সিআইডি পরিচয় দিয়ে রামপুরায় ডাকাতি

প্রকাশ: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

সিআইডি পরিচয় দিয়ে রামপুরায় ডাকাতি

মঙ্গলবার ভোরে রাজধানীর পূর্ব রামপুরায় প্রকৌশলী স্বপন দাশের বাসার মালপত্র তছনছ করে ডাকাতরা - সমকাল

মুখোশ পরা ব্যক্তিদের কারও হাতে আগ্নেয়াস্ত্র, কারও হাতে চাপাতি। রাজধানীর পূর্ব রামপুরায় একজন প্রকৌশলীর বাসায় ঢুকে ওই ব্যক্তিরা বলল- 'চুপ করে বসে থাকেন। কিছু হবে না। আমরা সিআইডির লোক।' এরপর প্রকৌশলী, তার স্ত্রী, বিশ্ববিদ্যালয় পড়ূয়া ছেলে আর ছোট্ট মেয়েকে অস্ত্রের মুখেই হাত-পা, চোখ বাঁধা হলো। বাসায় লুটপাট চলল অন্তত দুই ঘণ্টা ধরে। যাওয়ার সময় ফ্রিজ খুলে আপেল, বেদানা আর পানিও খেয়ে গেল ডাকাত দল। গতকাল মঙ্গলবার ভোর ৩টা থেকে ৫টা পর্যন্ত পূর্ব রামপুরার ২৭৭/১ নম্বর বাড়ির চতুর্থতলার একটি ফ্ল্যাটে এমন দুর্ধর্ষ ডাকাতি হয়। ওই ফ্ল্যাটে সয়েল অ্যান্ড ফাউন্ডেশন টেকনোলজি নামের একটি প্রতিষ্ঠানের প্রকৌশলী স্বপন দাশ তার স্ত্রী ও দুই সন্তান নিয়ে থাকেন।

বাসার লোকজন বলেছেন, ডাকাত দল ফ্ল্যাট থেকে প্রায় এক লাখ টাকা, ছয় ভরি স্বর্ণালঙ্কার, একটি ল্যাপটপ, একটি ডিএসএলআর ক্যামেরা ও তিনটি মোবাইল ফোনসেট লুট করেছে। ওই বাড়ির নিচেই দু'জন নিরাপত্তাকর্মী দায়িত্ব পালন করেন। তবে দুই ঘণ্টা ধরে সাততলা বাড়ির চতুর্থতলায় ডাকাতি হলেও তারা কিছুই টের পাননি বলে জানিয়েছেন।

গৃহকর্তা প্রকৌশলী স্বপন দাশ জানান, ডাকাতরা বাসার উত্তর-পূর্ব দিকে নির্মাণাধীন একটি বাড়ি দিয়ে তার ফ্ল্যাটের জানালার গ্রিল কেটে ভেতরে ঢোকে। প্রথমে তারা খালি কক্ষে ঢুকে সেখান থেকে তার ছেলে প্রিয়দর্শন দাশের কক্ষে গিয়ে অস্ত্রের মুখে তাকে জিম্মি করে ছেলের হাত-পা ও চোখমুখ বেঁধে ফেলে। ওই কক্ষেই দু'জন তাকে অস্ত্রের মুখে পাহারা দেয়। এরপর তার কক্ষে গিয়ে ডাকাত দলের অন্য সদস্যরা লাইট জ্বালিয়ে দিলে তার ঘুম ভেঙে যায়। অস্ত্র হাতে এত লোক দেখে তিনি কথা বলার চেষ্টা করতেই ডাকাতরা নিজেদের সিআইডি সদস্য পরিচয় দিয়ে চুপচাপ বসে থাকতে বলে।

স্বপন দাশ বলেন, এরপর অস্ত্রের মুখে তার স্ত্রী ও অষ্টম শ্রেণি পড়ূয়া মেয়ের হাত-পা ও মুখ বেঁধে ফেলে। এক পর্যায়ে হাত-পা ও চোখ বাঁধা ছেলেকেও তাদের কক্ষে নিয়ে সবাইকে একসঙ্গে জিম্মি করা হয়। কয়েকজন তাদের পাহারা দিলেও অন্য গ্রুপটি বাসায় লুটপাট চালায়। স্ত্রীর হাত সামনের দিক থেকে বাঁধা থাকায় তার সহায়তায় সকালের দিকে তাদের হাত-পায়ের বাঁধন খোলা হয়।

প্রিয়দর্শন দাশ বলেন, কালো কাপড়ের মুখোশ দিয়ে ডাকাত দলের সবার নাক-মুখ বাঁধা ছিল। মনে হয়েছে, তাদের সবার বয়সই ২০-২২ বছরের মধ্যে হবে। সংখ্যায় পাঁচ থেকে ছয়জন হবে।

বাড়ির দুই নিরাপত্তাকর্মী মোহাম্মদ আলী ও জাফর ফরাজী বলেন, রাতে তারা দায়িত্ব পালন করেন। তবে ভোর রাতের দিকে তারা ঘুমিয়ে গেলে ডাকাতির ঘটনাটি ঘটে। শুরুর দিকে তারা টের না পেলেও সকালে চিৎকার শুনে স্বপন দাশের ফ্ল্যাটে গিয়ে সবকিছু তছনছ দেখেন।

রামপুরা থানার কর্তব্যরত উপপরিদর্শক ইয়াকুব আলী সমকালকে বলেন, মঙ্গলবার বিকেল পর্যন্ত এ ধরনের ডাকাতির খবর তাদের থানায় নেই। কেউ অভিযোগও করেনি।
নরসিংদীতে দুই ভাইয়ের রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধার

নরসিংদীতে দুই ভাইয়ের রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধার

নরসিংদীতে একটি বিল থেকে দুই ভাইয়ের রক্তাক্ত মৃতদেহ উদ্ধার করা ...

আইনজীবী বাবু সোনা হত্যা মামলার অভিযোগপত্র গ্রহণ

আইনজীবী বাবু সোনা হত্যা মামলার অভিযোগপত্র গ্রহণ

রংপুরে বিশেষ জজ আদালতের সরকারি কৌঁসুলি অ্যাডভোকেট রথিশ চন্দ্র ভৌমিক ...

ঢাকা রওনা দিয়েছেন সাকিব

ঢাকা রওনা দিয়েছেন সাকিব

বাঁ হাতের কনিষ্ঠ আঙ্গুলে চোটের কারণে পাকিস্তানের বিপক্ষে বুধবার খেলতে ...

কোটা বাতিলের প্রস্তাব যাচ্ছে মন্ত্রিসভায়

কোটা বাতিলের প্রস্তাব যাচ্ছে মন্ত্রিসভায়

প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির সরকারি চাকরিতে কোটা বাতিল করে মেধার ...

নিরাপদ ডিজিটাল বিশ্ব গড়তে জাতিসংঘের ভূমিকা চান প্রধানমন্ত্রী

নিরাপদ ডিজিটাল বিশ্ব গড়তে জাতিসংঘের ভূমিকা চান প্রধানমন্ত্রী

নিরাপদ ডিজিটাল বিশ্ব গড়তে জাতিসংঘকে কার্যকর ভূমিকা রাখার আহ্বান জানিয়ে ...

এফডিসিতে ডিরক্টরস গিল্ডের নির্বাচন

এফডিসিতে ডিরক্টরস গিল্ডের নির্বাচন

২৮ সেপ্টেম্বর অনুষ্টিত হবে নাট্য-নির্মাতাদের সংগঠন ডিরেক্টরস গিল্ডের দ্বি-বার্ষিক নির্বাচন। ...

বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ

বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ

সুনামগঞ্জের বিশ্বম্ভরপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও উপজেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি ...

সাংবাদিকরা অতন্দ্র প্রহরীর ভূমিকা পালন করছেন: প্রধান বিচারপতি

সাংবাদিকরা অতন্দ্র প্রহরীর ভূমিকা পালন করছেন: প্রধান বিচারপতি

সাংবাদিকরা প্রতিনিয়ত অতন্দ্র প্রহরীর ভূমিকা পালন করছেন বলে মন্তব্য করেছেন ...