অতি ধনী বৃদ্ধির হার বেশি বাংলাদেশে

প্রকাশ: ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

সমকাল প্রতিবেদক

বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি হারে অতি ধনীর সংখ্যা বাড়ছে। গত পাঁচ বছরে বাংলাদেশে তিন কোটি ডলার বা প্রায় ২৫০ কোটি টাকার সম্পদ রয়েছে- এমন মানুষের সংখ্যা বেড়েছে ১৭ দশমিক ৩ শতাংশ হারে। লন্ডনভিত্তিক প্রতিষ্ঠান ওয়েলথএক্স গত সপ্তাহে বিশ্বের ধনীদের সম্পদ বৃদ্ধির ওপর সর্বশেষ প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। ওই প্রতিবেদনে বাংলাদেশে ধনিক শ্রেণি বৃদ্ধির এই চিত্র উঠে এসেছে। ২০১২ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত সময়ে ধনীদের সম্পদ বৃদ্ধির বিষয়টি বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে প্রতিবেদনে। 'ওয়েলথ অ্যান্ড ইনভেস্টঅ্যাবল অ্যাসেটস মডেল' ব্যবহার করে প্রতিবেদনটি তৈরি করেছে ওয়েলথএক্স।

প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, অতি ধনী মানুষের সংখ্যা সবচেয়ে দ্রুত হারে যেসব দেশে বাড়ছে, সে তালিকায় সবার ওপরে রয়েছে বাংলাদেশ। এ তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে চীন। জনবহুল এ দেশটিতে অতি ধনীর সংখ্যা বাড়ছে ১৩ দশমিক ৭ শতাংশ হারে। এরপর আছে যথাক্রমে ভিয়েতনাম, কেনিয়া, ভারত, হংকং ও আয়ারল্যান্ড। ওয়েলথএক্স বলছে, আঞ্চলিক রাজনীতিতে অস্থিরতা থাকলেও এসব দেশে সম্পদ সৃষ্টির অনুকূল পরিবেশ থাকায় ধনীদের সম্পদ বেড়েছে। যার ফলে বাংলাদেশ, ভিয়েতনাম ও ভারতে দ্রুত অর্থনৈতিক বিকাশ ঘটছে। নগরায়ণ, অবকাঠামোতে বিনিয়োগ ও শিল্পোৎপাদনে দ্রুত প্রবৃদ্ধি পরিলক্ষিত হচ্ছে এসব দেশে। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আলট্রা হাই নেট ওয়ার্থ বা অতি ধনী মানুষের সংখ্যা গত পাঁচ বছরে সবচেয়ে বেশি বেড়েছে চীন ও হংকংয়ে। এর বিপরীতে জাপান, কানাডা, ইতালি ও যুক্তরাষ্ট্রে নতুন ধনী তৈরি হওয়ার গতি কমেছে।

বাংলাদেশের অর্থনীতিবিদ ও সমাজ-বিশ্নেষকরা বলছেন, দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন হলে ধনিক শ্রেণি বাড়বে, এটা স্বাভাবিক। তবে বাংলাদেশে শুধু উন্নয়নই ধনিক শ্রেণি বৃদ্ধির কারণ নয়। এখানে রাষ্ট্রীয় সুযোগ-সুবিধা বণ্টনের বৈষম্য, প্রাতিষ্ঠানিক দুর্বলতা ও দুর্নীতির কারণেও ধনিক শ্রেণি বাড়ছে।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর সালেহ উদ্দিন আহমেদ সমকালকে বলেন, অর্থনৈতিক উন্নতির সঙ্গে ধনিক শ্রেণি বাড়বে, এটা স্বাভাবিক। তবে বাংলাদেশে এই হার বেড়েছে অনেক দ্রুতগতিতে। আবার অনেকেই রয়েছে, যাদের অবস্থার কোনো পরিবর্তন হয়নি বা অনেকের অবস্থা খারাপ হয়েছে। যেটা বিশ্বের অন্য কোনো দেশে ঘটেনি। এ ছাড়া বিশ্বের অন্যান্য দেশে ধনিক শ্রেণি সৃষ্টি হয়েছে দীর্ঘ সময় ধরে। কিন্তু বাংলাদেশে দেখা গেছে, হঠাৎ করেই একটি শ্রেণির জীবনধারা পাল্টে গেছে। কিন্তু এসব ব্যক্তি যে ব্যাপক উদ্ভাবনী কিছু করেছে, তা কিন্তু নয়। এটা হয়েছে মূলত রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতার কারণে। যেসব ব্যক্তি রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতা পেয়েছে, ক্ষমতার কাছাকাছি থেকেছে, তাদেরই এই পরিবর্তন হয়েছে। অন্যদিকে, অনেক দক্ষ ও উদ্ভাবনী মানুষ তাদের পরিবর্তন ঘটাতে পারেনি।

বেসরকারি গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) নির্বাহী পরিচালক ফাহমিদা খাতুন সমকালকে বলেন, অর্থনৈতিক কাঠামো পরিবর্তন হচ্ছে। বিশেষ করে শিল্প ও সেবা খাতের সম্প্রসারণ, জিডিপির আকার বাড়ছে। এসব কারণে বিভিন্ন খাতে ব্যবসা-বাণিজ্যের সুযোগ বেড়েছে। ফলে ধনিক শ্রেণি বাড়বে, এটা স্বাভাবিক। বাংলাদেশে তৈরি পোশাক খাত, ব্যাংক ও তথ্যপ্রযুক্তি খাত থেকে বর্তমানে অনেক সম্পদ তৈরি হচ্ছে। তবে ব্যাংক থেকে জাল জালিয়াতির মাধ্যমে অর্থ হাতিয়ে নিয়েও অনেকে সম্পদশালী হচ্ছে। আবার অন্যান্য দুর্নীতির তথ্যও প্রকাশ হচ্ছে। এ ছাড়া ওপরের দিকের মানুষ যেভাবে রাষ্ট্রীয় সুযোগ-সুবিধা পাচ্ছে, অন্যরা তা পাচ্ছে না।

ওয়েলথএক্সের প্রতিবেদনে ২০১৭ সাল শেষে বিশ্বের দুই লাখ ৫৫ হাজার ৮১০ জন অতি ধনী হিসেবে উল্লেখ করা হয়েছে, যা ২০১৬ সালের তুলনায় ১২ দশমিক ৯ শতাংশ বেশি। এর মধ্যে সবচেয়ে বেশি ধনী মানুষ রয়েছে যুক্তরাষ্ট্রে। দেশটিতে প্রায় ৮০ হাজার মানুষ অতি ধনী। দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে জাপান, তাদের অতি ধনী লোকের সংখ্যা প্রায় ১৮ হাজার। আর ১৭ হাজার অতি ধনী মানুষ নিয়ে এ তালিকায় তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে চীন। শীর্ষ দশের অন্যান্য দেশের মধ্যে রয়েছে জার্মানি, কানাডা, ফ্রান্স, হংকং, যুক্তরাজ্য, সুইজারল্যান্ড ও ইতালি।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, ধনীদের সম্পদের দ্রুত বৃদ্ধি বিবেচনায় বাংলাদেশের পরই আছে চীন। দেশটিতে ধনীদের সম্পদ বৃদ্ধির হার ১৩ দশমিক ৪ শতাংশ। তালিকার তৃতীয় স্থানে থাকা ভিয়েতনামের ধনী বৃদ্ধির হার ১২ দশমিক ৭ শতাংশ। কেনিয়ায় ধনী লোক বেড়েছে ১১ দশমিক ৭ শতাংশ হারে। ভারতের ধনী বেড়েছে ১০ দশমিক ৭ শতাংশ হারে। তালিকায় এর পরের অবস্থানে থাকা হংকংয়ে ৯ দশমিক ৩ শতাংশ, আয়ারল্যান্ডে ৯ দশমিক ১, ইসরায়েলে ৮ দশমিক ৬, পাকিস্তানে ৮ দশমিক ৪ ও যুক্তরাষ্ট্রে ৮ দশমিক ১ শতাংশ ধনী যুক্ত হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, ধনীদের সম্মিলিত সম্পদ ১৬ দশমিক ৩ শতাংশ বেড়ে গত বছর ৩১ দশমিক ৫ ট্রিলিয়ন (৩১ লাখ ৫০ হাজার কোটি) ডলারে উন্নীত হয়েছে।













সর্বোচ্চ ৬৫ আসনে ছাড় দেবে বিএনপি

সর্বোচ্চ ৬৫ আসনে ছাড় দেবে বিএনপি

একাদশ সংসদ নির্বাচনে জোট শরিকদের মধ্যে আসন বণ্টন নিয়ে মহাসংকটে ...

গ্রামাঞ্চল পাবে শহরের সুবিধা

গ্রামাঞ্চল পাবে শহরের সুবিধা

গ্রামাঞ্চলকে শহরের সুবিধায় আনতে ব্যাপক পরিকল্পনা রয়েছে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ...

প্রত্যাবাসন আজ শুরু হচ্ছে না

প্রত্যাবাসন আজ শুরু হচ্ছে না

বহুল প্রতীক্ষিত রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া আজ বৃহস্পতিবার শুরু হচ্ছে না। ...

ডায়াবেটিস থেকে শিশুদের রক্ষায় এগিয়ে আসতে হবে

ডায়াবেটিস থেকে শিশুদের রক্ষায় এগিয়ে আসতে হবে

ঘাতক ব্যাধি ডায়াবেটিস থেকে শিশুদের রক্ষা করার আহ্বান জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞ ...

লোকজ সুরে খুঁজে পাই প্রাণের স্পন্দন

লোকজ সুরে খুঁজে পাই প্রাণের স্পন্দন

'লোকগানের কথায় রয়েছে জীবনের দিকনির্দেশনা। এর ঐন্দ্রজালিক সুর অদ্ভুত এক ...

দুর্ধর্ষ এক ভাড়াটে খুনির থানায় যাতায়াত!

দুর্ধর্ষ এক ভাড়াটে খুনির থানায় যাতায়াত!

দক্ষ রাজমিস্ত্রি হিসেবেই মিরপুর, ভাসানটেক ও কাফরুল এলাকার মানুষজন চিনতেন ...

নির্বাচন পেছানোর দাবি নিয়ে বসবে নির্বাচন কমিশন: সচিব

নির্বাচন পেছানোর দাবি নিয়ে বসবে নির্বাচন কমিশন: সচিব

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন পেছাতে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দাবি নিয়ে নির্বাচন ...

ইসির সঙ্গে বৈঠকে নির্বাচন পেছানোর বিরোধিতা আ. লীগের

ইসির সঙ্গে বৈঠকে নির্বাচন পেছানোর বিরোধিতা আ. লীগের

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন আবারও পেছানোর বিরোধিতা করেছে আওয়ামী ...