গ্রামীণ ব্যাংকের পরিচালন মুনাফা বেড়েছে

প্রকাশ: ১২ জুলাই ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

চলতি বছরের প্রথম ছয় মাসে (জানুয়ারি-জুন) ক্ষুদ্রঋণ প্রতিষ্ঠান গ্রামীণ ব্যাংক ১২১ কোটি টাকা পরিচালন মুনাফা করেছে, যা আগের বছরের প্রথম ছয় মাসের তুলনায় ১৯ কোটি টাকা বেশি। ঋণ বিতরণ বৃদ্ধি পাওয়ায় মুনাফা বেড়েছে বলে জানিয়েছেন সংশ্নিষ্টরা।

গ্রামীণ ব্যাংক সূত্রে জানা যায়, চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে জুনে ১২ হাজার ২০৩ কোটি টাকা ঋণ বিতরণ হয়েছে। জুন শেষে প্রতিষ্ঠানটির আদায়যোগ্য ঋণের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১৫ হাজার ২২২ কোটি টাকা, যা আগের বছরের জুন শেষে ছিল ১৩ হাজার ৪৫৮ কোটি টাকা। এক বছরের ব্যবধানে আদায়যোগ্য ঋণ বেড়েছে এক হাজার ৭৬৪ কোটি টাকা।

গ্রামীণ ব্যাংকের উপমহাব্যবস্থাপক মোস্তফা কামাল সমকালকে বলেন, গ্রামীণ অর্থনীতিতে ঋণের চাহিদা বেড়েছে। ফলে ব্যাংকের ঋণ বিতরণ বেড়েছে। যে কারণে আয় বেশি হয়েছে। তিনি বলেন, দেশে এখন অনেকেই বাড়িতে একটি বা দুটি করে ষাঁড় বা গাভী পালন করছেন। ভারত থেকে গরু আসা কমে যাওয়ায় দেশে গরুর চাহিদা বেড়েছে। অনেকে গরু পালনে আগ্রহ দেখাচ্ছে। এ খাতে গ্রামীণ ব্যাংকের ঋণ বেড়েছে। এ ছাড়া ক্ষুদ্র ব্যবসা খাতে রেকর্ড ঋণ বিতরণ হয়েছে।

ব্যাংকের সামগ্রিক পরিস্থিতির ওপর সম্প্রতি একটি প্রতিবেদন তৈরি করেছে গ্রামীণ ব্যাংক কর্তৃপক্ষ। প্রতিবেদনটি ব্যাংকের ভারপ্রাপ্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক বাবুল সাহা অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের সচিব ইউনূসুর রহমানকে পাঠিয়েছেন। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বর্তমান সরকারের দুই মেয়াদেই গ্রামীণ ব্যাংকের অগ্রগতি হয়েছে সবচেয়ে বেশি। ব্যাংকটির মূল কাজ দরিদ্রদের মধ্যে ঋণ বিতরণ এ সময়ে ব্যাপকভাবে বেড়েছে। বেড়েছে আদায়যোগ্য ঋণ।

১৯৮৩ সালে প্রতিষ্ঠিত গ্রামীণ ব্যাংক বর্তমানে পাঁচ খাতে ঋণ বিতরণ করে। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ঋণ বিতরণ করা হয় গ্রামীণ ব্যাংক সহজ ঋণে। উপার্জনশীল খাতে নারীদের এই ঋণ দেওয়া হয়। ক্ষুদ্র ব্যবসা খাতে ঋণও ব্যাংকটির অন্যতম বিনিয়োগ। এ দুটি খাতেই ঋণ বিতরণ বেড়েছে। সর্বশেষ হিসাবে ক্ষুদ্র ব্যবসা খাতে ঋণের সংখ্যা এক কোটি ১৫ লাখ ৬৫ হাজার।
কোটি টাকায় কেনা দীর্ঘশ্বাস

কোটি টাকায় কেনা দীর্ঘশ্বাস

ধানমণ্ডিতে সুপরিসর একটি ফ্ল্যাট কেনার উদ্যোগ নিয়েছিলেন ব্যবসায়ী আহাদুল ইসলাম। ...

বিএনপির জনসভায় আমন্ত্রণ পাচ্ছে না জামায়াত

বিএনপির জনসভায় আমন্ত্রণ পাচ্ছে না জামায়াত

বিএনপির বৃহস্পতিবারের সম্ভাব্য জনসভায় ২০ দলের শরিক জামায়াতে ইসলামীকে কৌশলগত ...

প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইটের ক্রুর মাদক সেবন

প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইটের ক্রুর মাদক সেবন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফ্লাইটের এক কেবিন ক্রুর মাদক সেবন ও ...

দুদককে পঙ্গু করতে চায় একটি মহল

দুদককে পঙ্গু করতে চায় একটি মহল

দুর্নীতি দমন কমিশনকে (দুদক) একটি অথর্ব প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে অপতৎপরতা ...

নিবর্তনমূলক ধারা বাতিল দাবি সাংবাদিক নেতাদের

নিবর্তনমূলক ধারা বাতিল দাবি সাংবাদিক নেতাদের

স্বাধীন সাংবাদিকতায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে পারে- এমন সব ধারা-উপধারা বহাল ...

ইয়াবা কারবারিরা তবু বেপরোয়া

ইয়াবা কারবারিরা তবু বেপরোয়া

মিয়ানমার থেকে নানা কৌশলে ভিন্ন ভিন্ন রুট ব্যবহার করে সারা ...

বিপিএলের কারণে রশিদকে চেনা ইমরুলের

বিপিএলের কারণে রশিদকে চেনা ইমরুলের

হুট করেই ইমরুল কায়েস এশিয়া কাপের দলে ডাক পান। এরপর ...

মৃত ব্যক্তিকে জীবিত দেখিয়ে ব্যাংক ঋণ!

মৃত ব্যক্তিকে জীবিত দেখিয়ে ব্যাংক ঋণ!

বরিশালে মৃত ব্যক্তিকে জীবিত দেখিয়ে ব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়ার অভিযোগ ...