সর্বোচ্চ আদালতের অনন্য রায়

প্রকাশ: ২৮ মার্চ ২০১৬      

শেখ হাফিজুর রহমান

বর্তমানে বাংলাদেশে সংসদীয় পদ্ধতির আদলে প্রধানমন্ত্রীর নিরঙ্কুশ শাসন চলছে। একটি রাষ্ট্রের সুষ্ঠু কার্যক্রম চলার জন্য যে ভারসাম্য প্রয়োজন তা আমরা সর্বত্র দেখতে পাচ্ছি না। কেননা বর্তমান বাংলাদেশ রাষ্ট্রের আইন প্রণয়ন এবং প্রশাসনিক ক্ষমতা এক ব্যক্তির হাতে ন্যস্ত। সর্বোচ্চ আদালতের বিচারকদের অপসারণের ক্ষমতা সংসদ সদস্যদের হাতে ন্যস্ত হওয়ার ফলে রাষ্ট্রের তিনটি অঙ্গ অর্থাৎ সংসদ, প্রশাসন ও বিচার বিভাগের ভেতরে ভারসাম্য আরও বেসামাল হয়ে পড়েছে। এ রকম পরিস্থিতিতে সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ কর্তৃক আদালত অবমাননার জন্য দু'জন মন্ত্রীকে দণ্ড প্রদানের মধ্য দিয়ে বিচার বিভাগের অবস্থান যেমন শক্তিশালী হবে, তেমনি তা রাষ্ট্রের তিনটি অঙ্গের মধ্যে ভারসাম্যকে আরও বেশি স্থিতিশীল করবে।
বাংলাদেশে আদালত অবমাননার বিষয়টি খুব পরিষ্কার নয়। আদালত অবমাননার বিষয়ে যে আইন রয়েছে সেটি খুব সংক্ষিপ্ত এবং অনেক ক্ষেত্রেই সর্বোচ্চ আদালতের কোনো সুস্পষ্ট নির্দেশনা পাওয়া যায় না_ কোন কাজটি বা কথায় আদালত অবমাননা হবে আর কোনটিতে হবে না। যার ফলে সাধারণ নাগরিক এবং সুশীল সমাজ ও সাংবাদিকদের মধ্যে এক ধরনের দ্বিধাদ্বন্দ্ব কাজ করে। এর আগে একটি জনপ্রিয় দৈনিকের একজন কলামিস্ট হাইকোর্টের আগাম জামিন বিষয়ে একটি কলাম লেখার পর ওই বিষয়ে যে মামলা হয়েছিল তখন আদালত কিছু দিকনির্দেশনা দিয়েছিলেন। এরপর আমরা দেখলাম আপিল বিভাগ গতকাল আদালত অবমাননায় দু'জনকে দণ্ড দিলেন।
বাংলাদেশের সংবিধান রাষ্ট্রের তিনটি অঙ্গ_ সংসদ, প্রশাসন ও বিচার বিভাগের ক্ষমতা ও এখতিয়ার সম্পর্কে সুস্পষ্ট করে বলে দিয়েছে। তার পরও আমরা দেখি, যারা রাষ্ট্রের দায়িত্বশীল পদে ও সাংবিধানিক পদে আছেন বা থাকেন তারা প্রায়ই দায়িত্বহীন কথাবার্তা বলেন। সুতরাং আজকের আপিল বিভাগের রায় চেক অ্যান্ড ব্যালেন্স হিসেবে কাজ করবে।
বিভিন্ন সভ্য গণতান্ত্রিক দেশে দেখতে পাই যে, রাষ্ট্রের বিভিন্ন বিভাগে ক্ষমতার মধ্যে একটি ভারসাম্য রক্ষা করা হয়। কোনো একটি বিভাগ যদি স্বৈরাচারী হয়ে উঠতে চায় তাহলে অন্য বিভাগের ক্ষমতা এবং এখতিয়ার তার ওপর চেক অ্যান্ড ব্যালেন্স হিসেবে কাজ করে। বিশেষ করে যেসব দেশে লিখিত সংবিধান রয়েছে, সেখানে সুপ্রিম কোর্টকে সংবিধানের অভিভাবক বলা হয়। আমরা মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ক্ষেত্রে দেখছি, সেখানকার সুপ্রিম কোর্ট প্রেসিডেন্ট এবং কংগ্রেসের কর্মকাণ্ড বেআইনি বলে বিবেচনা করলে সেটা দ্ব্যর্থহীন ভাষায় বলেন। পার্শ্ববর্তী রাষ্ট্র ভারতেও আমরা দেখেছি, সুপ্রিম কোর্ট সংসদ কর্তৃক পাসকৃত সংবিধানবিরোধী আইনকে বেআইনি বলে ঘোষণা করেছেন। বিচার বিভাগের এ ধরনের কর্মকাণ্ডের মধ্য দিয়ে বিভিন্ন গণতান্ত্রিক দেশে আইনের শাসন ও সাংবিধানিকতা প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। ক্ষমতার ভারসাম্য তৈরি হয়েছে। সুতরাং বাংলাদেশের সর্বোচ্চ আদালতের এ ধরনের কর্মকাণ্ডের মধ্য দিয়ে ক্ষমতার ভারসাম্য তৈরি হবে আশা করা যায়।
বর্তমান প্রধান বিচারপতি দায়িত্ব গ্রহণের পরে তার নানা রকম কর্মকাণ্ডের মধ্য দিয়ে বিচার বিভাগে গতিশীলতা এসেছে। বিশেষ করে মামলাজট কমানোর ব্যাপারে তিনি সক্রিয় ভূমিকা নিয়েছেন এবং তার কিছু ভালো ফলও পাওয়া গেছে। এ সময়কালে বিচারপতিদের ব্যক্তিগত বিরোধ সর্বোচ্চ আদালতের ইমেজকেও প্রশ্নবিদ্ধ করেছে।
আইনের একজন ছাত্র হিসেবে জানি যে, আদালতের প্রতি জনগণের আস্থা নষ্ট করার অসৎ উদ্দেশ্য নিয়ে রায়ের কোনো সমালোচনা করা যায় না। তবে সরল বিশ্বাসে আইনের খুঁটিনাটি বিষয় নিয়ে একাডেমিক আলোচনার ব্যাপারে কোনো বাধা নেই। বাংলাদেশে এই রায়টি একটি অনন্য ঘটনা, কারণ এর আগে আপিল বিভাগের তরফ থেকে এ ধরনের রায় আমরা দেখিনি। তবে রায়ে এটা পরিষ্কার নয় যে, ব্যক্তি প্রধান বিচারপতি এবং সর্বোচ্চ আদালত সমার্থক কি-না। সর্বোচ্চ আদালতের রায় এবং বিচারপতিদের বিষয়ে কতটা আলোচনা-সমালোচনা করা যাবে_ সে বিষয়ে সর্বোচ্চ আদালতের একটি সুস্পষ্ট দিকনির্দেশনা থাকলে নাগরিক ও সাংবাদিকদের বোঝার ক্ষেত্রে সুবিধাজনক হবে। তারা বুঝতে পারবেন বিচার বিভাগ ও বিচারপতিদের ব্যাপারে কী বলা যাবে বা লেখা যাবে।
ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের শিক্ষক
সাতক্ষীরায় মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৬৩

সাতক্ষীরায় মাদকবিরোধী অভিযানে আটক ৬৩

সাতক্ষীরায় পুলিশের মাদকবিরোধী বিশেষ অভিযানে ১১ জন নেতাকর্মী ও তিনজন ...

সয়াবিনের ভালোমন্দ

সয়াবিনের ভালোমন্দ

খাদ্য উপকরণ হিসেবে সয়াবিনের ব্যবহার বেশ পুরনো। চীনারা সয়াবিনকে এক ধরনের ...

ম্যালেরিয়ায় মৃত্যু ঠেকাতে নতুন ওষুধ আবিষ্কার

ম্যালেরিয়ায় মৃত্যু ঠেকাতে নতুন ওষুধ আবিষ্কার

ট্যাফেনোকুইন নামের এক ধরণের ট্যাবলেটকে ম্যালেরিয়ায় চিকিৎসায় ব্যবহারের জন্য অনুমোদন ...

আজ গ্যাস থাকবে না রাজধানীর যেসব এলাকায়

আজ গ্যাস থাকবে না রাজধানীর যেসব এলাকায়

গ্যাস পাইপ লাইন স্থানান্তর কাজের জন্য আজ সোমবার সকাল ১০টা ...

ব্যাংকের শীর্ষ ১০ খেলাপির তথ্য নিচ্ছে অর্থ মন্ত্রণালয়

ব্যাংকের শীর্ষ ১০ খেলাপির তথ্য নিচ্ছে অর্থ মন্ত্রণালয়

সরকারি-বেসরকারি সব ব্যাংকের শীর্ষ ১০ জন ঋণ খেলাপির তথ্যসহ ব্যাংকগুলোর ...

কামরানের নির্বাচনী ক্যাম্পে আগুন

কামরানের নির্বাচনী ক্যাম্পে আগুন

শান্তি, সৌহার্দ্য ও সম্প্রীতির শহর হিসেবে হযরত শাহজালাল (রহ.), হযরত ...

এগিয়ে যাচ্ছে দেশ

এগিয়ে যাচ্ছে দেশ

নানা প্রতিকূলতা ও সীমাবদ্ধতা আছে, তারপরও ইন্টারনেট ব্যবহারে প্রতিদিনই এগিয়ে ...

চলন্তিকা হাতিয়ে নিয়েছে একশ' কোটি টাকা

চলন্তিকা হাতিয়ে নিয়েছে একশ' কোটি টাকা

খুলনার রূপসা উপজেলার ডোবা মায়েরাবাদ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক ...