কেআইবির জাতীয় কনভেনশনে প্রধানমন্ত্রী

জনগণ ভোট দিলে ক্ষমতায় থাকব, না দিলে নয়

প্রকাশ: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮     আপডেট: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

সমকাল ডেস্ক

জনগণ ভোট দিলে ক্ষমতায় থাকব, না দিলে নয়

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শনিবার পায়রা উড়িয়ে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশের ষষ্ঠ জাতীয় কনভেনশনের উদ্বোধন করেন - বাসস

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আওয়ামী লীগ একটানা দুই মেয়াদে ক্ষমতায় আছে। সামনে নির্বাচন। তৃতীয় মেয়াদে জনগণ ভোট দিলে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকবে, না দিলে নয়। তবে তার আমলে দেশের যে অগ্রযাত্রা সূচিত হয়েছে, তা যেন থেমে না থাকে।

গতকাল শনিবার রাজধানীর ফার্মগেটের কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন বাংলাদেশের (কেআইবি) ষষ্ঠ জাতীয় কনভেনশনের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। খবর বাসস, ইউএনবি ও বিডিনিউজের।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগ সরকার যে উন্নয়ন কর্মসূচি নিয়েছে, এখন সাধারণ মানুষ তার সুফল পাচ্ছে। বাংলাদেশের অর্থনীতির দারুণ অগ্রগতি হয়েছে। মূল্যস্ম্ফীতি কমেছে। প্রবৃদ্ধির হার বেড়ে হয়েছে ৭ দশমিক ৭৮ শতাংশ।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, অবৈধভাবে ক্ষমতা দখলকারীদের উদ্দেশ্যই ছিল এ দেশের মানুষকে শোষণ করা। এ দেশের মানুষ ভিক্ষা করবে, এটাই চেয়েছিল ক্ষমতা দখলকারীরা। বিএনপি যখন সরকারে ছিল, সারের জন্য কৃষকদের ধরনা দিতে হয়েছে। গুলি খেয়ে প্রাণ দিতে হয়েছে। কিন্তু এখন সারের জন্য ধরনা দিতে হয় না, বরং সারই কৃষকের হাতের মুঠোয় পৌঁছে যায়। আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় এসে তিন দফায় সারের দাম কমিয়েছে। কৃষককে যেন ব্যাংকে আসতে না হয়, বরং ব্যাংকই কৃষকের দ্বারে গিয়ে তাকে ঋণ পৌঁছে দেয়, সে ব্যবস্থাও করা হয়েছে।

খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা ধরে রাখতে কৃষিবিদদের সহায়তা চেয়ে শেখ হাসিনা বলেন, 'বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে, এগিয়ে যাবে। আর যেন ভবিষ্যতে বাংলাদেশকে ভিক্ষার হাত বাড়াতে না হয়, সেদিকে  বিশেষভাবে কৃষিবিদরা লক্ষ্য রাখবেন। আমি শুধু সেটুকু আপনাদের কাছে অনুরোধ করে যাচ্ছি।'

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, 'আমাদের আওয়ামী লীগের নীতি খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জন করব, কারও কাছে হাত পাতব না। আর বিএনপির নীতি খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হওয়া যাবে না, বিদেশ থেকে ভিক্ষা আনতে হবে।'

প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা আজ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ। কিন্তু আমাদের এখন এসব পণ্যে মূল্য সংযোজন করতে হবে, প্রক্রিয়াজাতকরণ করতে হবে। কারণ, আমাদের দেশের মানুষের আর্থসামাজিক উন্নয়ন হচ্ছে, বিদেশে বাজারও তেমনি বৃদ্ধি পাচ্ছে। এগুলো আমরা দেশে যেমন বিক্রি করতে পারব, তেমনি রফতানি করতে পারব। তাই কৃষিপণ্যের প্রক্রিয়াজাতকরণের দিকে আমাদের বিশেষভাবে নজর দেওয়া প্রয়োজন। সে জন্য আমরা উৎসাহিত করছি আমাদের বিনিয়োগটা যেন এদিকে হয়। আমরা তাহলে অর্থনৈতিকভাবে আরও শক্তিশালী হতে পারব।'

শেখ হাসিনা বলেন, একটা সময় ছিল, যখন আমাদের দেশের মানুষ খাবারের জন্য হাহাকার করত। বিদেশ থেকে চাল আমদানি করেও চাহিদা মেটানো যেত না। তিনি বলেন, ১৯৯৬ সালে আমরা যখন সরকার গঠন করি, তখন দেশে ৪০ লাখ টন খাদ্য ঘাটতি ছিল। ২০০১ সালে আমাদের দায়িত্ব ছাড়ার সময় ঘাটতি পূরণ করে উদ্বৃত্ত খাদ্যশস্যের পরিমাণ ছিল ২৬ লাখ টন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০০১ সালে বিএনপি-জামায়াত জোট সরকার ক্ষমতায় এসে আবার খাদ্য ঘাটতির দেশে পরিণত করে। কারণ, খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ হলে বিদেশ থেকে নাকি খাদ্য সাহায্য আসবে না। লুটপাটও বন্ধ হয়ে যাবে।

শেখ হাসিনা বলেন, রাসায়নিক সার, সেচ, জ্বালানি তেল এবং কৃষি যন্ত্রপাতি সহজলভ্য করার জন্য তার সরকার কৃষিতে বিপুল ভর্তুকির ব্যবস্থা করেছে। এখন বর্গাচাষিদের মধ্যে জামানত ছাড়াই নামমাত্র সুদে কৃষিঋণ দেওয়া হচ্ছে। দুই কোটি আট লাখ ১৩ হাজারের বেশি কৃষক কৃষি উপকরণ কার্ডের মাধ্যমে কৃষি সহায়তা পাচ্ছেন। মাত্র ১০ টাকায় কৃষকদের জন্য ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলার ব্যবস্থা করা হয়েছে।

এর ফলে বাংলাদেশ আজ কৃষিপণ্য উৎপাদনে অভাবনীয় সাফল্য অর্জন করেছে। আমরা এখন দানাদার খাদ্য উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণ। চাল, শাকসবজি, মাছ-মাংসসহ বেশ কিছু কৃষিপণ্য আমরা বিদেশে রফতানি করছি। বাংলাদেশ বিশ্বে ধান উৎপাদনে চতুর্থ, সবজি উৎপাদনে তৃতীয়, মৎস্য উৎপাদনে তৃতীয়, ফসলের জাত উৎপাদনে প্রথম অবস্থানে রয়েছে।

তিনি বলেন, ২১০০ সালের মধ্যে বাংলাদেশ কেমন হবে, সে পরিকল্পনা করে আমরা 'ডেল্টা প্ল্যান' করেছি। সেখানে কৃষি ও পানিকে আমরা গুরুত্ব দিচ্ছি। ব্লু ইকোনমি শক্তিশালী করার জন্য সমুদ্র গবেষণা কেন্দ্রও করা হয়েছে।

কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন এবং কেআইবি সভাপতি এ এম এম সালেহ অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন। আইএফডিসির প্রেসিডেন্ট ও সিইও স্কট জে অ্যাঞ্জেল এবং কেআইবি মহাসচিব মো. খায়রুল আলম প্রিন্সও অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন। কৃষিবিদ ড. মীর্জা আবদুল জলিল, ড. আবদুর রাজ্জাক, আবদুল মান্নান এবং কৃষিবিদ আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে দেশের কৃষিক্ষেত্রের উন্নয়নের ওপর একটি প্রামাণ্যচিত্র পরিবেশিত হয়। প্রধানমন্ত্রী দু'দিনব্যাপী এই কনভেনশন উপলক্ষে প্রকাশিত স্মরণিকার মোড়কও উন্মোচন করেন।



মানুষ আওয়ামী লীগকেই ভোট দেবে: শাজাহান খান

মানুষ আওয়ামী লীগকেই ভোট দেবে: শাজাহান খান

নৌ-পরিবহনমন্ত্রী শাজাহান খান বলেছেন, 'এবারের নির্বাচন আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জ। এই ...

ঢাবির ‘খ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

ঢাবির ‘খ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে কলা অনুষদভুক্ত ‘খ’ ইউনিটের অধীনে ...

সুলতান সুলেমানের পর এবার ‘জান্নাত’

সুলতান সুলেমানের পর এবার ‘জান্নাত’

বাংলাদেশের টিভি চ্যানেলগুলোতে বিদেশি সিরিয়াল গুলো বাংলা ডাবিং করে প্রচার ...

২ কর্মী হত্যায় ইউপিডিএফ দুষছে সংস্কারবাদী জেএসএসকে

২ কর্মী হত্যায় ইউপিডিএফ দুষছে সংস্কারবাদী জেএসএসকে

রাঙামাটির নানিয়ারচর উপজেলায় নিজেদের দুই কর্মীকে হত্যার তীব্র নিন্দা ও ...

গায়ের জ্বালা মেটাতে সিনহা মিথ্যা কথা লিখেছেন: আইনমন্ত্রী

গায়ের জ্বালা মেটাতে সিনহা মিথ্যা কথা লিখেছেন: আইনমন্ত্রী

আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক বলেছেন, ...

'পটাকা'র লভ্যাংশ দেয়া হলো স্কুলে

'পটাকা'র লভ্যাংশ দেয়া হলো স্কুলে

উপস্থাপিকা থেকে নায়িকা হয়েছেন নুসরাত ফারিয়া। চলতি বছর ২৬ এপ্রিল ...

কবরীর  বাসায় চুরি

কবরীর বাসায় চুরি

ঢাকাই চলচ্চিত্রের একসময়ের জনপ্রিয় নায়িকা সারাহ বেগম কবরীর গুলশানের বাসায় ...

কোমর-পিঠ ব্যথায় কার্যকর ব্যায়াম

কোমর-পিঠ ব্যথায় কার্যকর ব্যায়াম

কোমর ও পিঠে ব্যথার সমস্যা খুব ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। ...