দক্ষিণ আফ্রিকায় বাংলাদেশি অপহরণ

চক্রের ৩ সদস্য ঢাকায় গ্রেফতার

প্রকাশ: ১৪ জুন ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

দক্ষিণ আফ্রিকায় বাংলাদেশি ব্যবসায়ীকে অপহরণের পর নির্যাতন করে মুক্তিপণ আদায়ের ঘটনায় জড়িত তিনজনকে ঢাকা থেকে গ্রেফতার করেছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ-সিআইডি। এর মধ্যে চক্রের প্রধান মোহাম্মদ ফাহাদকে মঙ্গলবার গ্রেফতার করা হয়। তার দুই সহযোগীকে আগেই গ্রেফতার করা হয়েছে। এদিকে সিআইডির তথ্যের ভিত্তিতে অপহরণের এই আন্তঃদেশীয় চক্রের নয়জনকে গ্রেফতার করে দক্ষিণ আফ্রিকার পুলিশ। তাদের মধ্যে দু'জন বাংলাদেশি, তিনজন পাকিস্তানি ও চারজন দক্ষিণ আফ্রিকার নাগরিক।

সিআইডি সূত্র জানায়, কুমিল্লার নাঙ্গলকোট উপজেলার ঢালুয়া গ্রামের রবিউল হক তিন বছর আগে দক্ষিণ আফ্রিকার জোহানেসবার্গে যান। সেখানে বয়জান এলাকায় তিনি একটি ভ্যারাইটি স্টোর চালু করেন। ব্যবসার আয়ে ভালোই কাটছিল তার দিন। গত ২৯ জানুয়ারি বিকেলে তিনি দোকানের জন্য মালপত্র কিনতে গেলে তাকে অপহরণ করা হয়। তার কাছে থাকা দুই লাখ ২০ হাজার রেন্ট (বাংলাদেশি টাকায় ১৬ লাখ টাকা) কেড়ে নেয় অপহরণকারীরা। এরপর তারা বাংলাদেশে তার স্বজনদের কাছে মোবাইল ফোনে ৬০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। মুক্তিপণের টাকা না দিলে তাকে মেরে ফেলা হবে বলেও হুমকি দেওয়া হয়। রবিউলকে টাকার জন্য নির্যাতন করা হতে থাকে। একসময় তারা রবিউলের দোকান বিক্রি করে টাকা দিতে বলে। তারা টাকা দেওয়ার জন্য দুটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট নম্বরও দেয়। এরপর রবিউলের ভাই মাহবুবুল হক ১১ ফেব্রুয়ারি মার্কেন্টাইল ব্যাংকের ফেনীর দাগনভূঞা শাখার একটি হিসাব নম্বরে নয় লাখ এবং ইউসিবিএল চট্টগ্রামের মুরাদপুর শাখার একটি হিসাব নম্বরে ১১ লাখ টাকা জমা দেন। মোট ২০ লাখ টাকা পাওয়ার পর অপহরণকারীরা ১৪ ফেব্রুয়ারি রবিউলকে ছেড়ে দেয়। ইতিমধ্যে নির্যাতন ও অর্ধাহার-অনাহারের কারণে তার মানসিক সমস্যা দেখা দেয়।

সিআইডির জ্যেষ্ঠ সহকারী পুলিশ সুপার শারমিন জাহান জানান, রবিউলের অপহরণের বিষয়ে তার ভাই ১৬ এপ্রিল একটি মামলা করেন। সিআইডি মামলাটির তদন্ত শুরু করে। সিআইডির তথ্যের ভিত্তিতে দক্ষিণ আফ্রিকার পুলিশ গত ১৮ এপ্রিল দুই বাংলাদেশিসহ নয়জনকে গ্রেফতার করে। তারা হলো- চৌদ্দগ্রামের তাহের, কক্সবাজারের মহসিন, তিনজন পাকিস্তানি ও চারজন দক্ষিণ আফ্রিকার নাগরিক। পরে ২৮ মে চক্রের দুই সদস্য হোসেন পারভেজ ও কাউসারকে গ্রেফতার করে সিআইডি। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ ও তদন্তে বেরিয়ে আসে অপহরণকারীদের মূল হোতা মোহাম্মদ ফাহাদ দেশেই অবস্থান করছে। দুই সহযোগী ধরা পড়ার খবর পেয়ে সে দক্ষিণ আফ্রিকায় পালানোর চেষ্টা করে। পুলিশের হাতে গ্রেফতার এড়াতে সে পাসপোর্ট হারিয়ে যাওয়ার কথা বলে থানায় জিডি করে। এভাবে সে নতুন নাম-ঠিকানা দিয়ে একটি পাসপোর্ট করার চেষ্টা চালায়। তবে তার শেষরক্ষা হয়নি। মঙ্গলবার তাকে গ্রেফতার করে সিআইডির অর্গানাইজড ক্রাইম টিম।

তদন্তে জানা যায়, বিসমিল্লাহ ট্রেডার্সের স্বত্বাধিকারী হোসেন পারভেজ মুক্তিপণের টাকা তুলে একটি সিগারেটের চালানের বিপরীতে মোহাম্মদ ফাহাদকে পাঠায়। অন্যদিকে অহনা ইলেক্ট্রনিক্সের স্বত্বাধিকারী কাউসার টাকা তোলার পর দু'জনে ভাগাভাগি করে নেয়। মুক্তিপণের টাকা যেন তারা আত্মসাৎ করতে না পারে সেজন্য তাদের ব্যাংক হিসাব জব্দ করা হয়েছে।
কুড়িগ্রামে কিশোর-কিশোরীর লাশ উদ্ধার

কুড়িগ্রামে কিশোর-কিশোরীর লাশ উদ্ধার

কুড়িগ্রাম জেলা শহরের নালিয়ার দোলা নামক স্থানে একটি ডিপ টিউবওয়েলের ...

বিএনপি নেতা সোহেলকে রিমান্ড চেয়ে আদালতে

বিএনপি নেতা সোহেলকে রিমান্ড চেয়ে আদালতে

বিএনপি নেতা হাবিব-উন-নবী খান সোহেলকে ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে ...

নাটোরে ট্রেনের ২৬০০ লিটার জ্বালানি তেলসহ আটক ৩

নাটোরে ট্রেনের ২৬০০ লিটার জ্বালানি তেলসহ আটক ৩

নাটোরের লালপুর উপজেলার আজিমনগর রেল স্টেশন এলাকা থেকে ট্রেনের দুই হাজার ৬০০ ...

প্রিন্সেস ডায়ানাসহ ২৩ হাজার মৃতদেহের ময়নাতদন্ত করেছেন তিনি

প্রিন্সেস ডায়ানাসহ ২৩ হাজার মৃতদেহের ময়নাতদন্ত করেছেন তিনি

সাম্প্রতিক সময়ের সবচেয়ে আলোচিত কিছু দুর্ঘটনায় প্রাণ হারানো ব্যক্তিদের মৃতদেহের ...

নারায়ণগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত

নারায়ণগঞ্জে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মাদক ব্যবসায়ী নিহত

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে র‌্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ ফরিদ মিয়া ওরফে ফেন্সি ফরিদ ...

টাঙ্গাইলে ড্রাম থেকে যুবকের দ্বিখণ্ডিত লাশ উদ্ধার

টাঙ্গাইলে ড্রাম থেকে যুবকের দ্বিখণ্ডিত লাশ উদ্ধার

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে হেলাল মিয়া (৩০) নামের এক যুবকের দ্বিখণ্ডিত লাশ ...

সালাহ-ফিরমিনোয় হার নেইমার-এমবাপ্পেদের

সালাহ-ফিরমিনোয় হার নেইমার-এমবাপ্পেদের

সালাহ-সাদিও মানে-ফিরমিনো বনাম নেইমার-এমবাপ্পে-কাভানি! কিংবা বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের সাবেক দুই কোচ ...

হংকংয়ের বিপক্ষে কষ্টের জয় ভারতের

হংকংয়ের বিপক্ষে কষ্টের জয় ভারতের

হংকংয়ের ইনিংসের তখন ২৯ ওভার চলছে। কোন উইকেট না হারিয়ে ...