বিনা পয়সায় কাজ করতে নারাজ তদারক কর্মকর্তারা

প্রকাশ: ১১ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

ঈশ্বরগঞ্জ (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি

তদারক কর্মকর্তারা দায়িত্ব নিতে অস্বীকৃতি জানানোয় ঈশ্বরগঞ্জে চলমান খাদ্যবান্ধব কর্মসূচি পুরোদমে শুরু করা যায়নি। কোনো টিএ/ডিএ না দেওয়ায় তদারক কর্মকর্তারা দায়িত্ব পালন করবেন না বলে ঘোষণা দিয়েছেন। এতে সোমবার বিভিন্ন এলাকায় কার্ডধারীরা চাল নিতে গিয়েও খালি হাতে ফিরে গেছেন।

খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলায় ২৩ হাজার ৫১২ জন কার্ডধারীর তালিকা করা হয়। প্রত্যেক কার্ডধারী ৩০ কেজি করে চাল কেনার সুযোগ পাবেন। উপজেলার ১১টি ইউনিয়নে ৪৫ জন ডিলার নিয়োগ দিয়ে তাদের মাধ্যমে ১০ টাকা কেজি মূল্যে চাল বিতরণ শুরুর কথা ছিল সোমবার। ৪৫ জন চাল বিক্রেতার চাল বিক্রি তদারকির জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার দপ্তর থেকে ৪৫ জন তদারক কর্মকর্তা (ট্যাগ অফিসার) নিয়োগ করা হয়। এর মধ্যে ৪২ জনই ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগের দায়িত্বরত বিভিন্ন কর্মী। বিগত খাদ্যবান্ধব কর্মসূচিতে অফিস আদেশে তদারক কর্মকর্তাদের টিএ/ডিএ সংশ্নিষ্ট দপ্তর থেকে প্রাপ্য হবেন বলে উল্লেখ ছিল। কিন্তু স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মীরা সেই টিএ/ডিএ পাননি। চলতি খাদ্যবান্ধব কর্মসূচিতে একই ধরনের আদেশ জারি হওয়ায় এবং পুরনো প্রাপ্য না পাওয়ায় তদারক কর্মকর্তারা দায়িত্ব পালন না করার ঘোষণা দেন। সোমবার খাদ্যবান্ধব কর্মসূচির আওতায় ১০ টাকা কেজি করে দুস্থ কার্ডধারীদের মাঝে চাল বিক্রির কার্যক্রম শুরুর কথা থাকলেও তা শুরু করা যায়নি। তবে বিশেষ ব্যবস্থায় উপজেলার এক নম্বর সদর ইউনিয়নের জয়বাংলার মোড়ে একটি দোকানে চাল বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা।

বাংলাদেশ স্বাস্থ্য সহকারী অ্যাসোসিয়েশনের ঈশ্বরগঞ্জ শাখার সভাপতি এ.কে.এম আনিছুর রাজ্জাক ভূঁইয়া খোকন বলেন, যাদের তদারক কর্মকর্তা হিসেবে নিয়োগ করা হয়েছে তাদের নিজস্ব দাপ্তরিক কাজ থাকে। সে কাজ ফেলে চাল বিক্রির কার্যক্রম তদারক করতে হয়। বিগত বছরে নিজ নিজ অফিস থেকে টিএ/ডিএ দেওয়ার কথা থাকলেও তারা পাননি। ওই অবস্থায় চলতি কর্মসূচিতে তারা অংশ নিচ্ছেন না।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. জাকিউল ইসলাম বলেন, কর্মীদের বিভিন্ন দায়িত্ব থাকে। তাদের চাল বিক্রির কার্যক্রমে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। সে জন্য টিএ/ডিএ তার দপ্তর থেকে দেওয়ার কথা থাকলেও তিনি কোনো বরাদ্দ না পাওয়ায় তা দিতে পারেননি। ওই অবস্থায় তদারক কর্মকর্তার দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মীরা কর্মসূচিতে অংশ নেয়নি।

উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক এইচ.এম কামরুজ্জামান বলেন, সপ্তাহের সোম, মঙ্গল ও বুধবার চাল বিক্রির কার্যক্রম চলবে। সোমবার চাল বিতরণ কার্যক্রম উদ্বোধন করা হয়েছে। তদারক কর্মকর্তাদের নিয়ে সৃষ্ট সমস্যা সমাধান করা হয়েছে।' ইউএনও এলিশ শরমিন বলেন, সরকারি দায়িত্ব সবাইকে পালন করতে হবে।
ভারতের শ্বাস রুদ্ধ করে ’টাই’ আফগানদের

ভারতের শ্বাস রুদ্ধ করে ’টাই’ আফগানদের

ভারত 'বধ' করেই ফেলেছিল আফগানিস্তান। কিন্তু ম্যাচটা শেষ পর্যন্ত টাই ...

পল্টন-সোহরাওয়ার্দী কোনোটাই পাচ্ছে না বিএনপি

পল্টন-সোহরাওয়ার্দী কোনোটাই পাচ্ছে না বিএনপি

আগামীকাল বৃহস্পতিবার প্রথমে রাজধানীতে জনসভা করার ঘোষণা দিয়েছিল বিএনপি। ওইদিন ...

শীর্ষ চার রুশ ব্লগার বাংলাদেশে

শীর্ষ চার রুশ ব্লগার বাংলাদেশে

বাংলাদেশের পর্যটন সম্ভাবনাকে রাশিয়ার জনগণের সামনে তুলে ধরা এবং দ্বিপক্ষীয় ...

ভূমিহীনের জন্য বরাদ্দ জমিতে বড়লোকের পুকুর

ভূমিহীনের জন্য বরাদ্দ জমিতে বড়লোকের পুকুর

মুক্ত জলাশয়ে মাছ ধরে তা বিক্রি করে সংসার চলতো ভূমিহীন ...

জাতীয় ঐক্যকে চাপে রাখবে আ'লীগ ও ১৪ দলীয় জোট

জাতীয় ঐক্যকে চাপে রাখবে আ'লীগ ও ১৪ দলীয় জোট

শুরুতে স্বাগত জানালেও জাতীয় ঐক্য প্রক্রিয়া গঠন এবং সরকারবিরোধীদের নিয়ে ...

জিততেই হবে আজ

জিততেই হবে আজ

অতীতের ভুল তারা কখনোই স্বীকার করে না। মানতে চায় না ...

প্রশাসনে নির্বাচনী রদবদল

প্রশাসনে নির্বাচনী রদবদল

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে প্রশাসন সাজানোর উদ্যোগ নিয়েছে ...

বিএনপির সমাবেশের পর ঐক্যের লিয়াজো কমিটি

বিএনপির সমাবেশের পর ঐক্যের লিয়াজো কমিটি

আগামী শনিবার বিএনপির সমাবেশের পর 'বৃহত্তর জাতীয় ঐক্যের' লিয়াজো কমিটি ...