কিশোরগঞ্জে এত মধু!

প্রকাশ: ১৩ জানুয়ারি ২০১৮      

আনোয়ার হোসেন

বস্তায় ভর্তি করে ব্যাংক থেকে কোটি কোটি টাকা তুলেছেন ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তা সেতাফুল ইসলাম। ঘটনাটি ঘটেছে কিশোরগঞ্জে সোনালী ব্যাংকের একটি শাখায়। এ শাখাটি যে ভবনে অবস্থিত, সেখানেই বসেন জেলা প্রশাসক। শুক্রবার প্রথম আলো লিখেছে, 'ঢাকার বিভাগীয় কমিশনার এম বজলুল করিম চৌধুরী বলেছেন, এমন ভয়ঙ্কর ও অসৎ লোক আমি জীবনে দেখিনি। তার বিরুদ্ধে দুর্নীতি দমন কমিশনে মামলা করার অনুরোধ জানিয়েছি।' কথায় বলে, চোর পালালে বুদ্ধি বাড়ে। সেতাফুল ইসলাম প্রকৃতপক্ষে কত টাকা আত্মসাৎ করেছেন, সে হিসাব চূড়ান্ত হয়নি। মাত্র দু'দিনেই তিনি ওই শাখা থেকে প্রায় পাঁচ কোটি টাকা তুলে নিয়েছেন। ব্যাংকগুলো তার গ্রাহকদের ক্ষেত্রে একটি অনুশাসন মান্য করে- 'আপনার কাস্টমারকে জানুন।' কেউ একসঙ্গে কোটি কোটি টাকার অনেকগুলো ক্যাশ চেক নিয়ে এলে ব্যাংকের সংশ্নিষ্ট শাখা থেকে প্রশ্ন উঠতেই পারে। কিন্তু এ ক্ষেত্রে সেটা হয়নি। এর কারণ কি ব্যাংকের সঙ্গে সেতাফুল ইসলামের যোগসাজশ?

ড. ফখরুদ্দীন আহমদের তত্ত্বাবধায়ক সরকারের আমলে 'বনের রাজা ওসমান' খুব আলোচিত ছিল। সরকারি বন বিভাগের ওই অফিসার ঘুষ খেতেন ইচ্ছামতো। কিন্তু ব্যাংকের ঝামেলা এড়াতে টাকা রাখতেন তোশক, লেপ, বালিশে। আরও কিছু স্থানে হয়তো রাখতেন; কিন্তু সেটা অপ্রকাশিত। সেতাফুল ইসলাম দু'দিনে ব্যাংক থেকে পাঁচ কোটি টাকা তুলে নিয়েছেন এবং সেটা বহনের জন্য গাড়ি আনতে হয়েছে। এত অর্থ ব্যাংক থেকে তোলার সময় সন্ত্রাসী-ছিনতাইকারীদের নজর পড়ার কথা। সেটা ঘটেনি। তিনি মস্ত প্রতারক। টাকার লোভে বিভোর ছিলেন। সমকালে ২ জানুয়ারি প্রকাশিত এ সংক্রান্ত প্রতিবেদনের শিরোনাম ছিল- 'কিশোরগঞ্জ ভূমি অধিগ্রহণ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ১৫ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ'। এতে বলা হয়েছিল, ভূমি অধিগ্রহণের জন্য বরাদ্দকৃত অর্থ তিনি আত্মসাৎ করেছেন। এ অর্থ বরাদ্দ করা হয়েছিল সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্পের জন্য যেসব ব্যক্তির জমি হুকুমদখল করা হয়েছিল, তাদের ক্ষতিপূরণ প্রদানের জন্য। তিনি কি একাই এ ভয়ঙ্কর অপরাধে জড়িত? নাকি তার অফিস ও সোনালী ব্যাংকের কারও কারও যোগসাজশ রয়েছে? এ জন্য তদন্ত প্রয়োজন।

বাংলাদেশে দুর্নীতি দমন কমিশন বা দুদক সক্রিয়। তারা অভিযোগ পেলে তদন্ত করে। কিছু ক্ষেত্রে মামলা হয়, কোনো কোনোটিতে শাস্তি হয়। তবে সাধারণ মানুষের ধারণা, বড় বড় দুর্নীতিবাজ এখনও দুদকের জালে তেমন ধরা পড়ছে না। আমরা মাঝে মধ্যে সংবাদপত্রে দেখি, 'খ্যাতিমান ব্যক্তি'দের জিজ্ঞাসাবাদ করছে দুদক। সাবেক মন্ত্রী কিংবা বর্তমান সংসদের কোনো কোনো সদস্যও দুদকে হাজিরা দেন। কেউ কেউ তো বিপুলসংখ্যক দেহরক্ষী নিয়েও হাজির হন দুদক কার্যালয়ে। তবে এখন পর্যন্ত বলা যাচ্ছে না রাঘববোয়াল কারও সাজা হয়েছে এবং তিনি 'সাজাপ্রাপ্ত ব্যক্তি' ডোরাকাটা পোশাক পরে জেলে শ্রম দিচ্ছেন। সেতাফুল ইসলামকে শেরপুরের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক হিসেবে বদলি করা হয়েছিল। পিরোজপুর ও ভোলাতেও তাকে পোস্টিং দেওয়া হয়। কিন্তু কোথাও যেতে আগ্রহ দেখা যায়নি। কিশোরগঞ্জে যে এত মধু! বনের রাজা ওসমান এবং সেতাফুল ইসলামের মতো অনেক লোক রয়েছে আমাদের সরকারি প্রশাসনে- এমন ধারণা অমূলক নয়। কেবল প্রশাসনে নয়, আমাদের ধনবান ব্যক্তিরাও গুরুতর অনিয়মে জড়িত। কেউ ব্যাংক থেকে বিপুল অঙ্কের টাকা নিয়ে ফেরত না দিয়েও দিব্যি বহাল থাকেন। কেউ চোরাকারবারিতে যুক্ত। কেউ দ্রব্যমূল্য বাড়িয়ে ফায়দা লোটেন। চোখ খুললেই তাদের দেখা যায়। কিন্তু কে দেখবে?
সবই কি 'চাষের মাছ'

সবই কি 'চাষের মাছ'

রাজধানীর মতিঝিলে বাংলাদেশ ব্যাংকের পাশের অস্থায়ী সান্ধ্য কাঁচাবাজারে এক মাছের ...

সম্পর্কে ঈর্ষা

সম্পর্কে ঈর্ষা

সম্পর্কে ঈর্ষা থাকবে, এটাই স্বাভাবিক। বিশেষ করে সঙ্গীর জন্য যদি ...

বিএনপির কোনো নীতি আদর্শ নেই: তোফায়েল

বিএনপির কোনো নীতি আদর্শ নেই: তোফায়েল

বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, 'বিএনপির কোনো নীতি আদর্শ নেই। তারা ...

যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত হবে 'বালিঘর'

যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত হবে 'বালিঘর'

আরও একটি যৌথ প্রযোজনা চলচ্চিত্রের ঘোষণা এলো। কলকাতার বর্তমান সময়ের ...

নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে আ'লীগের ভরাডুবি হবে: ফখরুল

নিরপেক্ষ নির্বাচন হলে আ'লীগের ভরাডুবি হবে: ফখরুল

নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে আগামী নির্বাচন হলে এবং সব মানুষ ভোট দিতে ...

কুমারখালীতে ১৪৪ ধারা

কুমারখালীতে ১৪৪ ধারা

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে উপজেলা জাসদ ও ছাত্রলীগ একই স্থানে সভা ডাকায় ...

৮৮ বছর ধরে মাটি খাওয়া যার অভ্যাস

৮৮ বছর ধরে মাটি খাওয়া যার অভ্যাস

প্রতিদিন ভাত-রুটি না হলেও চলে কিন্তু মাটি না খেয়ে  একদিনও ...

পদ্মা সেতুর দ্বিতীয় স্প্যান বসতে পারে মঙ্গলবার

পদ্মা সেতুর দ্বিতীয় স্প্যান বসতে পারে মঙ্গলবার

চলতি সপ্তাহেই পদ্মা সেতুর দ্বিতীয় স্প্যান বসানোর অপেক্ষায় রয়েছে সেতু ...