ফ্যাশন

বাহারি পাঞ্জাবি...

প্রকাশ: ০৯ জুলাই ২০১৪      

ঈদ মানেই পাঞ্জাবি। সফেদ বাহারে নয়, বরং রঙ খেলানো এবং আরামদায়ক। সিজনটাই এমন। এই ঈদে সব রকম পাঞ্জাবি নিয়ে লিখেছেন আল কেমি

ধর্মীয়, সংস্কৃতিক কিংবা বিয়ের উৎসবই হোক, বাঙালি পোশাকের অন্যতম জায়গা দখল করে আছে পাঞ্জাবি। আর ঈদ এলে তো নতুন পাঞ্জাবি চাই-ই চাই। যুগে যুগে ছোট-বড় সবার ঈদের মূল পোশাকের জায়গায় উঠে এসেছে রকমারি ডিজাইনের পাঞ্জাবির নাম। ঈদে নামাজ পড়তে যেমন প্রয়োজন হয় একটি ঝকঝকে নতুন পাঞ্জাবির, তেমনি বিভিন্ন জায়গায় দাওয়াতে যেতে বা ঘোরাঘুরি করতেও পাঞ্জাবির জুড়ি নেই। তার ওপর বাঙালির ঐতিহ্য বলে কথা। আর তাই ঈদকে সামনে রেখে বিভিন্ন ফ্যাশন হাউসও সেজেছে নতুন ডিজাইনের সব পাঞ্জাবির সাজে। ভিন্ন ভিন্ন ডিজাইনের পাঞ্জাবির কোয়ালিটি ভেদে দেখা যায় বিভিন্ন দরদামও। বাজার ঘুরে আর দেশসেরা কিছু ফ্যাশন ডিজাইনারের সঙ্গে কথা বলে জানা গেল নতুন কী পাঞ্জবি আসছে এবারের ঈদে।
আসন্ন ঈদে পাঞ্জাবির ট্রেন্ড নিয়ে কথা বলেছেন দেশের সমৃদ্ধ ব্র্যান্ড 'লুবনান'-এর প্রধান ডিজাইনার 'নাইমুল হক খান। তার চোখে এবারের ঈদের পাঞ্জাবি থাকবে তিন ফরমেটেই। ফরমাল, স্লিম আর শর্ট_ এই তিন ধরনের পাঞ্জাবির মধ্যে আসবে কিছু নতুনত্ব। আর এই তিনটির বাইরে থাকবে এক্সিকিউটিভ পাঞ্জাবি, যেটাকে শর্ট পাঞ্জাবিরই একটু আপডেট ভার্সন বলা যায়। এ ধরনের পাঞ্জাবি শর্ট পাঞ্জাবি থেকে লম্বায় একটু বড় হবে। কিন্তু ফরমালের মতো বেশি নয়। ঈদে সাধারণত বেশিরভাগ মানুষই একটু গাঢ় রঙের দিকে ঝোঁকে অথবা কেউ বেছে নেয় সাদা। পাঞ্জাবির মূল নতুনত্ব থাকবে এর বেসিক ডিজাইনে। থাকবে প্রিন্টের মধ্যেই চোখ ধাঁধানো আর জমকালো ডিজাইন। প্রিন্টের ডিজাইনগুলো ফোকাসিংয়ের মূল জায়গা দখল করে থাকবে কিছু কলার আর বোতামের নতুনত্ব নিয়ে। প্রিন্ট বাদে অন্য কাজ তো থাকবেই।
নিত্য উপহারের বাহার বলেন, ঈদের জন্য আমরা কাঠের কাজ করা কিছু পাঞ্জাবি করেছি। কারণ পাঞ্জাবিতে বৈচিত্র আনার জন্য যেই ফেব্রিক্স প্রয়োজন, তার এখনো ঘাটতি আছে এই দেশে। বয়নের বৈচিত্রে সামনে আরো ভালো পাঞ্জাবি হবে বলে আশা করাই যায়।
আসন্ন ঈদের পাঞ্জাবির বাজারের বড় দখল দেখা যায় প্রিন্টেড পাঞ্জাবিতে। পাঞ্জাবির ওপর বিভিন্ন ধরনের প্রিন্টের দেখা যায় দারুণ সব ডিজাইন। ডিজাইনের সঙ্গে আছে প্রিন্টেরও ভিন্নতা। রকমারি এসব প্রিন্ট দিয়ে পাঞ্জাবিগুলো এবার সাজানো হয়েছে ভিন্ন ভিন্ন পছন্দের আর ভিন্ন বয়সীদের জন্যও।
স্ক্রিন প্রিন্ট : ঈদে পাঞ্জাবিতে এবার দেখা যাবে দারুণ নকশার স্ক্রিন প্রিন্টেড পাঞ্জাবি। পাখি, পাতা লেখাসহ বিভিন্ন ডিজাইনের স্ক্রিন প্রিন্টের সঙ্গে থাকবে অসাধারণ কিছু জিওমেট্রিক প্রিন্টও। দেশীদশে দেখা যায় আদিম সংস্কৃতি আর সভ্যতা নিয়ে কিছু ছিমছাম ধাঁচের প্রিন্ট। এ ছাড়া আড়ং, যাত্রা, লুবনান বা অন্যান্য ফ্যাশন হাউসেও পাওয়া যাবে বিভিন্ন ডিজাইনের স্ক্রিন প্রিন্টেড ঈদ কালেকশন। এসব পাঞ্জাবির প্রায় সব ডিজাইনই দেখা যাবে কটন ফেব্রিকের মধ্যে। যেগুলোর দাম পড়বে ৭০০ থেকে ৩০০০ টাকার মতো।
বল্গক প্রিন্ট : একটা সুন্দর ডিজাইনের স্ক্রিন প্রিন্ট যেমন বদলে দেয় সম্পূর্ণ ফেব্রিকের চেহারা তেমনি বল্গক প্রিন্টেও ফুটে ওঠে দারুণ সব ডিজাইন। বল্গক প্রিন্টেও আছে স্ক্রিন প্রিন্টের মতো অসাধারণ আর্টিফিসিয়াল লুক। বল্গক প্রিন্টগুলো বেশিরভাগই জিওমেট্রিক ডিজাইনের হয়ে থাকে। কিন্তু কিছু জায়গায় দেখা যাবে ভিন্নতাও। বল্গক প্রিন্টে ফুটে উঠবে ময়ূর, ফুলের মতো নকশা। বল্গক প্রিন্টে পাওয়া যায় শতভাগ বাঙালিয়ানা। ঈদ উৎসবে যা ফ্যাশন লুকে রাখবে অসামান্য ভূমিকা। আছে রঙেরও রকমারি। বল্গক প্রিন্টেড পাঞ্জাবি দেখা যাবে বেশিরভার ফ্যাশন হাউসেই। আর কিছু শোরুমে বল্গকের পাঞ্জাবি পাবেন ফ্যামিলি প্যাকেজেও। দরদাম পড়বে ৭০০ থেকে ৩০০০ টাকা।
প্রিন্ট আর কাজ :স্ক্রিন প্রিন্ট বা বল্গক প্রিন্টই হোক, এবারের ঈদে পাঞ্জাবির ডিজাইনে দেখা যাবে প্রিন্টের সঙ্গে অন্য কাজের কম্বিনেশন। কিছু স্ক্রিন প্রিন্টের সঙ্গে দেখা যাবে অসাধারণ হাতের কাজ আর এমব্রয়ডারির নকশা। কারচুপির মধ্যেও পাওয়া যাবে প্রিন্টেড ডিজাইন। আর এবারের ঈদে আনকমন পাঞ্জাবির মধ্যে নাম থাকবে এই পাঞ্জাবিগুলোরও। লুবনানসহ কিছু শোরুমে সিল্ক আর এন্ডি সিল্কের ওপরে পাবেন এমন ডিজাইন। পেতে পারেন সুতিতেও এ রকম কিছু কাজ। তবে সিল্কেরগুলোই হবে বেশি জমকালো। দাম পড়তে পারে ১৫০০ থেকে ৭০০০ টাকা।
অন্যান্য : কেউ প্রিন্টেড ছাড়া নিতে চাইলেও পাবেন কিছু ঈদ স্পেশাল ডিজাইন। বরাবরের মতোই একদমই কোনো কাজ ছাড়া ঈদের বাজারে পাবেন কুর্তা টাইপের কিছু পাঞ্জাবি। কুর্তাগুলো সাধারণত সুতি কাপড়ের আর লম্বায় একটু শর্ট হয়ে থাকে। আড়ং, দেশালসহ দেশীদশের কয়েকটা শোরুমে পাবেন কুর্তা পাঞ্জাবি। আছে যাত্রা, স্বদেশীতেও। এগুলোর ডিজাইন মূলত কলার, রঙ আর বোতামের ওপর বেশি হেরফের হয়ে থাকে। পরতে আরামদায়ক কুর্তাগুলো খুব একটা জমকালো টাইপের না হলেও দামদর পড়বে বেশ কমই। বিভিন্ন জায়গায় এগুলো পাবেন ৫০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যেই। প্রিন্ট ছাড়া কেউ একটু গরজিয়াস টাইপের পাঞ্জাবি কিনতে চাইলে নিতে পারেন সিল্কের পাঞ্জাবি। সিল্কের ওপর কাজ পাওয়া যাবে এমব্রয়ডারি, কারচুপি বা হাতে করা। রঙ আর কাটিংয়ের পাশাপাশি পেয়ে যাবেন কলারেরও নানান ঢক।
সবার জন্য প্রিয়াঙ্গন : রাজধানীর এলিফ্যান্ট রোড সংলগ্ন প্রিয়াঙ্গন মার্কেট মানেই পাঞ্জাবির হাট। দেশি, ইন্ডিয়ান নানা ডিজাইনের সব পাঞ্জাবি পাওয়া যাবে সেখানে। প্রিন্টেড পাঞ্জাবি অনেকটা কম থাকলেও সেখানে দেখা মেলে প্রচুর এমব্রয়ডারি আর লেইসের কাজ। লেইসে সাজানো ঝকঝকে পাঞ্জাবি নিতে চাইলে এ মার্কেটেই পাবেন তা হরেক রকম। দেশির পাশাপাশি পাবেন শেরওয়ানি কলার আর কম কাজের কিছু ইন্ডিয়ান পাঞ্জাবি। ৫০০ থেকে ১২০০ টাকার মধ্যে দেশীয়গুলো পাওয়া গেলেও ইন্ডিয়ানে গুনতে হবে ১২০০ থেকে ২৫০০ টাকা।

পরবর্তী খবর পড়ুন : বাংলা

 ফিলিপাইন নয়, অভিযান বাংলাদেশ মডেলে

ফিলিপাইন নয়, অভিযান বাংলাদেশ মডেলে

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, ফিলিপাইন বা অন্য কোনো দেশের ...

 স্বল্প সময়ে নানা জরুরি প্রসঙ্গে আলোচনা হবে

স্বল্প সময়ে নানা জরুরি প্রসঙ্গে আলোচনা হবে

শান্তিনিকেতনে আজ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ...

 ১৯৮ ভবনের দিকে অভিযোগের তীর

১৯৮ ভবনের দিকে অভিযোগের তীর

গুলিস্তানের ফুলবাড়িয়ায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) সুন্দরবন স্কয়ার মার্কেটের ...

নজরুল জয়ন্তী আজ

নজরুল জয়ন্তী আজ

বাংলা সাহিত্যাকাশে তার আবির্ভাবকে বলা যায় অগ্নিবীণা হাতে ধূমকেতুর মতো ...

আগারগাঁওয়ে পাসপোর্ট করতে এসে দালালসহ ধরা রোহিঙ্গা নারী

আগারগাঁওয়ে পাসপোর্ট করতে এসে দালালসহ ধরা রোহিঙ্গা নারী

পাসপোর্ট করার জন্য রাজধানীর আগারগাঁও পাসপোর্ট অফিসে এসে দালালসহ ধরা ...

খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের আদেশ রোববার

খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের আদেশ রোববার

কুমিল্লার এক হত্যা মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার হাইকোর্টে জামিন ...

রোহিঙ্গা শিশুদের নিজের সন্তানের মতো দেখুন: প্রিয়াঙ্কা

রোহিঙ্গা শিশুদের নিজের সন্তানের মতো দেখুন: প্রিয়াঙ্কা

কক্সবাজারের শরণার্থী ক্যাম্পগুলোতে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গা নারী ও শিশুদের সব ...

মিয়ানমারের বিরুদ্ধে অবরোধের সুপারিশ কানাডার দূতের

মিয়ানমারের বিরুদ্ধে অবরোধের সুপারিশ কানাডার দূতের

রোহিঙ্গা সংকটের স্থায়ী সমাধান নিশ্চিত করতে মিয়ানমারের ওপর অর্থনৈতিক অবরোধ ...