ক্ষোভ থেকেই রিমাকে হত্যা করে মাসুদ

প্রকাশ: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

পটিয়া (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি

প্রেমের সম্পর্ক ভেঙে দেওয়ায় ক্ষোভ থেকেই স্কুলছাত্রী রিমা আক্তারকে হত্যা করে আত্মহত্যার চেষ্টা চালায় মাসুদ। গতকাল রোববার এলাকাবাসী, রিমার পরিবার ও পুলিশের সঙ্গে কথা বলে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

তারা জানান, রিমা ষষ্ঠ শ্রেণিতে পড়াকালে তিন বছর আগে রাজমিস্ত্রি মাসুদের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিষয়টি পরিবারের নজরে এলে রিমাকে মাসুদের সঙ্গে মিশতে নিষেধ করা হয়। মাঝে মাসুদের সঙ্গে রিমা গোপনে যোগাযোগ রক্ষা করলেও এক পর্যায়ে সম্পর্ক ভেঙে দেয়। এতে মাসুদের মনে ক্ষোভের সঞ্চার হয়। এ থেকেই রিমাকে খুনের পরিকল্পনা করে মাসুদ। পটিয়া থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ নেয়ামত উল্লাহ জানান, আহত মাসুদ চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পুলিশ পাহারায় চিকিৎসাধীন। তার জ্ঞান এখনও ফেরেনি। সুস্থ হলে তাকে জিজ্ঞাসাবাদে খুনের আসল কারণ  জানা যাবে। এর সঙ্গে আরও কেউ জড়িত কি-না, তাও জানা যাবে। তবে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, প্রেমে প্রত্যাখ্যাত হয়ে ক্ষোভ থেকেই মেয়েটিকে হত্যা করে মাসুদ। রিমার বাবা বাদী হয়ে মাসুদকে আসামি করে থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন বলেও জানান ওসি।

এদিকে গতকাল বিকেলে ময়নাতদন্ত শেষে রিমার লাশ বাড়িতে এলে এক হৃদয়বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়। আদরের ছোট মেয়ের লাশ দেখে বাবা-মার গগনবিদারি আর্তনাদ। চোখে পানি ধরে রাখতে পারেননি প্রতিবেশীরা। ষাটোর্ধ্ব বাবা মঞ্জুর মানুষ দেখলেই চিৎকার দিয়ে একটি কথাই বলছেন, 'আর মাইফুয়ারে বলে হাডি ফেলায়য়ি্য' (আমার মেয়েকে নাকি কেটে ফেলেছে)। মা রেহানা বেগম নির্বাক প্রায়। এদিন বাদ আসর গ্রামের সামাজিক কবরস্থানে রিমাকে দাফন করা হয়।

রিমার চাচি বুলবুল নাহারের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, শনিবার সকাল ৭টায় রিমা স্কুলের ইউনিফর্ম পরে বাড়ি থেকে বের হয়। স্কুলে না গিয়ে পার্শ্ববর্তী কাঁঠালতলায় কোচিং সেন্টারে যায় সে। কোচিং শেষে বাড়ি ফেরার পথে হাঈদগাঁও সড়কের ব্রাহ্মণঘাটা নামক স্থানে মাসুদসহ আরও দুই যুবক সিএনজিচালিত অটোরিকশায় রিমাকে তুলে নেয়। পরে দুপুর ১২টায় রেললাইনের পাশে তার গলাকাটা লাশ দেখে স্থানীয়রা পরিবার ও পুলিশে খবর দেয়।

বিদ্যালয়ে সমাবেশ :গতকাল সকালে উপজেলার হাঈদগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ে শিক্ষক-শিক্ষার্থী-অভিভাবকদের সমন্বয়ে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রিমা হত্যার সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করে আইনের আওতায় এনে সর্বোচ্চ শাস্তির দাবি জানান তারা। স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি জিতেন কান্তি গুহের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য দেন উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি সাইফুদ্দিন খালেদ বাবুল, হাঈদগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক রণধীর দেবনাথ, উপজেলা শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শ্যামল কান্তি দে, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম জুলু প্রমুখ। তারা স্কুলের সামনে অবস্থিত বিওসি সড়কে বখাটেদের প্রতিহত করার জন্য পুলিশি টহল জোরদারের দাবি জানান।



ভারতের শ্বাস রুদ্ধ করে ’টাই’ আফগানদের

ভারতের শ্বাস রুদ্ধ করে ’টাই’ আফগানদের

ভারত 'বধ' করেই ফেলেছিল আফগানিস্তান। কিন্তু ম্যাচটা শেষ পর্যন্ত টাই ...

পল্টন-সোহরাওয়ার্দী কোনোটাই পাচ্ছে না বিএনপি

পল্টন-সোহরাওয়ার্দী কোনোটাই পাচ্ছে না বিএনপি

আগামীকাল বৃহস্পতিবার প্রথমে রাজধানীতে জনসভা করার ঘোষণা দিয়েছিল বিএনপি। ওইদিন ...

শীর্ষ চার রুশ ব্লগার বাংলাদেশে

শীর্ষ চার রুশ ব্লগার বাংলাদেশে

বাংলাদেশের পর্যটন সম্ভাবনাকে রাশিয়ার জনগণের সামনে তুলে ধরা এবং দ্বিপক্ষীয় ...

ভূমিহীনের জন্য বরাদ্দ জমিতে বড়লোকের পুকুর

ভূমিহীনের জন্য বরাদ্দ জমিতে বড়লোকের পুকুর

মুক্ত জলাশয়ে মাছ ধরে তা বিক্রি করে সংসার চলতো ভূমিহীন ...

জাতীয় ঐক্যকে চাপে রাখবে আ'লীগ ও ১৪ দলীয় জোট

জাতীয় ঐক্যকে চাপে রাখবে আ'লীগ ও ১৪ দলীয় জোট

শুরুতে স্বাগত জানালেও জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া গঠন এবং সরকারবিরোধীদের নিয়ে ...

জিততেই হবে আজ

জিততেই হবে আজ

অতীতের ভুল তারা কখনোই স্বীকার করে না। মানতে চায় না ...

প্রশাসনে নির্বাচনী রদবদল

প্রশাসনে নির্বাচনী রদবদল

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রশাসন সাজানোর উদ্যোগ নিয়েছে ...

বিএনপির সমাবেশের পর ঐক্যের লিয়াজো কমিটি

বিএনপির সমাবেশের পর ঐক্যের লিয়াজো কমিটি

আগামী শনিবার বিএনপির সমাবেশের পর 'বৃহত্তর জাতীয় ঐক্যের' লিয়াজো কমিটি ...