পণ্য উৎপাদনে প্রযুক্তির ব্যবহার বাড়াতে হবে

প্রকাশ: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

বস্ত্র ও পোশাক খাতের উন্নয়নে সরকারের পক্ষ থেকে কৌশলগত দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা হাতে নেওয়ার কথা জানিয়েছেন জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী। তিনি বলেছেন, স্থানীয় স্পিনিং, নিটিং, ওভেন, কাপড় এবং সাপ্লাই চেইনে সহায়তা দেওয়ার পরিকল্পনাও রয়েছে সরকারের। পণ্যের মান উন্নয়নে প্রযুক্তির ব্যবহার এবং নতুন বাজার ও রফতানি বহুমুখীকরণে উদ্যোক্তাদের পরামর্শ দেন তিনি।

গতকাল ঢাকায় বস্ত্র ও পোশাক খাতের কাঁচামালের আন্তর্জাতিক প্রদর্শনী টেক্সটেক এবং ডাইক্যামের উদ্বোধনীতে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন স্পিকার। রাজধানীর আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) এ অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজম, ঢাকায় ভারতের হাইকমিশনার হর্ষবর্ধন শ্রিংলা, এফবিসিসিআই সভাপতি সফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, বিজিএমইএর সহসভাপতি মোহাম্মদ নাছির ও বিকেএমইএর সহসভাপতি ফজলে এহসান শামীম, প্রদর্শনীর আয়োজক সেমস গ্লোবাল বাংলাদেশের প্রেসিডেন্ট মেহরুন এন ইসলাম প্রমুখ।

স্পিকার বলেন, কর্মসংস্থান, জীবনযাত্রার মান ও দারিদ্র্য বিমোচনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে বস্ত্র ও পোশাক খাত। গত ১০ বছরে দেশের দারিদ্র্র্য ৪০ শতাংশ থেকে ২০ শতাংশে নামিয়ে আনার সাফল্যে পোশাক খাতের গুরুত্বপূর্ণ অবদান রয়েছে। মোট দেশজ উৎপাদনে এ খাতের অবদান ১৫ শতাংশ। তৈরি পোশাকের দ্বিতীয় বৃহত্তম রফতানিকারক বাংলাদেশের পক্ষে বিশ্ববাজারে নেতৃত্ব দেওয়ার বিপুল সম্ভাবনা আছে। এ লক্ষ্যে পণ্যের মান উন্নয়নে প্রযুক্তির ব্যবহার এবং নতুন বাজার ও রফতানি বহুমুখীকরণে উদ্যোক্তাদের আহ্বান জানান তিনি।

মির্জা আজম বলেন, বর্তমান সরকারের আগে বস্ত্র ও পোশাক খাতের কোনো অভিভাবক ছিলেন না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বস্ত্র মন্ত্রণালয়কে এ খাতের দায়িত্ব দেন। এরপর এর উন্নয়নে বস্ত্র পরিদপ্তরকে অধিদপ্তরে উন্নীত করা হয়। ২০২১ সালে পোশাক রফতানি পাঁচ হাজার কোটি ডলারে উন্নীত করার পরিকল্পনায় তার মন্ত্রণালয় সব ধরনের নীতিসহায়তা দিতে প্রস্তুত বলে জানান তিনি। ভারতের হাইকমিশনার বলেন, শুল্ক্কমুক্ত সুবিধার ফলে ভারতে বাংলাদেশের পোশাক রফতানি বাড়ছে। গত অর্থবছরের রফতানির পরিমাণ ছিল ৩০ কোটি ডলার। ভারত বাংলাদেশের বস্ত্র-পোশাক খাতের কাঁচামাল ও যন্ত্রপাতির সবচেয়ে বড় উৎস। ভারত ২৫ শতাংশ তুলা এবং সুতা রফতানি করে বাংলাদেশে। তবে ভারতের প্রবাসী আয় হিসেবে বাংলাদেশ থেকে বছরে ৪০০ কোটি ডলার যাওয়ার তথ্য সঠিক নয় বলে জানান তিনি। ভারতের প্রবাসী আয়ে বাংলাদেশকে চতুর্থ বড় উৎসের তথ্যটিও সঠিক নয়। শ্রিংলা বলেন, এ দেশে ভারতীয় নাগরিকদের ছোট একটি দল কাজ করে। এটা বিশ্বাসযোগ্য নয় যে, তাদের পক্ষে বছরে ৪০০ কোটি ডলার দেশে পাঠানো সম্ভব।

প্রদর্শনীতে বস্ত্র ও তৈরি পোশাক খাতের যন্ত্রপাতি, সুতা, কাপড়, ডাইস, কেমিক্যাল ও যন্ত্রপাতি প্রদর্শন করছে বিশ্বের ২৫টি দেশের এক হাজার ২৫০টি প্রতিষ্ঠান। প্রতিদিন সকাল সাড়ে ১০টা থেকে রাত সাড়ে ৭টা পর্যন্ত প্রদর্শনী সবার জন্য উন্মুক্ত। আগামী শনিবার প্রদর্শনী শেষ হবে।
নিয়ম রক্ষার ম্যাচে বিকেলে মুখোমুখি ভারত-আফগানিস্তান

নিয়ম রক্ষার ম্যাচে বিকেলে মুখোমুখি ভারত-আফগানিস্তান

এশিয়া কাপের সুপার ফোরে ভারত-আফগানিস্তানের আজ মঙ্গলবারের ম্যাচটি শুধুই নিয়ম ...

গভীর সমুদ্রে ৪৯ দিন ভেসে থেকে বেঁচে ফিরলেন যিনি

গভীর সমুদ্রে ৪৯ দিন ভেসে থেকে বেঁচে ফিরলেন যিনি

গভীর সমুদ্রে টানা ৪৯ দিন ভেসে ছিলেন ইন্দোনেশিয়ার আলদি নোভেল ...

ফিফার ‘দ্য বেস্ট’ মডরিচ

ফিফার ‘দ্য বেস্ট’ মডরিচ

রোনালদো ফিফার বর্ষসেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কার প্রদান অনুষ্ঠানে যান নি। তাতেই ...

ঐক্যের চাপে বিএনপি

ঐক্যের চাপে বিএনপি

সব দলের অংশগ্রহণে অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে 'বৃহত্তর জাতীয় ...

কোটি টাকায় কেনা দীর্ঘশ্বাস

কোটি টাকায় কেনা দীর্ঘশ্বাস

ধানমণ্ডিতে সুপরিসর একটি ফ্ল্যাট কেনার উদ্যোগ নিয়েছিলেন ব্যবসায়ী আহাদুল ইসলাম। ...

বিএনপির জনসভায় আমন্ত্রণ পাচ্ছে না জামায়াত

বিএনপির জনসভায় আমন্ত্রণ পাচ্ছে না জামায়াত

বিএনপির বৃহস্পতিবারের সম্ভাব্য জনসভায় ২০ দলের শরিক জামায়াতে ইসলামীকে কৌশলগত ...

প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইটের ক্রুর মাদক সেবন

প্রধানমন্ত্রীর ফ্লাইটের ক্রুর মাদক সেবন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ফ্লাইটের এক কেবিন ক্রুর মাদক সেবন ও ...

দুদককে পঙ্গু করতে চায় একটি মহল

দুদককে পঙ্গু করতে চায় একটি মহল

দুর্নীতি দমন কমিশনকে (দুদক) একটি অথর্ব প্রতিষ্ঠানে পরিণত করতে অপতৎপরতা ...