আসামি মান্নানের মৃত্যুর তথ্য জানতেন না তদন্ত কর্মকর্তা

ব্লগার অনন্ত বিজয় হত্যা

প্রকাশ: ১৭ মে ২০১৮      

সিলেট ব্যুরো

সিলেটে বিজ্ঞান লেখক ও ব্লগার অনন্ত বিজয় দাশ হত্যা মামলার চার্জশিটভুক্ত অন্যতম আসামি মান্নান ইয়াহিয়া ওরফে মান্নান রাহি ওরফে এবি মান্নান ইয়াইয়া ওরফে ইবনে মঈন ছয় মাস আগেই মারা গেছে। তবে এই মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) পরিদর্শক আরমান আলী এতদিন বিষয়টি জানতেন না।

সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি থাকা অবস্থায় হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ায় মান্নানকে ঢাকায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গত বছরের ২ নভেম্বর মান্নান মারা যাওয়ার একদিন পর স্বজনেরা লাশ এনে  সিলেটের কানাইঘাটের পূর্ব ফালজুরে গ্রামের বাড়িতে দাফন করেন।

গতকাল বুধবার বিকেলে সিআইডি পরিদর্শক আরমান আলী সমকালকে বলেন, আসামি মান্নান কারাগারে ছিল। আজকেই (গতকাল) তার মৃত্যুর বিষয়টি জানতে পারলাম। কারাগার থেকেও আমাকে কেউ মৃত্যুর কথা জানায়নি।

তবে সিলেট মহানগর দায়রা জজ আদালতে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী (পিপি) মফুর আলী জানান, মান্নানের মৃত্যুর বিষয়টি আদালতকে অবহিত করা হয়েছে। এখন অভিযোগ গঠনের সময় তার নাম আসামির তালিকা থেকে বাদ দিয়ে মামলার বিচার শুরু হবে।

মান্নানের বাবা হাফিজ মাঈনুদ্দিন বলেন, মান্নান ইয়াহিয়া প্রায় দুই বছর তিন মাস কারাগারে ছিল। মৃত্যুর পর তার মরদেহ আমরা দাফন করেছি। ২০০৯ সালে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের ভর্তি হলেও মান্নান স্নাতক শেষ করেনি। গ্রেফতারের পর সে ব্লগার অনন্ত বিজয় হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়।

২০১৫ সালের ১২ মে কর্মস্থলে যাওয়ার সময় নগরীর সুবিদবাজারে নিজ বাসা থেকে কয়েকশ' গজ দূরে অনন্ত বিজয়কে কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এ হত্যাকাণ্ডে নোমানের সংশ্নিষ্টতা পাননি তদন্তকারী কর্মকর্তা।

এদিকে কয়েক দফা পেছানোর পর আগামী ৩০ জুন অনন্ত বিজয় হত্যা মামলার আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে। গত সোমবার সিলেট মহানগর দায়রা জজ আদালতে এই মামলার অভিযোগ গঠনের কথা ছিল বলে জানান পিপি অ্যাডভোকেট মফুর আলী। তিনি বলেন, মহানগর দায়রা জজ থেকে মামলাটি অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ আদালতে স্থানান্তর করে অভিযোগ গঠনের নতুন তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।
তিস্তায় 'বরফ' গলছে

তিস্তায় 'বরফ' গলছে

তিস্তার পানিবণ্টন চুক্তি কি আলোর মুখ দেখবে? এ নিয়ে বহুদিন ...

ধর্ষণের অনুসন্ধান ও বিচারে হাইকোর্টের ১৮ দফা নির্দেশনা

ধর্ষণের অনুসন্ধান ও বিচারে হাইকোর্টের ১৮ দফা নির্দেশনা

ধর্ষণের ঘটনার সুষ্ঠু অনুসন্ধান ও বিচার নিশ্চিতে ১৮ দফা নির্দেশনা ...

পরিকল্পনাতেই ঘুরপাক খাচ্ছে শৃঙ্খলা ফেরানোর উদ্যোগ

পরিকল্পনাতেই ঘুরপাক খাচ্ছে শৃঙ্খলা ফেরানোর উদ্যোগ

ঢাকার রাস্তায় প্রাণঘাতী বাসগুলোকে শৃঙ্খলায় আনার উদ্যোগ এখন পর্যন্ত পরিকল্পনাতেই ...

ফ্যাশন এবার ওড়নায়

ফ্যাশন এবার ওড়নায়

শহরজুড়ে বিভিন্ন রঙে সেজেছে বিপণিবিতানগুলো। ক্রেতার কলতানে মুখর সকাল থেকে ...

ওয়াটসনের সেঞ্চুরিতে আইপিএল শিরোপা চেন্নাইয়ের

ওয়াটসনের সেঞ্চুরিতে আইপিএল শিরোপা চেন্নাইয়ের

মুম্বাইয়ের ওয়াংখেড়ে স্টেডিয়ামে সানরাইজার্স হায়দরাবাদকে হারিয়ে আইপিএলের ১১তম আসরের শিরোপা ...

দেশের এ অবস্থা জাতির জন্য হুমকি: ফখরুল

দেশের এ অবস্থা জাতির জন্য হুমকি: ফখরুল

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, আজকে গণতন্ত্রকে যেভাবে ...

সৌদি থেকে ফিরলেন আরও ৪০ নারী

সৌদি থেকে ফিরলেন আরও ৪০ নারী

সৌদি আরবে কর্মক্ষেত্রে নির্যাতনের শিকার আরও ৪০ নারী দেশে ফিরছেন। ...

বিশিষ্টজনের সঙ্গে রাষ্ট্রপতির ইফতার

বিশিষ্টজনের সঙ্গে রাষ্ট্রপতির ইফতার

রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ রোববার বঙ্গভবনে প্রধানমন্ত্রীসহ দেশের বিশিষ্ট নাগরিকদের ...