র্অথবছর ২০১৭-১৮

র্অথবছর ২০১৭-১৮ তৈরি পোশাকের প্রধান বাজার জার্মানি

প্রকাশ: ১২ জুলাই ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

তিন দশক ধরে বাংলাদেশের তৈরি পোশাকের প্রধান বাজার যুক্তরাষ্ট্র। তবে সদ্য সমাপ্ত ২০১৭-১৮ অর্থবছর শেষে একক দেশের হিসাবে তৈরি পোশাকের প্রধান বাজার এখন জার্মানি। গত তিন বছর ধরে বিভিন্ন প্রান্তিকে যুক্তরাষ্ট্রের চেয়ে বেশি রফতানি হয় জার্মানিতে। তবে বছর শেষের হিসাবে যুক্তরাষ্ট্র প্রধান বাজারের মর্যাদা ধরে রাখতে সক্ষম হয়। এবার আর সেটা সম্ভব হয়নি। গত দুই প্রান্তিকের মতো বছর

শেষেও জার্মানিতে রফতানির পরিমাণ ছিল বেশি।

রফতানি উন্নয়ন ব্যুরো (ইপিবি) এবং বিজিএমইএর গবেষণা সেল সূত্রে জানা গেছে, সমাপ্ত অর্থবছরে জার্মানিতে পোশাক রফতানির পরিমাণ ছিল ৫৫৮ কোটি ডলার। আগের বছরের তুলনায় বেশি হয়েছে ৯ শতাংশের মতো। এ সময় যুক্তরাষ্ট্রে রফতানি হয় ৫৩৫ কোটি ডলার। আগের বছরের তুলনায় রফতানি বেশি হয়েছে ২ দশমিক ৮৫ শতাংশ। তথ্য বিশ্নেষণে দেখা যায়, গত ২০১৬-১৭ অর্থবছরে যুক্তরাষ্ট্রে রফতানি আগের বছরের তুলনায় কম ছিল। আগের বছরের ৫৬২ কোটি ডলার থেকে রফতানির পরিমাণ ৫২০ কোটি ডলারে নেমে আসে। তারপরও প্রধান বাজারের মর্যাদা অটুট ছিল। আলোচ্য ওই দুই বছরে জার্মানিতে পোশাক রফতানি হয়েছে ৪৬৫ ও ৫১৩ কোটি ডলার। অর্থাৎ গত তিন বছরে যুক্তরাষ্ট্রের তুলনায় জার্মানিতে রফতানি বেড়েছে অনেক বেশি হারে।

একক দেশে মোট পোশাক রফতানিতে যুক্তরাষ্ট্রের অংশ এখন ১৭ শতাংশের কিছু বেশি। আগের দুই বছরে এ হার ছিল ২০ এবং ১৮ দশমিক ৪৯ শতাংশ। অথচ এক সময় সেখানে দেশের মোট পোশাক রফতানির ৩০ শতাংশ যেত। পোশাকের নিট এবং ওভেন দুই ক্যাটাগরিতে রফতানি বৃদ্ধির হার অন্য দেশের তুলনায় ধারাবাহিকভাবে কম হচ্ছে। এ জন্য অপপ্রচারকে দায়ী করে বিজিএমইএ। সংগঠনের সহসভাপতি মোহাম্মদ নাছির সমকালকে বলেন, সেখানে দেশের পোশাক নিয়ে ব্যাপক অপপ্রচার আছে। বেশ কিছু এনজিও এবং শ্রমিক সংগঠন বাংলাদেশবিরোধী প্রচারণা চালাচ্ছে। এ কারণে সে দেশে পোশাক রফতানিতে গতি কম। এ ছাড়া যুক্তরাষ্ট্র সারা বিশ্ব থেকেই পোশাক আমদানি কমিয়ে দিয়েছে। সেখানে এ পরিস্থিতির উন্নতি নিয়ে সন্দিহান তিনি।

পরবর্তী খবর পড়ুন : ফল ও সবজি পচবে না ছয় মাস

কোটি টাকায় কেনা দীর্ঘশ্বাস

কোটি টাকায় কেনা দীর্ঘশ্বাস

ধানমণ্ডিতে সুপরিসর একটি ফ্ল্যাট কেনার উদ্যোগ নিয়েছিলেন ব্যবসায়ী আহাদুল ইসলাম। ...

বিএনপির জনসভায় আমন্ত্রণ পাচ্ছে না জামায়াত

বিএনপির জনসভায় আমন্ত্রণ পাচ্ছে না জামায়াত

বিএনপির বৃহস্পতিবারের সম্ভাব্য জনসভায় ২০ দলের শরিক জামায়াতে ইসলামীকে কৌশলগত ...

প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইটের ক্রুর মাদক সেবন

প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইটের ক্রুর মাদক সেবন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফ্লাইটের এক কেবিন ক্রুর মাদক সেবন ও ...

দুদককে পঙ্গু করতে চায় একটি মহল

দুদককে পঙ্গু করতে চায় একটি মহল

দুর্নীতি দমন কমিশনকে (দুদক) একটি অথর্ব প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে অপতৎপরতা ...

নিবর্তনমূলক ধারা বাতিল দাবি সাংবাদিক নেতাদের

নিবর্তনমূলক ধারা বাতিল দাবি সাংবাদিক নেতাদের

স্বাধীন সাংবাদিকতায় প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করতে পারে- এমন সব ধারা-উপধারা বহাল ...

ইয়াবা কারবারিরা তবু বেপরোয়া

ইয়াবা কারবারিরা তবু বেপরোয়া

মিয়ানমার থেকে নানা কৌশলে ভিন্ন ভিন্ন রুট ব্যবহার করে সারা ...

বিপিএলের কারণে রশিদকে চেনা ইমরুলের

বিপিএলের কারণে রশিদকে চেনা ইমরুলের

হুট করেই ইমরুল কায়েস এশিয়া কাপের দলে ডাক পান। এরপর ...

মৃত ব্যক্তিকে জীবিত দেখিয়ে ব্যাংক ঋণ!

মৃত ব্যক্তিকে জীবিত দেখিয়ে ব্যাংক ঋণ!

বরিশালে মৃত ব্যক্তিকে জীবিত দেখিয়ে ব্যাংক থেকে ঋণ নেওয়ার অভিযোগ ...