নানা রকমের শারীরিক সমস্যায় ভুগতে হতো সেখানকার অসংখ্য শরণার্থীকে। আরিয়ানের টিবি রোগ দেখা দেয় সে সময়। ক্যাম্পের একজন চিকিৎসকের কাছে সেবা নেন আরিয়ান। এই ঘটনার পরেই স্বপ্ন দেখতে শুরু করেন একজন ডাক্তার হওয়ার। তিনি বলেন, যাতে করে আমি সাহায্য করতে পারি নিজেকে, আমার পরিবারকে ও অন্যান্য সবাইকে, যারা আমার মতোই দুর্ভোগ পোহাচ্ছে।

ওয়াহীদ ১৫ বছর বয়সে আফগানিস্তানে যুদ্ধ চলাকালীন চলে আসেন লন্ডনে। পড়ালেখার সুযোগ পেয়ে যান ক্যামব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়ে। সযত্নে লালন করা স্বপ্ন পূরণের পথে এগিয়ে যান একটু একটু করে। ডাক্তারি পাস করার পর ১০০ স্বেচ্ছাসেবী ডাক্তার ও পরামর্শক নিয়ে একটি নেটওয়ার্ক প্রতিষ্ঠা করেন। এই নেটওয়ার্ক যুদ্ধাঞ্চলগুলোতে বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবামূলক পরামর্শ দিয়ে থাকেন। নেটওয়ার্কটি টেক্সট, হোয়াটস আপ, স্কাইপ, ই-মেইলের মাধ্যমে আফগানিস্তানের বড় হাসপাতালগুলোতে পরামর্শ দিয়ে থাকে, এমনকি কিছু সিরিয়ার হাসপাতালেও। এই নেটওয়ার্ককে কাশ্মীর, ইরাক ও আফ্রিকার কিছু অংশে নিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা আছে ওয়াহীদের। ২০০৬ সালে আফগানিস্তানের জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার ধরা হয়েছিল ২.৬৭ শতাংশ। আফগানিস্তানের শিশুমৃত্যুর হার হাজারে ১৬০ জন। দেশটির গড় আয়ু ৪৩ বছর।

ক্যাম্প জীবনের দুঃসহ অবস্থা এখনও ঠিক আগের মতোই অনুভব করেন আরিয়ান। তাই তো কষ্টে থাকা মানুষগুলোর দুঃখ লাঘব করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন নিরন্তর।

পরবর্তী খবর পড়ুন : ডিনারের সময় ৪ ঘণ্টা

গাড়ির হর্ন বাজানোয় চালককে খুন!

গাড়ির হর্ন বাজানোয় চালককে খুন!

চট্টগ্রাম নগরীর চট্টেশ্বরী পল্টন রোডে গাড়ির হর্ন বাজানোকে কেন্দ্র করে ...

নেইমারের চুল নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে তোলপাড়

নেইমারের চুল নিয়ে সামাজিক মাধ্যমে তোলপাড়

ব্রাজিল তারকা নেইমারের চুলের নতুন নতুন স্টাইলের কথা সবার জানা। ...

রেকর্ড ফাউলের শিকার নেইমার

রেকর্ড ফাউলের শিকার নেইমার

১৯৬৬ সালের বিশ্বকাপ দেখেছেন এবং এখনও বেঁচে আছেন এমন মানুষের ...

জকিগঞ্জে দেড় লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী

জকিগঞ্জে দেড় লক্ষাধিক মানুষ পানিবন্দী

সিলেটের জকিগঞ্জের সুরমা-কুশিয়ারা নদীর পানি ২ সেন্টিমিটার কমলেও লোকালয়ে বৃদ্ধি ...

প্রত্যাশা নয়, ভালোর আশায় দ. কোরিয়া

প্রত্যাশা নয়, ভালোর আশায় দ. কোরিয়া

মহাদেশীয় কোটার কারণে বিশ্বকাপে এশিয়ার দল থাকে বটে। কিন্তু শিরোপার ...

তাদের কাছে খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নয়, ইস্যু গুরুত্বপূর্ণ: কাদের

তাদের কাছে খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা নয়, ইস্যু গুরুত্বপূর্ণ: কাদের

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার চিকিৎসার বিষয়টি নিয়ে তার দলের নেতারা ...

মাগুরায় সড়ক দুর্ঘটনায় বাবা-মেয়ে নিহত

মাগুরায় সড়ক দুর্ঘটনায় বাবা-মেয়ে নিহত

মাগুরা-যশোর সড়কের মাগুরার শালিখা উপজেলার কৃষ্ণপুর এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় বাবা-মেয়ে ...

নতুন সেনাপ্রধান আজিজ আহমেদ

নতুন সেনাপ্রধান আজিজ আহমেদ

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর নতুন প্রধান হিসেবে দায়িত্ব নিচ্ছেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল আজিজ ...