প্রতিবেশীর হক

প্রকাশ: ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

মাওলানা শাহ আবদুস সাত্তার

পাড়া-প্রতিবেশীর সঙ্গে আচার-আচরণ, সদ্ভাব-সহানুভূতি, সহমর্মিতা, মধুময় সম্পর্ক বজায় রাখা এবং অন্যান্য দায়িত্ব-কর্তব্য, হক-হুকুম সঠিকভাবে আদায় করা সামাজিক অতি মহৎ কাজ। নিজ ঘর বা বাসার চারপাশে বসবাসকারী অন্তত ৪০ ঘর লোক প্রতিবেশী। পরস্পর প্রতিবেশীর প্রতি দায়িত্ব, কর্তব্য ও মানবিকতা রয়েছে, যা অত্যন্ত পালনীয়। এসব করণীয় থেকে যে বা যারা উদাসীন থাকে, এদের মতো বদ বখ্‌ত কু-লোক আর নেই। এ সম্পর্কে হজরত রাসুলে মকবুল (সা.) বলেছেন, যে লোক তৃপ্তির সঙ্গে পেট ভরে খায় এবং আরাম-আয়েশে সুখনিদ্রায় কাটায়; অপরদিকে তারই প্রতিবেশী হয়তো না খেয়ে অনাহারে ধুঁকে ধুঁকে কষ্ট পাচ্ছে। নিঃসন্দেহে আমার প্রতি আস্থা, বিশ্বাস বা শ্রদ্ধা-সম্মানবোধ স্থাপন করেনি। আমাদের মহানবী (সা.) আর এক হাদিসে জানিয়েছেন, হে ইমানদার রমণীগণ, তোমরা প্রতিবেশী রমণীদের প্রেরিত উপঢৌকন হাদিয়াকে তাচ্ছিল্য-তুচ্ছ ভেবো না, যদিও সামান্য হয়। আর যদি এক প্রতিবেশীর প্রেরিত হাদিয়া, উপহার ফিরিয়ে দেয় বা অবজ্ঞা করে না রাখে; তাহলে জেনে রাখবে- পরস্পরের মধ্যে সহমর্মিতাবোধ থাকে না, হিংসা-বিদ্বেষ বেড়ে যায়। এমনকি সম্পর্কচ্ছেদ হওয়ার আশঙ্কা দেখা দেয়।

প্রতিবেশী সম্পর্কে হজরত আয়েশা (রা.) জিজ্ঞেস করেছিলেন, ইয়া রাসুলুল্লাহ (সা.), আমার দু'জন প্রতিবেশী আছে। আমার কাছে এক প্রতিবেশীকে হাদিয়াস্বরূপ দেওয়ার মতো কিছু আছে। তা কোন প্রতিবেশীকে পাঠাতে পারি? হজরত রাসুলে পাক (সা.) উত্তরে বললেন, যার ঘরের দরজা তোমার ঘরের কাছে, তাকে পাঠিয়ে দাও। হজরত রাসুলে মকবুল (সা.) বলেছেন, শপথ করে বলছি, সে ব্যক্তি ইমানদার নয় (বদ্‌ বখ্‌ত, কু-লোক), যার প্রতিবেশী তার অপকার, ক্ষতিসাধন হতে নিরাপদ নয়। হজরত রাসুলে পাককে (সা.) দেখা গেছে, তিনি তার ইয়াহুদি প্রতিবেশীদের সঙ্গে ভালো ব্যবহার করতেন, সুখ-দুঃখের সংবাদ নিতেন। এমনকি অসুখ-বিসুখ হলে সেবা-শুশ্রূষা করতেন। ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সব প্রতিবেশীর সঙ্গে সদ্ভাব, আচার-আচরণে মহানবী (সা.) উত্তম প্রতিবেশী ছিলেন।

অতএব, আসুন, প্রতিবেশীদের সঙ্গে আমরা পরস্পর সুখে-দুঃখে, ভালো-মন্দে একাত্ম হয়ে যাই। কোনো রূপ ঝগড়া-বিবাদ, কলহ থেকে এড়িয়ে চলি। কারও সঙ্গে কথা কাটাকাটি, ঝগড়া-ফ্যাসাদ শুরু হলে তাৎক্ষণিক মিটিয়ে ফেলার চেষ্টা করি। সহানুভূতি, সমবেদনায় সমভাগী হই। এমনকি পর্ব-পার্বণ, অনুষ্ঠান কিংবা বিয়ে-শাদিতে দাওয়াত দিলে যোগ দিই। কোনো রূপ অবহেলা-গড়িমসি করব না। সাদা মনে পরস্পর প্রতিবেশীর সঙ্গে আত্মীয়ের মতো সুসম্পর্ক বজায় রেখে চলব। আপদ-বিপদ, অভাব-অভিযোগে সাধ্যমতো সহযোগিতা করব। কারও মৃত্যু ঘটলে তাৎক্ষণিক শোকগ্রস্ত পরিবারের মাঝে গিয়ে আত্মীয়-স্বজনকে সমবেদনা জানাব। সম্ভব হলে শোকার্তের ঘরে খাবার-দাবার পাঠিয়ে দেব, দাফনে-কাফনে শরিক হয়ে দায়িত্ব পালন করব। এমনকি তাদের সৎপরামর্শ ও সাহায্য করতে এগিয়ে যাব। দরিদ্র শ্রেণির পরিবার হলে সামর্থ্য অনুযায়ী আর্থিক সাহায্য দেব।

মূল কথা, আপন ঘরের চারপাশ (৪০ ঘর) এলাকায় প্রতিবেশী পরস্পর আচার-আচরণ, সদ্ভাব, সহানুভূতি, সমবেদনায় 'স্বর্গীয় পরিবেশ' গড়ে সারাদেশের পাড়া-মহল্লা, গ্রাম-গঞ্জ, শহরকে বেহেশতে পরিণত করতে যেন আমরা সমর্থ হই। আল্লাহপাক আমাদের এই শক্তি-সামর্থ্য ও মনমানসিকতা তৈরি করে দিন।

সভাপতি, বাংলাদেশ সিরাত মিশন, ঢাকা
কবরীর  বাসায় ১৭ লাখ টাকা চুরি!

কবরীর বাসায় ১৭ লাখ টাকা চুরি!

ঢাকাই চলচ্চিত্রের একসময়ের জনপ্রিয় নায়িকা সারাহ বেগম কবরীর গুলশানের বাসায় ...

কোমর-পিঠ ব্যথায় কার্যকর ব্যায়াম

কোমর-পিঠ ব্যথায় কার্যকর ব্যায়াম

কোমর ও পিঠে ব্যথার সমস্যা খুব ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। ...

'আসল' খেলায় জ্বলে উঠুক টাইগাররা

'আসল' খেলায় জ্বলে উঠুক টাইগাররা

আকাশছোঁয়া অট্টালিকার সারি, ঝকঝকে শপিংমল, এমিরেটসের বৈভব ভরা বিমান মহল- ...

প্রেমের জন্য...

প্রেমের জন্য...

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে প্রেমিকের সঙ্গে অভিমান করে মায়া আক্তার (১৬) নামে ...

আশুরা উপলক্ষে তাজিয়া মিছিল শুরু

আশুরা উপলক্ষে তাজিয়া মিছিল শুরু

পবিত্র আশুরা উপলক্ষে শিয়া সম্প্রদায়ের তাজিয়া মিছিল শুরু হয়েছে। শুক্রবার ...

জাতিসংঘ অধিবেশনে যোগ দিতে নিউইয়র্কের পথে প্রধানমন্ত্রী

জাতিসংঘ অধিবেশনে যোগ দিতে নিউইয়র্কের পথে প্রধানমন্ত্রী

জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭৩তম অধিবেশনে যোগ দিতে সপ্তাহব্যাপী সরকারি সফরে ...

রাঙামাটিতে ইউপিডিএফের ২ কর্মীকে গুলি করে হত্যা

রাঙামাটিতে ইউপিডিএফের ২ কর্মীকে গুলি করে হত্যা

রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলায় পাহাড়ি সংগঠন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্টের (ইউপিডিএফ) দুই ...

একক নয়, যৌথ নেতৃত্ব

একক নয়, যৌথ নেতৃত্ব

অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবি আদায়ের লক্ষ্যে চলতি মাসেই আত্মপ্রকাশ ...