কারাগারে আদালত সংবিধানসম্মত নয় :ড. কামাল

প্রকাশ: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিচারে কারাগারের ভেতরে আদালত বসানো 'সংবিধানসম্মত হয়নি' বলে মনে করেন গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন। গতকাল মঙ্গলবার জাতীয় প্রেস ক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রখ্যাত এই আইনজীবী বলেন, তার ধারণা, বিএনপি এটা আদালতে চ্যালেঞ্জ করবে। আদালতই এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন তবে তিনি (ড. কামাল) আদালতে  গেলে এটাই বলবেন- এটা সংবিধানসম্মত নয়।

ড. কামাল বলেন, জামায়াতে ইসলামীকে সঙ্গে নিয়ে তিনি কোনো বৃহত্তর ঐক্যে যাবেন না। সাংবাদিকদের এ সংক্রান্ত প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে তিনি বলেন, সারা জীবন যেটা করিনি; শেষ জীবনে সেটা করতে যাব কেন?

সাম্প্রতিক সময়ে পাইকারি গ্রেফতার ও ধরপাকড় নিয়ে গণফোরাম আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে এ সংবিধান বিশেষজ্ঞ বলেন, এই ধরপাকড় নিয়ে উদ্বেগের কারণ আছে। কাউকে গ্রেফতার করতে হলে গ্রেফতারি পরোয়ানাসহ ইউনিফর্ম পরে আসতে হবে। ২৪ ঘণ্টার মধ্যে আদালতে হাজির করতে হবে, যেন সে জামিন চাইতে পারে। বিশেষ কারণে দুই-একটি ক্ষেত্রে সাদা পোশাকে গ্রেফতার করা যেতে পারে। তবে এটা এখন নিয়মিত করা হচ্ছে। সংবিধানে স্পষ্ট করে উল্লেখ আছে, কারও অপরাধ থাকলে কীভাবে আইনের আওতায় আনতে হবে। এখন যা হচ্ছে, সরকার তা করতে পারে না। এখন যেভাবে সাদা পোশাকে ধরা হচ্ছে, সেটা সংবিধানসম্মত নয়; আইনের লঙ্ঘন। সরকার সংবিধান লঙ্ঘন করে দেশ চালাচ্ছে। সংবিধানে বলা আছে- কাউকে আটক করা হলে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তাকে আদালতে সোপর্দ করতে হবে। সংবিধানের এ নিয়ম মানা হচ্ছে না। এসব বিষয়ে উচ্চ আদালতের কাছে গিয়ে আদেশ চাইবেন বলে জানান তিনি।

গণফোরাম সভাপতি বলেন, বিরোধীদলীয় নেত্রীর ক্ষেত্রে জেলখানায় বিচার-টিচার- এসব ঠিক নয়। কর্নেল তাহেরের বিচারের সঙ্গে তার বিচার মেলানো হয়েছে। কিন্তু মনে রাখতে হবে, কর্নেল তাহেরের বিচার হয়েছিল সামরিক আদালতে, সামরিক শাসনে। ৪১ বছর আগের একটা উদাহরণ দিয়ে এটা (আদালত স্থানান্তর) করার কোনো যুক্তি থাকতে পারে না। এই সিদ্ধান্ত শেষ পর্যন্ত সরকারের পক্ষেও যাবে না।

নির্বাচনের আগে বিভিন্ন দলের সঙ্গে 'জাতীয় ঐক্য' তথা 'তৃতীয় একটি ধারা' তৈরির প্রক্রিয়ায় রয়েছেন ড. কামাল হোসেন। এই প্রক্রিয়ায় বিএনপিরও যুক্ত হওয়ার কথা রয়েছে। বিএনপির জোটসঙ্গী জামায়াতকে রেখেই তাদের সঙ্গে কোনো 'বৃহত্তর ঐক্যে' যাবেন কি?- এমন প্রশ্নের জবাবে ড. কামাল বলেন, তার ও তাদের দল ওই ধরনের কোনো ঐক্যে যাবে না। তিনি বলেন, ওরা (জামায়াতে ইসলামী) তো এখন দলও নয়। ইতিমধ্যে তাদের নিবন্ধন বাতিল করা হয়েছে।

'জাতীয় ঐক্য' গড়ার অগ্রগতি সম্পর্কে জানতে চাইলে গণফোরাম সভাপতি বলেন, এই ঐক্যের কাজ এগোচ্ছে। ঐক্য হলে সবাই জানতে পারবেন।

খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় দ্রুত তাকে হাসপাতালে পাঠানোর আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, কেউ অসুস্থ হলে তাকে হাসপাতালে নেওয়া উচিত, চিকিৎসা দেওয়া প্রয়োজন। খালেদা জিয়া বিরোধী দলের নেতা, প্রধানমন্ত্রীও ছিলেন। তিনি অসুস্থ হওয়ায় তাকে হাসপাতালে পাঠানো উচিত। এটাই এ দেশের ঐতিহ্য।

আরেক প্রশ্নের জবাবে নির্বাচন সামনে রেখে দেশে স্বাভাবিক পরিবেশ নেই- দাবি করে তিনি বলেন, আগেই বলেছিলাম- নির্বাচনটা আদৌ হবে কি-না! আসলে নির্বাচনটা হোক। সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য পরিবেশ দরকার। কিন্তু এখন ভয়ভীতির আশঙ্কা তৈরি হয়েছে। আমরা নির্বাচন চাই, কিন্তু দেশে স্বাভাবিক পরিবেশ নেই।

সোহরাওয়ার্দী নয়, মহানগর নাট্যমঞ্চে সমাবেশ :জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার ব্যানারে আগামী ২২ সেপ্টেম্বর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সমাবেশের ডাক দেওয়া হয়েছিল। এক মাস আগে চাইলেও এই সমাবেশের অনুমতি পাওয়া যায়নি। এ অবস্থায় সমাবেশটি রাজধানীর গুলিস্তানের মহানগর নাট্যমঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে এবং এ জন্য অনুমতি মিলেছে বলে জানান ড. কামাল হোসেন।

সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে কেন সমাবেশের অনুমতি দেওয়া হয়নি?- জানতে চাইলে ড. কামাল ক্ষুব্ধ কণ্ঠে বলেন, 'এটা সরকারকে জিজ্ঞাসা করুন। আমরা অনুমতি পাইনি। তা ছাড়া আমি অনুমতি- এমন শব্দ বুঝি না। সরকার যখন-তখন সেখানে সমাবেশ করবে, আর আমরা বা বিরোধী দল চাইলে করতে দেওয়া হবে না- এটা কী করে সম্ভব! এটা জমিদারি নয়। এটা সংবিধানের ষোলোআনা পরিপন্থী। সংবিধানে এ ধরনের বৈষম্য নেই। সরকার এ ধরনের বৈষম্য করে সংবিধানকে বারবার অশ্রদ্ধা করছে।'

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরী, কেন্দ্রীয় নেতা অ্যাডভোকেট জগলুল হায়দার আফ্রিক, আওম শফিক উল্লাহ, নৃপেন ঘোষ, অ্যাডভোকেট সগীর আনোয়ার, সাইদুর রহমান, মোশতাক আহমেদ, জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়ার সদস্য সচিব আ ব ম মোস্তফা আমিন প্রমুখ।





ভারতের শ্বাস রুদ্ধ করে ’টাই’ আফগানদের

ভারতের শ্বাস রুদ্ধ করে ’টাই’ আফগানদের

ভারত 'বধ' করেই ফেলেছিল আফগানিস্তান। কিন্তু ম্যাচটা শেষ পর্যন্ত টাই ...

পল্টন-সোহরাওয়ার্দী কোনোটাই পাচ্ছে না বিএনপি

পল্টন-সোহরাওয়ার্দী কোনোটাই পাচ্ছে না বিএনপি

আগামীকাল বৃহস্পতিবার প্রথমে রাজধানীতে জনসভা করার ঘোষণা দিয়েছিল বিএনপি। ওইদিন ...

শীর্ষ চার রুশ ব্লগার বাংলাদেশে

শীর্ষ চার রুশ ব্লগার বাংলাদেশে

বাংলাদেশের পর্যটন সম্ভাবনাকে রাশিয়ার জনগণের সামনে তুলে ধরা এবং দ্বিপক্ষীয় ...

ভূমিহীনের জন্য বরাদ্দ জমিতে বড়লোকের পুকুর

ভূমিহীনের জন্য বরাদ্দ জমিতে বড়লোকের পুকুর

মুক্ত জলাশয়ে মাছ ধরে তা বিক্রি করে সংসার চলতো ভূমিহীন ...

জাতীয় ঐক্যকে চাপে রাখবে আ'লীগ ও ১৪ দলীয় জোট

জাতীয় ঐক্যকে চাপে রাখবে আ'লীগ ও ১৪ দলীয় জোট

শুরুতে স্বাগত জানালেও জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া গঠন এবং সরকারবিরোধীদের নিয়ে ...

জিততেই হবে আজ

জিততেই হবে আজ

অতীতের ভুল তারা কখনোই স্বীকার করে না। মানতে চায় না ...

প্রশাসনে নির্বাচনী রদবদল

প্রশাসনে নির্বাচনী রদবদল

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রশাসন সাজানোর উদ্যোগ নিয়েছে ...

বিএনপির সমাবেশের পর ঐক্যের লিয়াজো কমিটি

বিএনপির সমাবেশের পর ঐক্যের লিয়াজো কমিটি

আগামী শনিবার বিএনপির সমাবেশের পর 'বৃহত্তর জাতীয় ঐক্যের' লিয়াজো কমিটি ...