ঢাবির অনুষ্ঠানে বক্তার

অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের দায়িত্ব নিতে পারেন বিত্তবানরা

প্রকাশ: ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক

অসচ্ছল শিক্ষার্থীদের দায়িত্ব নিতে পারেন বিত্তবানরা

শনিবার মৃত্তিকা, পানি ও পরিবেশ বিভাগ অ্যালামনাইয়ের ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠানে জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক, ঢাকা ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি এ. কে. আজাদসহ অতিথিরা- সমকাল

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে অনেক শিক্ষার্থীই অপরের সাহায্য নিয়ে ভর্তি হয়েছে। পরবর্তীকালে তারা কীভাবে পড়াশোনা চালিয়ে যাবে তা জানে না। বিত্তবানরা বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অনেক টাকাই খরচ করেন। তারা চাইলে অন্তত একজন অসচ্ছল শিক্ষার্থীর পড়াশোনার দায়িত্ব নিতে পারেন।

গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ভবনের অ্যালামনাই ফ্লোরে এক অনুষ্ঠানে বক্তারা এসব কথা বলেন। 'ঈদ পুনর্মিলনী ২০১৮' শীর্ষক এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মৃত্তিকা, পানি ও পরিবেশ বিভাগ অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন (ইডাফস)।

ইডাফসের সভাপতি অ্যাডভোকেট এম কে রহমানের সভাপতিত্বে এবং সাধারণ সম্পাদক আহমেদ পারভেজ শামসুদ্দিনের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক। বিশেষ অতিথি ছিলেন  ঢাকা ইউনিভার্সিটি অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি এ. কে. আজাদ। অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের সচিব আবদুল্লাহ আল মহসিন চৌধুরী, খাদ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব শাহাবুদ্দীন আহমেদ, কৃষি সচিব মঈনুদ্দীন আবদুল্লাহ, ন্যাশনাল টি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবদুল আওয়াল, ডাচ্‌-বাংলা ব্যাংকের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাইদুল হাসান প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে কাজী রিয়াজুল হক ধনবানদের উদ্দেশে বলেন, সমাজে অবহেলিত মানুষদের সন্তানদের মূল স্রোতধারায় নিয়ে আসতে আপনারা কিছু করেন। এতে আপনাদের ভাবমূর্তি আরও উজ্জ্বল হবে।

এ. কে. আজাদ বলেন, আমি ৩৭ বছর আগে এখান থেকে পাস করে বের হয়েছি। অথচ এখানে এলে মনে হয়, আমি যেন সেই সময়ে ফিরে যাই। আমি এই বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের দায়িত্ব পালন করছি তিন বছর ধরে। আগে অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন থেকে বৃত্তি দেওয়া হতো কোনোরকম ইন্টারভিউ ছাড়াই। পরে আমরা ইন্টারভিউ নেওয়া শুরু করি। ইন্টারভিউ বোর্ডে অনেক দরিদ্র মেধাবী ছাত্রের কথা শুনেছি যা আমাদের বেদনাহত করেছে। দেখা যায়, অনেক শিক্ষার্থী কারও সাহায্য নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়েছে। পরবর্তী সময়ে কীভাবে পড়বে তা জানে না। আমরা তখন ৭২৫ শিক্ষার্থীকে বৃত্তি দিই যা অনার্স পর্যন্ত চালু থাকবে। কেননা এক বছর বৃত্তি দিলে সে পরে কী করবে সেটাও আমরা ভেবেছি। তখন তিন হাজার টাকা মাসে বৃত্তি দেওয়া হতো। পরে শিক্ষার্থীদের সঙ্গে কথা বলে এটাকে আড়াই হাজার টাকায় এনে ছাত্রের সংখ্যা বৃদ্ধি করা হয়। বর্তমানে প্রতি বছর পাঁচ কোটি টাকা বৃত্তি দেওয়া হয়।

তিনি বলেন, সমাজের অনেক বিত্তবানই তাদের সন্তানদের জাঁকজমকপূর্ণভাবে বিয়ে দেন। বর্তমানে এক ট্রেন্ড চালু হয়েছে বিয়ের আগে অনুষ্ঠানের। সেখানে অনেক খাবার নষ্ট হয়, যার এক প্লেটের দাম পাঁচ হাজার টাকা। তারা অনুষ্ঠানের জন্য এত টাকা খরচ করেন। তারা চাইলেই একজন দরিদ্র ছাত্রের পড়াশোনার জন্য মাসে আড়াই হাজার টাকা খরচ করতে পারেন। তারা যদি অন্তত একজন ছাত্রের দায়িত্বও নেন আমরা সেটা গ্রহণ করব। এ বিশ্ববিদ্যালয়ের কোনো শিক্ষার্থী টাকার অভাবে ঝরে পড়ূক সেটা আমরা চাই না। এ সময় মৃত্তিকা বিভাগ অ্যালামনাইকে নিজেদের জায়গা থেকে শিক্ষার্থীদের সাহায্য করার আহ্বান জানান তিনি।

টিএসসি অডিটোরিয়ামের বিষয়ে তিনি বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি অডিটোরিয়ামের ছিল বেহাল দশা। আমরা কিছু উদ্যোগ নেওয়ার পর এর অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছে। দ্রুতই এর পরিপূর্ণ সংস্কার শুরু হবে। তখন সেখানে অনুষ্ঠান করতে কোনো সমস্যায় পড়তে হবে না।







'গ্রিন টি'র ঘোষণা দিয়ে ইথিওপিয়া থেকে আনা ২০৮ কেজি খাথ জব্দ

'গ্রিন টি'র ঘোষণা দিয়ে ইথিওপিয়া থেকে আনা ২০৮ কেজি খাথ জব্দ

চট্টগ্রামে 'গ্রিন টি' হিসেবে ঘোষণা দিয়ে বাংলাদেশে আনা নতুন ধরনের ...

সরকারের জুলুমে দেশের মানুষ দিশেহারা: ফখরুল

সরকারের জুলুমে দেশের মানুষ দিশেহারা: ফখরুল

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর অভিযোগ করে বলেছেন, আওয়ামী ...

সেই দুই কিশোরীর লাশের পরিচয় মিলেছে

সেই দুই কিশোরীর লাশের পরিচয় মিলেছে

সাভারের আশুলিয়া ব্রিজ সংলগ্ন তুরাগ নদ থেকে বুধবার উদ্ধার করা ...

ভোট ছাড়া ক্ষমতায় থাকার চেষ্টা করবেন না: কাদের সিদ্দিকী

ভোট ছাড়া ক্ষমতায় থাকার চেষ্টা করবেন না: কাদের সিদ্দিকী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্দেশ্যে কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের সভাপতি বঙ্গবীর ...

প্রথমবার কলকাতার ছবিতে কোনালের গান

প্রথমবার কলকাতার ছবিতে কোনালের গান

ঢাকাই মিউজিক ইন্ডাষ্ট্রির জনপ্রিয় শিল্পী সোমনুর মনির কোনাল। এ প্রজন্মের ...

আদিবাসী কোটা বহাল রাখার দাবি

আদিবাসী কোটা বহাল রাখার দাবি

সরকারি চাকরিতে প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণিসহ সকল নিয়োগে ৫% আদিবাসী ...

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে জাতিসংঘে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব দেবেন প্রধানমন্ত্রী

রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে জাতিসংঘে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব দেবেন প্রধানমন্ত্রী

জাতিসংঘের এবারের সাধারণ অধিবেশনেও রোহিঙ্গা সংকট সমাধানে সুনির্দিষ্ট প্রস্তাব তুলে ধরবেন ...

ডিজিটাল পাঠ্যবই যুগের সূচনা

ডিজিটাল পাঠ্যবই যুগের সূচনা

অডিও, ভিডিও, টেক্সট এবং এনিমেশন সমৃদ্ধ ডিজিটাল পাঠ্যবইয়ের যুগে প্রবেশ ...