চা বাগানের ভূমি আত্মসাৎ মামলা

রাগীব আলী ছেলেসহ আবার কারাগারে

প্রকাশ: ১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

সিলেট ব্যুরো

সিলেটের তারাপুর চা বাগানের ভূমি আত্মসাৎ ও মন্ত্রণালয়ের স্মারক জালিয়াতি মামলায় সাজাপ্রাপ্ত বিতর্কিত শিল্পপতি রাগীব আলী ও তার ছেলে আবদুল হাইকে আবারও কারাগারে পাঠানো হয়েছে। গতকাল সিলেটের অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতের বিচারক মোহাম্মদ মোস্তাইন বিল্লাহ তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন বলে জানিয়েছেন জেলা জজ আদালতের অতিরিক্ত পিপি অ্যাডভোকেট শামিম আহমদ।

অতিরিক্ত পিপি জানান, ভূমি আত্মসাৎ এবং জালিয়াতির একটি মামলায় রাগীব আলী ও তার ছেলে আবদুল হাইয়ের জামিনের আবেদন করা হয়েছিল। শুনানি শেষে আদালত তাদের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

গত বছরের ৬ এপ্রিল তৎকালীন সিলেটের মুখ্য মহানগর হাকিম সাইফুজ্জামান হিরো চা বাগানের দেবোত্তর সম্পত্তিতে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করে হাজার কোটি টাকার ভূমি আত্মসাতের মামলায় রাগীব আলীকে ১৪ বছরের কারাদণ্ড দেন। একই মামলায় তার ছেলে আবদুল হাই, মেয়ে রুজিনা কাদির, জামাতা আবদুল কাদির ও আত্মীয় দেওয়ান মোস্তাক মজিদকে চার ধারায় মোট ১৬ বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। এ ছাড়া তারাপুর চা বাগানের ভূমি আত্মসাতের উদ্দেশ্যে মন্ত্রণালয়ের স্মারক জালিয়াতি মামলায় ২০১৭ সালের ২ ফেব্রুয়ারি রাগীব আলী ও তার ছেলেকে ১৪ বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়। তারা দু'জন বছরখানেক জেলও খাটেন। জামিনে মুক্ত হয়ে তারা এ রায়ের বিরুদ্ধে জজ আদালতে আপিল করেন। গত ৯ আগস্ট নিম্ন আদালতের দেওয়া ১৪ বছরের সাজা বহাল রাখেন আদালত। পাশাপাশি তাদের ১৭ সেপ্টেম্বরের মধ্যে নিম্ন আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হয়। তবে এর আগেই গতকাল ছেলেসহ রাগীব আলী আদালতে হাজির হয়ে জামিন আবেদন করলে আদালত তা নামঞ্জুর করে তাদের কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

১৯৯৯ সালে ভূমি মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটি রাগীব আলীর বিরুদ্ধে তদন্ত শুরু করে। ২০০৫ সালের ২৭ সেপ্টেম্বর ভূমি মন্ত্রণালয়ের স্মারকপত্র জালিয়াতির অভিযোগে কোতোয়ালি থানায় মামলা করেন তৎকালীন ভূমি কমিশনার (এসি ল্যান্ড) এস এম আবদুল কাদের। সরকারের এক হাজার কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে আরেকটি মামলাও করেন তিনি।
সাগরিকায় আজ সিরিজ জয়ের ম্যাচ

সাগরিকায় আজ সিরিজ জয়ের ম্যাচ

জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে সর্বশেষ ওয়ানডে অনুষ্ঠিত হয়েছিল দুই বছর ...

নির্বাচন বানচালের জন্যই ৭ দফা ও সংলাপের দাবি

নির্বাচন বানচালের জন্যই ৭ দফা ও সংলাপের দাবি

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ...

৪১৭ জনের বিরুদ্ধে দুদক চার্জশিট দিচ্ছে

৪১৭ জনের বিরুদ্ধে দুদক চার্জশিট দিচ্ছে

আগ্নেয়াস্ত্রের ভুয়া লাইসেন্স দেওয়া-নেওয়ার অভিযোগে ৪১৭ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দিচ্ছে ...

তফসিলের আগেই সংলাপে বসার আহ্বান জানাবে ঐক্যফ্রন্ট

তফসিলের আগেই সংলাপে বসার আহ্বান জানাবে ঐক্যফ্রন্ট

অবশেষে আজ বুধবার সিলেটে জনসভা করছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। একাদশ জাতীয় ...

আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর দিকেই যত অভিযোগ

আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর দিকেই যত অভিযোগ

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে মহাসড়কের পাশ থেকে চার যুবকের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধারের ...

অতিথি পাখিতে এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জার আশঙ্কা

অতিথি পাখিতে এভিয়ান ইনফ্লুয়েঞ্জার আশঙ্কা

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ বলেছেন, ...

এক মঞ্চে রংপুরের ১৬২ রাজনৈতিক নেতা

এক মঞ্চে রংপুরের ১৬২ রাজনৈতিক নেতা

একই মঞ্চে শান্তিপূর্ণ ও অহিংস নির্বাচনের শপথ নিয়েছেন রংপুর বিভাগের ...

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান, ফার্মাসিউটিক্যালস সিলগালা

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভ্রাম্যমাণ আদালতের অভিযান, ফার্মাসিউটিক্যালস সিলগালা

সাভারের নবীনগর এলাকার মির্জানগরে অবস্থিত গণস্বাস্থ্য সমাজ ভিত্তিক মেডিকেল কলেজ ...