মিয়ানমারের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার আওতা বাড়াবে ইইউ

প্রকাশ: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

সমকাল ডেস্ক

রোহিঙ্গাদের ওপর গণহত্যা ও নির্যাতন চালানোর অভিযোগে জাতিসংঘের ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং মিশন দেশটির সেনা কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে যে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার সুপারিশ করেছে, তা নিয়ে জনমত বাড়ছে। এরই মধ্যে ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত বেশ কয়েকটি দেশ মিয়ানমারের ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞার আওতা বাড়ানোর ইঙ্গিত দিয়েছে। দোষীদের বিচারে মিয়ানমারের ওপর আরও চাপ সৃষ্টি করতে দেশটির সেনাবাহিনী-সংশ্নিষ্ট শীর্ষ দুটি প্রতিষ্ঠানের ওপরও সমন্বিত নিষেধাজ্ঞা আসতে পারে। এতে পুরো মিয়ানমারের অর্থনৈতিক পরিস্থিতি বিপর্যস্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকবে। তাই ইইউভুক্ত কোনো কোনো দেশ বিকল্প নিষেধাজ্ঞার কথাও ভাবছে। সে ক্ষেত্রে শীর্ষ সেনা কর্মকর্তাদের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা ও তাদের  সম্পত্তি জব্দ করা হতে পারে। ইইউর তিন কূটনীতিকের বরাত দিয়ে গতকাল রোববার যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যম পলিটিকো এক খবরে এ তথ্য জানিয়েছে। এদিকে রোহিঙ্গা নির্যাতনের ঘটনা দ্রুততার সঙ্গে তদন্ত করতে আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালতকে (আইসিসি) আহ্বান জানিয়েছে জাতিসংঘ। সংস্থার গণহত্যা প্রতিরোধ বিষয়ক বিশেষ উপদেষ্টা আদমা দিয়েং আইসিসির কৌঁসুলি ফাতৌ বেনসুদার প্রতি এ আহ্বান জানান।

পলিটিকোর খবরে জানানো হয়, আজ সোমবার রোহিঙ্গাদের একটি প্রতিনিধি দল মিয়ানমারের সেনাবাহিনী সংশ্নিষ্ট প্রতিষ্ঠানগুলোর বাণিজ্যের ওপর সমন্বিত নিষেধাজ্ঞা আরোপে চাপ সৃষ্টি করতে ব্রাসেলস সফর করবে। তারা কয়েকটি ইউরোপীয় দেশ ও ইউরোপীয় কমিশনের কাছে সমন্বিত নিষেধাজ্ঞা আরোপের দাবি জানাবে। মিয়ানমারের সেনাবাহিনী সংশ্নিষ্ট শীর্ষ ওই ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান দুটি হলো দ্য ইউনিয়ন অব মিয়ানমার ইকোনমিক হোল্ডিংস লিমিটেড ও মিয়ানমার ইকোনমিক করপোরেশন। ইউরোপীয় কয়েকটি দেশ ও ইউরোপীয় কমিশন এ দুটি প্রতিষ্ঠানের ওপর বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে পারে। এ দুটি প্রতিষ্ঠানের অধীনে মিয়ানমারের রত্ন, তামা, স্বর্ণ, পোশাক, সিমেন্ট ও শীর্ষ টেলিকম কোম্পানি মাইটেলের ব্যবসা পরিচালিত হয়। তবে যুক্তরাজ্য, জার্মানি ও নেদারল্যান্ডসের মতো দেশ মনে করছে, এই নিষেধাজ্ঞা আরোপ হলে পুরো মিয়ানমারের অর্থনীতি বিপর্যস্ত হতে পারে। তাই তারা এর বিকল্প বের করারও চেষ্টা করছে।

ইউরোপীয় কমিশনের এক মুখপাত্র বলেন, রাখাইনে মানবাধিকার লঙ্ঘনে দায়ী ও সহায়তাকারীদের জন্য ইইউ এর মধ্যেই সাত ব্যক্তির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিয়েছে। এখনও পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ চলছে এবং তার ভিত্তিতে তাদের সিদ্ধান্ত সবসময়ই পর্যালোচনা করা হচ্ছে। নিষেধাজ্ঞার কোনো সিদ্ধান্ত হলে তা ইউরোপিয়ান কাউন্সিলের সদস্য দেশগুলোর সর্বসম্মত সিদ্ধান্তের ভিত্তিতেই নেওয়া হবে।

এদিকে আইসিসিকে দ্রুততার সঙ্গে রোহিঙ্গা নির্যাতনের ঘটনা তদন্তের আহ্বান জানিয়ে জাতিসংঘের গণহত্যা প্রতিরোধ বিষয়ক বিশেষ উপদেষ্টা আদমা দিয়েং বলেন, এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ। আইসিসির প্রাক-ট্রাইব্যুনাল চেম্বারের সিদ্ধান্তের ফলে রোহিঙ্গাদের ওপর হওয়া বিভিন্ন অপরাধের জন্য ন্যায়বিচার পাওয়ার সুযোগ থাকবে।

এর মধ্যেই এক বিবৃতিতে রোহিঙ্গাদের নিয়ে নিরপেক্ষ তদন্তের ব্যাপারে সহযোগিতা করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে মিয়ানমার। এটি তাদের অভ্যন্তরীণ ব্যাপার বলেও মনে করছে দেশটি। তবে এ বিষয়ে এক বিবৃতিতে আদমা দিয়েং বলেছেন, মানবতাবিরোধী অপরাধের মতো বিভিন্ন অপরাধ করা ব্যক্তিদের রক্ষার জন্য অভ্যন্তরীণ ব্যাপার বলে কিছু নেই।





পরবর্তী খবর পড়ুন : প্রভাবিত সমাজ ও রাজনীতি

রাজশাহী খুলনা বরিশাল ও রংপুরের ৮১ আসনে আ'লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত

রাজশাহী খুলনা বরিশাল ও রংপুরের ৮১ আসনে আ'লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত

রাজশাহী, খুলনা, বরিশাল ও রংপুর বিভাগের কমপক্ষে ৮১ আসনে দলীয় ...

এমপি হতে চান ১২ হাজার!

এমপি হতে চান ১২ হাজার!

আসন্ন জাতীয় নির্বাচনে এমপি হতে চান ১২ হাজারের বেশি নেতা। ...

শিক্ষকদের ভোটের 'ভেট'

শিক্ষকদের ভোটের 'ভেট'

নির্বাচনের আগেই সারাদেশের সরকারি ও বেসরকারি শিক্ষকরা পেলেন বেশ কিছু ...

শেকড়ের টান উপেক্ষা করা যায় না

শেকড়ের টান উপেক্ষা করা যায় না

ইউরোপে যখন রক আর টেকনো নিয়ে মাতামাতি চলছে, ঠিক সেই ...

নতুন মুখ আসতে পারে বগুড়ার তিন আসনে

নতুন মুখ আসতে পারে বগুড়ার তিন আসনে

বগুড়ায় এবার অন্তত তিনটি আসনে ধানের শীষ প্রতীকে নতুন প্রার্থী ...

জয়পুরহাটে লেভেল ক্রসিংয়ে অল্পের জন্য বাঁচলো ৪৮ বাস যাত্রী

জয়পুরহাটে লেভেল ক্রসিংয়ে অল্পের জন্য বাঁচলো ৪৮ বাস যাত্রী

জয়পুরহাটের আক্কেলপুর পৌর এলাকার পশ্চিম আমুট্ট (মহিলা কলেজ সংলগ্ন) এলাকায় ...

সিডরে নিখোঁজের ১১ বছর পর প্রত্যাবর্তন

সিডরে নিখোঁজের ১১ বছর পর প্রত্যাবর্তন

প্রলংয়করী ঘূর্ণিঝড় সিডরে নিখোঁজের ১১ বছর পর বাড়ি ফিরেছেন শরণখোলা ...

সরকারি কাজে বাধা দেয়ায় রাবি ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতির জেল

সরকারি কাজে বাধা দেয়ায় রাবি ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতির জেল

সরকারি কাজে বাধা দেয়ার অভিযোগে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাবেক ...