এক ঘটনায় কত ব্যাখ্যা

প্রকাশ: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

আনোয়ার হোসেন

একটি স্ট্যাচু রয়েছে বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসের কেন্দ্রস্থলে। পর্যটকদের জন্য বিশেষভাবে আকর্ষণীয় এ স্থানটি, যেখানে দেখা যায় একটি বালক পেশাব করছে। এর পেছনের কাহিনী না জানলে এ স্ট্যাচু দেখে কারও হাসি পাবে। কারও কাছে বা ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদর দপ্তরের মানুষের রুচিবোধ নিয়েও প্রশ্ন উঠতে পারে। কয়েকশ' বছর আগে এটি স্থাপিত হয়। মাঝে অনেক ঝড়-ঝাপটা গেছে। দু'দুটি বিশ্বযুদ্ধ হয়েছে। তবুও টিকে আছে বালকটি। কেন এটি এত আকর্ষণীয়, সেটা নিয়ে কিন্তু অভিন্ন মত নেই। মুখে মুখে ফিরছে নানা কাহিনী। বিভিন্ন জনের লেখাতেও দেখা যায় যার যার মতো ব্যাখ্যা। একটি প্রচলিত গল্প রয়েছে এভাবে- প্রায় হাজার বছর আগে দু'পক্ষের যুদ্ধের সময় এক পক্ষ শিশু লর্ডকে নিরাপদ স্থান হিসেবে গাছের ওপরে একটি ঝুড়িতে রেখে দেয়। সেখান থেকে শিশুটি প্রতিপক্ষের সৈন্যদের ওপর পেশাব করে দেয় এবং তারা পরাজিত হয়। আরেকটি কাহিনী রয়েছে এভাবে- একটি বিদেশি রাষ্ট্রের বাহিনী ব্রাসেলস অবরোধ করে রাখে। আক্রমণকারীরা শহরে বিস্ম্ফোরক দ্রব্য রাখে। জুলিয়ানস্কে নামের একটি শিশু তাদের ওপর নজর রাখছিল। বিস্ম্ফোরণ ঘটানোর জন্য আগুনের যে ব্যবস্থা করেছিল শত্রুপক্ষ, বালকটি তার ওপর পেশাব করে দেয় এবং এভাবে প্রিয় শহরকে রক্ষা করে। ব্রাসেলস সফরে গিয়ে এ স্ট্যাচু বিষয়ে পর্যটকরা আরও একটি কাহিনী জানতে পারেন এভাবে- একটি ব্যবসায়ী পরিবার ব্রাসেলস সফরে গিয়েছিল। এ সময়ে তাদের শিশুপুত্রটি হারিয়ে যায়। নানা স্থান খুঁজে দেখা যায়, শিশুটি একটি পার্কে পেশাব করছে। শিশুটিকে খুঁজে পেতে স্থানীয়দের মধ্যে যারা সহায়তা করেছে, তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতাস্বরূপ এ স্ট্যাচু নির্মাণ করে দেন ওই ব্যবসায়ী। আরেকটি গল্পে বলা হয়েছে- একটি বালকের হঠাৎ ঘুম ভেঙে যায় এবং দেখতে পায় আগুন লেগেছে। সে পেশাব করে দিয়ে আগুন নিভিয়ে ফেলে। এর ফলে রাজপ্রসাদটি পুড়ে যাওয়া থেকে রক্ষা পায়।

একটি স্ট্যাচু নিয়ে এত কাহিনী! এক খ্যাতিমান ঐতিহাসিক তার কয়েকজন সহকর্মীর সঙ্গে কথা বলছিলেন। এ সময়ে বাইরে হইচই শোনা যায়। তিনি সহকর্মীদের কী ঘটেছে সেটা জেনে আসতে ঘটনাস্থলে যেতে বলেন। কিছুক্ষণ পর তারা ফিরে এলে তিনি ঘটনার বিবরণ জানতে পারেন। তবে তার জন্য বিস্ময়ের ছিল- একের ভাষ্যের সঙ্গে অন্যের ভাষ্যের মিল নেই। তিনি তখন বলেন, চোখের সামনের ঘটনা নিয়ে আপনারা একেক জন একেক কারণ বললেন। আর আমরা যখন তিন বা পাঁচ হাজার বছর আগে কী ঘটেছে, কেন ঘটেছে, কীভাবে ঘটেছে সেটা লিখতে বসি তখন প্রকৃত চিত্র পাওয়া কীভাবে সম্ভব? কিন্তু তার মধ্য দিয়েই তো সত্য বের করে আনতে হবে।

বলা হয়ে থাকে, যুদ্ধের ইতিহাস মানেই বিজয়ী পক্ষের বক্তব্যকে প্রাধান্য দেওয়া। লর্ড ক্লাইভ নবাব সিরাজউদ্দৌলার বাহিনীকে পরাজিত করেন। তখন বিশ্বাসঘাতকতা করেছিলেন মীর জাফর। ব্রিটিশরা যুদ্ধে জয়ী হয়ে সিরাজউদ্দৌলার নামে কত বদনাম রটায়। আমাদের এ উপমহাদেশের মানুষ বহু বছর তা বিশ্বাস করেছে। বাংলাদেশের স্বাধীনতা অর্জনের পর জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মাত্র সাড়ে তিন বছর ক্ষমতায় ছিলেন। তাকে ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট হত্যা করা হয়। ঘাতকরা তাকে হেয় করার জন্য, তার অবদান অস্বীকারের জন্য কত অপপ্রচার চালায়। দেশবাসীকে বিভ্রান্ত করতে কত চেষ্টা চলে। কিন্তু সত্য চাপা দিয়ে রাখা যায় না।
সোনাহাট স্থলবন্দরে শ্রমিকদের সংঘর্ষ, ১৪৪ ধারা জারি

সোনাহাট স্থলবন্দরে শ্রমিকদের সংঘর্ষ, ১৪৪ ধারা জারি

কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারী উপজেলার সোনাহাট স্থলবন্দরে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। ...

'রণবীরের সঙ্গে আমার রসায়ন জমে যাবে'

'রণবীরের সঙ্গে আমার রসায়ন জমে যাবে'

বলিউড সুন্দরী কারিনা কাপুর খান। সম্প্রতি মালদ্বীপ ঘুরে এলেন তিনি। ...

পাকিস্তানের বিপক্ষে ব্যাট করছে আফগানিস্তান

পাকিস্তানের বিপক্ষে ব্যাট করছে আফগানিস্তান

এশিয়া কাপের সুপার ফোরে একই দিন দুই ম্যাচ মাঠে গড়াচ্ছে। ...

চার জাতির টুর্নামেন্টে দর্শক মেসি

চার জাতির টুর্নামেন্টে দর্শক মেসি

আগামী মাসে সৌদি আরবে চার জাতির একটি টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হবে। ...

নির্বাচনের আগে সিনহা অপপ্রচারে উসকানি না দিলেও পারতেন: কাদের

নির্বাচনের আগে সিনহা অপপ্রচারে উসকানি না দিলেও পারতেন: কাদের

সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা নির্বাচনের আগে বই প্রকাশ ...

আমিরাতকে বড় ব্যবধানে হারাল মেয়েরা

আমিরাতকে বড় ব্যবধানে হারাল মেয়েরা

ছুটির দিনে গ্যালারিতে বসে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৬ মেয়েদের খেলা দেখছেন বেশ ...

মানুষ আওয়ামী লীগকেই ভোট দেবে: শাজাহান খান

মানুষ আওয়ামী লীগকেই ভোট দেবে: শাজাহান খান

নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, 'এবারের নির্বাচন আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জ। এই ...

অটোরিকশায় বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে পড়ে ৪ জনের মৃত্যু

অটোরিকশায় বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে পড়ে ৪ জনের মৃত্যু

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে সিএনজি চালিত অটোরিকশায় পল্লী বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে পড়ে ...