গাজীপুরে নিরাপদ আবাসন থেকে ১৭ জনের পলায়ন

১২ নারী কিশোরী আটক

প্রকাশ: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

গাজীপুর প্রতিনিধি

গাজীপুর মহানগরের মোগড়খাল এলাকার নারী, শিশু ও কিশোরী হেফাজতিদের নিরাপদ আবাসন কেন্দ্রে ঠাঁই হয়েছিল বিভিন্ন মামলার ৩৪ নারী ও কিশোরী আসামির। এর মধ্যে ১৭ জন গভীর রাতে ঘরের জানালার গ্রিল কেটে সীমানা প্রাচীর টপকে পালিয়ে যায়। ১২ জনকে উদ্ধার করা হয়েছে। শুক্রবার মধ্যরাতের পর মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তর পরিচালিত ওই আবাসন কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, আসামিদের দীর্ঘদিন ধরে ওই আবাসন কেন্দ্রে রাখা হয়েছিল। কর্তৃপক্ষের নানা অব্যবস্থাপনা ও গাফিলতির কারণে তারা অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছিল। জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা শাহনাজ আক্তার বলেন, প্রথমে তারা দোতলার কক্ষের জানালার গ্রিল কেটে ফেলে। পরে বিশেষ কৌশলে খাটের কাঠ দিয়ে ছাদের সঙ্গে সীমানা প্রাচীর পর্যন্ত সিঁড়ি তৈরি করে একে একে ১৭ জন পালিয়ে যায়। পরে আবাসন কেন্দ্রের লোকজন টের পেয়ে দু'জনকে ছাদ থেকে আটক করে। এরই ফাঁকে ১৭ জন পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। জয়দেবপুর থানার ওসি আমিনুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে থানা পুলিশ দ্রুত অভিযানে বের হয়। পরে আশপাশ এলাকা থেকে ৪ জনকে আটক করা হয়। শনিবার সকালে টাঙ্গাইলের মির্জাপুর এলাকা থেকে পুলিশ আরও ৮ জনকে আটক করে কর্তৃপক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হয়। ৫ জনের খোঁজ পাওয়া যায়নি। আবাসন কেন্দ্রের সহকারী হোস্টেল সুপার পারভীন আক্তার বলেন, তারা ৩-৪ বছর ধরে এই কেন্দ্রে রয়েছে। তাদের বন্দিজীবন আর ভালো লাগছিল না। মুক্ত জীবনের স্বাদ নিতেই এই পথ বেছে নিয়েছিল। তিনি বলেন, এ আবাসন কেন্দ্রে কোনো রকম অব্যবস্থাপনা বা গাফিলতি নেই। শনিবার দুপুরে নিরাপদ হেফাজতিদের আবাসন কেন্দ্র পরিদর্শন করে মহিলা ও শিশুবিষয়ক প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, মহিলা ও শিশুবিষয়ক অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক শাহনেওয়াজ দিলরুবা, জেলা পুলিশ সুপার শামসুন্নাহার প্রমুখ।

প্রতিমন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি সমকালকে বলেন, ঘটনাটি তদন্তের জন্য ইতিমধ্যে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করে দেওয়া হয়েছে। বন্দি নারী ও কিশোরীরা কেন এভাবে পালিয়ে যায়, তার আসল কারণ তদন্ত কমিটি বের করে প্রতিবেদন জমা দেবে। এ কমিটির প্রধান করা হয়েছে সমাজসেবা অধিদপ্তরের উপপরিচালক ম্যাজিস্ট্রেট ফরিদা ইয়াসমিনকে।

মির্জাপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি জানান, শনিবার সকালে মির্জাপুর রেলস্টেশনের কাছ থেকে ওই আটজনকে উদ্ধার করা হয়। তারা হলেন- রাইজু (২৬), রিনা (২০), সুরমা (২০), জিয়াসমিন (১৮), শাবানা (১৬), বৃষ্টি (১৬), তানিয়া ও লামিয়া। এ সময় তাদের সঙ্গে থাকা তারেক তালুকদার নামে এক কিশোরকে আটক করে পুলিশ।

তারেক সিরাজগঞ্জ জেলার সলঙ্গা উপজেলার তিন নান্দিনা গ্রামের আবদুল হাই তালুকদারের ছেলে।

মির্জাপুর থানার ওসি এ কে এম মিজানুল হক জানান, মির্জাপুর রেলস্টেশনের কাছে স্থানীয় লোকজন রোহিঙ্গা ভেবে তাদের আটক করে পুলিশে সোপর্দ করেছে। তাদের বিষয়ে খোঁজ নিয়ে জানতে পারেন, তারা গাজীপুরের মহিলা অধিদপ্তরের আশ্রয়কেন্দ্র থেকে পালিয়ে এসেছে।
শ্রীনগরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত

শ্রীনগরে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবক নিহত

মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগরে পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মো. তাজেল (৩৫) নামে এক ...

খাঁটি দুধ চেনার ঘরোয়া উপায়

খাঁটি দুধ চেনার ঘরোয়া উপায়

ভেজাল দুধের ভিড়ে খাঁটি দুধ চেনা যেন দুষ্কর। কোথাও দুধে ...

নেইমারের গোলে উরুগুয়েকে হারাল ব্রাজিল

নেইমারের গোলে উরুগুয়েকে হারাল ব্রাজিল

ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দিয়েছে পেনাল্টি। না হলে আসল ব্যবধান ব্রাজিলের ...

মেক্সিকোর বিপক্ষে সহজ জয় আর্জেন্টিনার

মেক্সিকোর বিপক্ষে সহজ জয় আর্জেন্টিনার

ম্যাচের তখন দুই মিনিট। বার কাঁপানো এক শট নেয় মেক্সিকো। ...

ভরসার প্রতীক সেই নৌকা-ধানের শীষ

ভরসার প্রতীক সেই নৌকা-ধানের শীষ

নির্বাচনী বৈতরণী পার হতে নিজের প্রতীক ছেড়ে আওয়ামী লীগের নৌকা ...

রংপুর বিভাগের ১১ আসনে আ'লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত

রংপুর বিভাগের ১১ আসনে আ'লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত

আওয়ামী লীগের প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করার আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়েছে। ...

চট্টগ্রামে জাপা শরিকদের স্বপ্নভঙ্গ

চট্টগ্রামে জাপা শরিকদের স্বপ্নভঙ্গ

বিএনপি ভোটে না এলে ১০০ আসন ছেড়ে দেবে আওয়ামী লীগ- ...

ভোটের মাঠে একঝাঁক তারকা

ভোটের মাঠে একঝাঁক তারকা

বিভিন্ন অঙ্গনের তারকাদের রাজনীতিতে অংশগ্রহণ নতুন নয়। বিশেষত উপমহাদেশে এই ...