আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশের মুখ

প্রকাশ: ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮     আপডেট: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

চিত্রশিল্পী শাহাবুদ্দিন আহমেদ। মহান স্বাধীনতা সংগ্রামে লড়েছেন অস্ত্র হাতে। স্বাধীনতা পদকে ভূষিত হয়েছেন। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে পেয়েছেন সম্মান-খ্যাতি। কিন্তু স্বদেশের মুখ সর্বদা তার অন্তরে। বারবার ছুটে আসেন এখানে। স্টুডিওতে বসেন রঙতুলি নিয়ে। মানুষকে স্বপ্ন দেখান, প্রেরণা জোগান। উন্নত-সমৃদ্ধ বাংলাদেশের জন্য কাজ করে যান পরম নিষ্ঠা-আন্তরিকতায়। জন্মদিন সামনে রেখে তিনি কথা বলেছেন সমকালের উপসম্পাদক অজয় দাশগুপ্তের সঙ্গে

রাজধানীর কলাবাগান প্রথম গলিতে বিশ্বনন্দিত চিত্রশিল্পী শাহাবুদ্দিন আহমেদের বাড়ি খুঁজছিলাম। একাধিক স্থানীয় লোক বলেন একই কথা- যে বাড়ির গেট থেকে শুরু করে ওপরে ওঠার প্রতিটি সিঁড়ি, সবকিছুতে দেখবেন লাল-সবুজের ছোঁয়া, সেটাই তার বাড়ি। তাদের নির্দেশনায় সহজেই খুঁজে পাই আন্তর্জাতিক অঙ্গনে বাংলাদেশের মুখ হিসেবে বহু আগেই স্বীকৃত-নন্দিত চিত্রশিল্পী শাহাবুদ্দিন আহমেদের বাসভবন। কয়েক দশক ধরেই তিনি সঙ্গীত-সাহিত্য-চিত্রকলার অন্যতম প্রধান কেন্দ্র প্যারিসে অবস্থান করে কাজ করছেন। আরও অনেক জ্ঞানী-গুণী নন্দিত বাংলাদেশি রয়েছেন বিশ্বের নানা স্থানে। কিন্তু শাহাবুদ্দিন যেভাবে বাংলাদেশকে ধারণ করেন, বাংলাদেশের মানুষের দুর্দমনীয় শক্তি-সংকল্প-সম্ভাবনাকে বিশ্বের সামনে তুলে ধরায় প্রতিনিয়ত সক্রিয়- এমন আর কে আছে? গোধূলিবেলায় গাছপালাঘেরা ছাদে আলাপচারিতায় তিনি বলেন, '১৯৭১ সালের ১৬ ডিসেম্বর ঢাকায় যদি বাংলাদেশের লাল-সবুজ পতাকা নিজে না ওড়াতাম, হয়তো আমার জীবনটা অন্যরকম হতো। আমি বিজয় দেখেছি- অনেকেই এভাবে বলতে পারেন। কিন্তু আমার কাছে বিজয় তো ভিন্ন মাত্রা নিয়ে আসে। প্রায় ৪৮ বছর হতে চলল, আমরা বাংলাদেশকে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর কবল থেকে মুক্ত করেছি। শৈশব থেকে ছবি আঁকায় ঝোঁক ছিল, শিল্পাচার্য জয়নুল আবেদিনের মতো শিল্পী হওয়ার স্বপ্ন ছিল। এ জন্য চারুকলায় ভর্তি হই। কিন্তু মনের মধ্যে এক অন্য বাংলাদেশ যে বাসা বেঁধে আছে, যে দেশের জন্য আমি অস্ত্র হাতে লড়েছি। তুলি রেখে আগ্নেয়াস্ত্র তুলে নিতে কোনো সমস্যা হয়নি। '

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহ্বানে আমরা অস্ত্র হাতে নিই। তিনি আমাকে এত ভালোবাসতেন। তিনি প্রধানমন্ত্রী থাকাকালে বলেছিলেন, তোরা ছাড়া আমাদের দেশে আর কী সম্পদই-বা আছে। তোদের অনেক বড় হতে হবে। জাতির জনক একজন বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রকে বুকে টেনে নিয়ে এ কথা বলছেন- এটা ভাবলে এখনও শিহরণ অনুভব করি। এমন নেতা পাওয়া যে কোনো দেশের জন্য পরম সৌভাগ্যের। আমি প্যারিসে যে বৃত্তি নিয়ে যাই, সে বিষয়ে তার আগ্রহ ছিল অপরিসীম। বিশ্বনন্দিত চিত্রশিল্পী পাবলো পিকাসোর কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে বলেছিলেন, তাঁর মতো হতে পারবি না? বাংলাদেশের মুখ উজ্জ্বল করতেই হবে তোকে। আমার সিদ্ধান্ত নিতে সমস্যা হয়নি। মুক্তিযোদ্ধা ছিলাম। গোটা জীবন বাংলাদেশের জন্য কাজ করে যাব, সেটা দেশে কিংবা প্যারিসে যেখানেই থাকি না কেন- এই ছিল সংকল্প। অন্যথায় বেঁচে থাকা তো অর্থহীন।

১৯৭১ সালে তিনি কুমিল্লার সালদা নদী অঞ্চলে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে ছিলেন। পাকিস্তানি হানাদার বাহিনী মুক্তিবাহিনীর অবস্থানস্থল ঘিরে ফেলেছিল। 'অনন্যসাধারণ মনোবল এবং প্রাণপণে লড়াইয়ের মানসিকতা ছিল বলেই আমরা বেঁচে যাই। মুক্তিযুদ্ধে ভারতের জনগণ ও সেনাবাহিনীর সহায়তার কথাও আমরা ভুলব না।' বরেণ্য এ শিল্পী এবং আমি, একাত্তরের রণাঙ্গনে দু'জনেই ছিলাম। ত্রিপুরা রাজ্যের মেলাঘর ছিল খালেদ মোশাররফ ও মেজর হায়দারের হেডকোয়ার্টার। মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে আমি চলে যাই বরিশালের তৎকালীন গৌরনদী এলাকায়। দুই নম্বর সেক্টরের হাজার হাজার গেরিলার সশস্ত্র অভিযানের কেন্দ্র হয় বাংলাদেশের রাজধানী ঢাকা। অন্যরা সক্রিয় থাকেন ফরিদপুর, নোয়াখালীসহ বিভিন্ন জেলায়।

যখন বাইরে থাকেন, বাংলাদেশ নিয়ে নানা দেশের মানুষের মনোভাব শুনতে পান। কী বলেন তারা? শিল্পী শাহাবুদ্দিন বলেন, ফ্রান্সের কথাই বলি- সেখানের সাংস্কৃতিক-রাজনীতিক-ব্যবসায়ী মহলের কাছে বাংলাদেশ এখন আর অপরিচিত কোনো দেশ নয়। তাদের কাছে বাংলাদেশ এক বিস্ময়ের নাম হয়ে উঠছে। এ দেশটি নিজের অর্থে প্রমত্ত পদ্মা নদীতে সড়ক ও রেলসেতু নির্মাণ করছে, এ খবর তাদের কাছে বিশেষ কিছু। তারা বলেন, পদ্মা সেতু এখন একটি চেতনার নাম হয়ে উঠেছে। ফ্রান্সের সেরা বিপণিবিতানগুলোতে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক সাজানো থাকে। মেড ইন বাংলাদেশ- এটা এখন নামিদামি প্রতিষ্ঠানের কাছে গর্ব করে তুলে ধরার বিষয়। এক দশক আগে এটা ছিল না। বিভিন্ন দেশের টেলিভিশনে বিশ্ব অর্থনীতি নিয়ে আলোচনায় ব্রাজিল, ভারত, দক্ষিণ আফ্রিকা প্রভৃতি দেশের সঙ্গে বাংলাদেশের নাম উচ্চারিত হয়, আর তা শুনে গর্বে আমাদের বুক ফুলে ওঠে।

তিনি বলেন, শিক্ষার প্রসার ঘটছে। বাংলাদেশে এখন পাঁচ কোটির বেশি ছাত্রছাত্রী। তবে তুষ্ট থাকার অবকাশ নেই। আমাদের জানার পরিসর বাড়াতে হবে। এটাও মনে রাখতে হবে, নিজেকে জানতে হবে। দেশ সম্পর্কে অন্যকে জানাতে হবে। প্রতিনিয়ত বিশ্বকে আমাদেরও নতুন কিছু, ভালো কিছু দিতে হবে।

বাংলাদেশে ইংরেজি মাধ্যমে কিছু সংখ্যক স্কুল-কলেজে পড়ানো হয়। এ প্রসঙ্গ তুলে শিল্পী শাহাবুদ্দিন আহমেদ আমাকেই পাল্টা প্রশ্ন করেন, 'বলুন তো, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে যে তরুণরা লড়েছে অসম সাহসে, যারা আইয়ুব-মোনায়েম খানকে হটিয়ে বঙ্গবন্ধুকে কারাগার থেকে মুক্তি করেছে, যারা ব্যবসা-বাণিজ্যে, সাংবাদিকতায়, শিল্প-সংস্কৃতিতে খ্যাতি অর্জন করেছে এবং দেশের জন্য অশেষ সুনাম নিয়ে এসেছে বা আসছে- তাদের মধ্যে ক'জন এসব ইংলিশ মিডিয়ামের শিক্ষার্থী? আমি উত্তর খুঁজে পাই না। বাংলার মাটি, বাংলার শ্রমজীবী মানুষ, তাদের মুখের ভাষা- কত দরদ নিয়েই না বলে চলেন সেসব কথা। তিনি বলেন, দেশের জন্য আমি কী দিতে পারছি, সেটাই বড় কথা। বাংলাদেশের মানুষ মায়ের মুখের ভাষার জন্য লড়েছে। জীবন দিয়েছে। এটা একটা চেতনা। এটা ধরে রাখতে চাই। আমাদের দেশে অনেক অনিয়ম আছে। সঠিক চেতনার অভাবেই এটা ঘটে। কিন্তু এটাও মনে রাখতে হবে, কারও হাতে আলাদিনের চেরাগ নেই যে, সব সমস্যার সমাধান রাতারাতি মিলবে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নানা উদ্যোগের প্রসঙ্গ তিনিই তোলেন। তিনি বলেন, শেখ হাসিনার গোটা পরিবার রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিলেন। তিনি বঙ্গবন্ধুকন্যা বলেই নেতা হননি। নেতৃত্ব গুণ তার সহজাত। তার শিক্ষা আছে। শিল্প-সাহিত্যে অনুরাগ আগে। আবেগ-উচ্ছ্বাস আছে। তিনি ছবি আঁকেন। বই পড়েন। একই সঙ্গে ধর্মভীরু। গড়পড়তা বাঙালি পরিবারের একজন তিনি। তিনি পরিবারের বড় মেয়ে। আমাদের দেশের অনেক পরিবারেই দেখি, বড় মেয়ের বাড়তি দায়িত্ব। এটা এক ধরনের গুণ। তারা সংসার দেখেন। আবার নিজের কাজ করেন। প্রধানমন্ত্রী হয়েও তিনি রান্না করেন। সবার খোঁজ রাখেন। কে খেল, কে খেল না- সেটা নজরে থাকে। তার মা যেমন কেউ এলে বলতেন, না খেয়ে যাবে না। তিনিও সেটা বলেন। শিশুদের গায়ে তিনি তেল মাখিয়ে রোদে বসিয়ে নিজে পাশে থাকেন। এটা কেবল নিজের সন্তানের জন্য, নাতি-নাতনিদের জন্য নয়, অন্যদের জন্যও করেন। এসব গুণ তিনি পেয়েছেন বাবা-মায়ের কাছ থেকে। তিনি একটি স্বল্প আয়তনের জনবহুল দেশের নেতা। কত সমস্যা আমাদের। অথচ একটি স্বপ্ন জাগিয়ে তুলতে পেরেছেন দেশবাসীর মনে। সবচেয়ে ভালো লাগে, যখন বুঝতে পারি- অন্য দেশের বড় নেতারা এটা উপলব্ধি করতে পারছেন। তার কাছে বাংলাদেশের বিস্ময়কর অগ্রগতির কথা জানতে চাইছেন। স্বাধীনতার পর লোকসংখ্যা আড়াইগুণ বেড়েছে। অথচ প্রত্যেকেই আগের চেয়ে ভালো আছে। কেউ না খেয়ে মরছে না। শিক্ষার বাইরে যেন কেউ না থাকে, সে জন্য চেষ্টা চলছে। হতদরিদ্র পরিবার বাংলাদেশে এখনও কম নেই। কিন্তু তাদের ছেলেমেয়েরাও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বা বুয়েটে পড়তে পারছে।

শিল্পীর কাছে আবার প্রশ্ন তার ছবির অপ্রতিরোধ্য গতির প্রসঙ্গ তুলি। তিনি বলেন, মনের গতিই তো আমাকে টেনে নিয়ে গেছে মুক্তিযুদ্ধে। নইলে ওই বয়সে প্রিয় ক্যানভাস-রঙতুলি ছেড়ে অস্ত্র হাতে নেওয়া যায়? এখনও সেই গতি চাই- সোনার বাংলা গড়ে তোলার জন্য। এ জন্য চাই সোনার মানুষ। এটা আমার জন্য রাজনীতি নয়। আমার অন্তরই বলে দিচ্ছে- বাংলাদেশ বিশ্বের বুকে মাথা তুলে দাঁড়াবেই। কেবল ইচ্ছা-আকাঙ্ক্ষাতেই এ স্বপ্ন পূরণ হবে না। এ জন্য কাজ করতে হবে। এ ক্ষেত্রেও প্রেরণা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। তার ডাকে লাখ লাখ বাঙালি স্বাধীনতার জন্য জীবন দিয়েছে। বাঙালির কল্যাণ ও মঙ্গলে তার মতো আর কেউ এমন করে ভাবেনি। যতদিন যাচ্ছে, তাকে আমরা আরও বেশি করে বুঝতে পারছি।

আজ ১১ সেপ্টেম্বর শিল্পী শাহাবুদ্দিনের জন্মদিন। ১৯৫০ সালের এদিনে তার জন্ম। তার প্রতি শুভেচ্ছা, বিনম্র শ্রদ্ধা, ভালোবাসা।

পরবর্তী খবর পড়ুন : মোটরসাইকেল নিয়ে উদ্বেগ

নির্বাচনের আগে সিনহা অপপ্রচারে উসকানি না দিলেও পারতেন: কাদের

নির্বাচনের আগে সিনহা অপপ্রচারে উসকানি না দিলেও পারতেন: কাদের

সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা নির্বাচনের আগে বই প্রকাশ ...

'জাফর ইকবাল আমার গান ছাড়া অন্য কারো কণ্ঠে লিপ দিতে চাইতেন না'

'জাফর ইকবাল আমার গান ছাড়া অন্য কারো কণ্ঠে লিপ দিতে চাইতেন না'

লক্ষ কোটি তরুণের প্রিয় শিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ। সেই ১৯৮২ সালে ...

আমিরাতকে বড় ব্যবধানে হারাল মেয়েরা

আমিরাতকে বড় ব্যবধানে হারাল মেয়েরা

ছুটির দিনে গ্যালারিতে বসে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৬ মেয়েদের খেলা দেখছেন বেশ ...

মানুষ আওয়ামী লীগকেই ভোট দেবে: শাজাহান খান

মানুষ আওয়ামী লীগকেই ভোট দেবে: শাজাহান খান

নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, 'এবারের নির্বাচন আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জ। এই ...

অটোরিকশায় বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে পড়ে ৪ জনের মৃত্যু

অটোরিকশায় বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে পড়ে ৪ জনের মৃত্যু

কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে সিএনজি চালিত অটোরিকশায় পল্লী বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে পড়ে ...

সুলতান সুলেমানের পর এবার ‘জান্নাত’

সুলতান সুলেমানের পর এবার ‘জান্নাত’

বাংলাদেশের টিভি চ্যানেলগুলোতে বিদেশি সিরিয়াল গুলো বাংলা ডাবিং করে প্রচার ...

২ কর্মী হত্যায় ইউপিডিএফ দুষছে সংস্কারবাদী জেএসএসকে

২ কর্মী হত্যায় ইউপিডিএফ দুষছে সংস্কারবাদী জেএসএসকে

রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলায় নিজেদের দুই কর্মীকে হত্যার তীব্র নিন্দা ও ...

গায়ের জ্বালা মেটাতে সিনহা মিথ্যা কথা লিখেছেন: আইনমন্ত্রী

গায়ের জ্বালা মেটাতে সিনহা মিথ্যা কথা লিখেছেন: আইনমন্ত্রী

আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক বলেছেন, ...