সেন্টমার্টিনের নীলে

প্রকাশ: ১৬ মে ২০১৮      

দ্বীপের সেতুতে মানুষের ঢল দেখে মনে পড়ে ঈদ যাত্রার বাসস্টেশন বা রেলওয়ে স্টেশনের দৃশ্য। যেন মানুষের ঢল নেমেছে সেন্টমার্টিনে। ঘুরে এসে লিখেছেন মিনহাজুল ইসলাম জায়েদ

ঠিক ৬টায় এসে হাজির কক্সবাজার-টেকনাফ শাটল লাইনের বাস। অন্যান্য যাত্রীকে নিয়ে বাস শহর ছাড়ে আরও ঘণ্টা খানেক পর। প্রায় পৌনে দুই ঘণ্টা পর আমরা পৌঁছলাম টেকনাফ লঞ্চঘাটে। পথিমধ্যে ট্যুর গাইড আবদুর রেজাক গাড়িতে বসে দেখালেন বেশ কিছু রোহিঙ্গা ক্যাম্প। আগত রোহিঙ্গা শরণার্থীদের কেউ কেউ ক্যাম্প ছেড়ে স্থানীয়দের মাঝে মিশে গেছে বলে তথ্য দেন। দু'একজন আবার নানা অপরাধে জড়িয়েছে বলেও জানান।

সাড়ে ৯টায় ছাড়ল লঞ্চ, আমাদের আসন খুঁজে পেলাম তৃতীয় তলার শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কক্ষে। নিচতলা ও দ্বিতীয় তলা লোকে লোকারণ্য হলেও তৃতীয় তলার বেশ কিছু আসন শূন্য পড়ে আছে। পাশের টেবিলেই খুঁজে পেলাম এক বিদেশিকে। নিজ থেকেই তার পরিচয় জানতে চাই। যুক্তরাষ্ট্রের ওহাইওর বাসিন্দা অ্যালেক্সজান্ডার জানান, নেপাল থেকে বাংলাদেশে এসেছেন। সেন্টমার্টিনে এক রাত থেকে দিবা-রাত্রির সৌন্দর্য উপভোগ করতে চান। আমাদের টেবিলেই সস্ত্রীক আসন নেন নোয়াখালীর কামাল উদ্দিন। পারস্পরিক কুশলাদি বিনিময় করে চা-চক্র শেষেই লঞ্চের পেছনে দাঁড়িয়ে উড়ে চলা গাঙচিল আর প্রাকৃতিক পরিবেশের ছবি তোলা শুরু করেন মোবাইল ক্যামেরায়। অসাবধানবশত নদীতে পড়ে যায় তার ফোনটি। যাত্রার শুরুতেই মোবাইল ফোন হারিয়ে বেশ মুষড়ে পড়েন স্বামী-স্ত্রী। নিচে নেমে তো চক্ষু চড়কগাছ। রংপুর কমিউনিটি মেডিকেল কলেজ থেকে এসেছে ৯১ জনের বিশাল এক দল। দ্বিতীয় তলার হাঁটাপথের পুরোটাই তাদের দখলে। নামতে হলো নিচতলায়। ক্যাপ্টেনের সামনের অংশ দখল করে রেখেছেন চট্টগ্রামের ক্রিস্টাল শিপার্স লিমিটেড কোম্পানির কর্মকর্তা-কর্মচারীরা। নেচে-গেয়ে চারদিক মাতিয়ে তুলেছেন। কোনো রকমে এক কোনায় দাঁড়িয়ে সমুদ্রের উন্মাতাল নৃত্য আর তাদের নাচ-গান দেখছিলাম। আমাদের অসহায়ত্ব দেখে এগিয়ে এলেন কোম্পানির কর্মকর্তা শাহজাহান আলম। নিচতলা থেকে ক্যাপ্টেনের কাছে আসার সিঁড়ির ওপরের দিকের দুটি আসন ছেড়ে দেন।

নদী আর সমুদ্রের বুকে দুলতে দুলতে প্রায় আড়াই ঘণ্টা পর জাহাজ ভিড়ল সেন্টমার্টিন দ্বীপে। দ্বীপের সেতুতে অগণিত মানুষের সারি দেখে মনে পড়ে ঈদ যাত্রার বাসস্টেশন বা রেলওয়ে স্টেশনের দৃশ্য। যেন মানুষের ঢল নেমেছে সেন্টমার্টিনে।

জাহাজ থেকে নামতেই ছোটখাটো গড়নের এক কিশোরকে গাইড হিসেবে সঙ্গী করে দেন আবদুর রেজাক। পুরো সেন্টমার্টিন আমাদের ঘুরে দেখাবে। বিনিময়ে খুশি মনে যা দেব তাতেই হবে। আলাপান্তে জানা গেল, অষ্টম শ্রেণিপড়ূয়া কিশোরের নাম সাইফুল ইসলাম। পিতৃহীন অভাবের সংসার চালাতে তাকে এ পেশা বেছে নিতে হয়েছে। পর্যটন মৌসুমে স্কুলে তেমন যাওয়া হয় না। শিক্ষার চেয়ে ক্ষুধার তাড়না যে মুখ্য।

পুরো দ্বীপকে স্থানীয়রা আবার চারটি নামে পৃথক অস্তিত্ব তৈরি করেছে। ব্রিজ থেকে নেমেই দ্বীপের যে অংশ দেখা যায় স্থানীয়রা এর নামকরণ করেছে বিচ। প্রথমবার শেষ বিকেলে গিয়েছিলাম বিধায় এ অংশেই অনেক প্রবাল দেখা হয়েছিল। এবার জোয়ার থাকায় প্রবালের দেখা মেলেনি। পানিতে নোঙর করা জেলে নৌকা আর বহমান নীল জলরাশির ছবি তুলেই শেষ হলো ঘোরাঘুরি। তেমন লোকজনের আনাগোনা পাওয়া যায়নি। জাহাজ থামার আগেই ক্যাপ্টেন লাল নিশানা টানানো জায়গায় না যেতে সতর্ক করে দেন। পথ চলতে গিয়ে বেশ কয়েক জায়গায় দেখা গেল লাল নিশানা টানিয়ে চোরাবালির বিপদ সংকেত জানানো হয়েছে। সাইফুল জানায়, কিছুদিন আগে ফুটবল খেলতে গিয়ে এমনই এক চোরাবালিতে তলিয়ে যায় তরুণ এক দর্শনার্থী।

বিচ এলাকা ছেড়ে আমরা এগিয়ে গেলাম নারিকেল বাগান এলাকায়। অসংখ্য নারিকেল গাছ থাকায় স্থানীয়রা এমন নামকরণ করেছে। নারিকেল বাগানের গোড়ায় স্তূপাকার পাথরে দাঁড়িয়ে স্মৃতিকে ক্যামেরাবন্দি করে নেন অনেকেই। মোবাইল ফোনে নিজেরা ছবি তুললেও আমাদের হয়ে ক্যামেরাম্যানের কাজ করে সাইফুল। পর্যটকদের সঙ্গ দিতে দিতে ক্যামেরা চালানোর হাতটাও বেশ পাকিয়ে নিয়েছে।

নারিকেল বাগানের পরেই দারুচিনি দ্বীপের অবস্থান। প্রয়াত কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদ তার 'দারুচিনি দ্বীপ' ছবির শুটিং এখানে করেছিলেন বলেই এ স্থানটির এমন নামকরণ। এদিকটায় পানি বেশ নিচে থাকায় বেশ কিছু ভাসমান প্রবাল দেখা যায়। সেই প্রবালের ওপর দাঁড়িয়ে এ পথে চলা প্রায় সবাইকেই ছবি তুলতে ব্যস্ত পাওয়া গেল।

দারুচিনি দ্বীপ থেকে কিছুটা এগিয়ে গেলেই পাওয়া যায় মূল সৈকত। প্রবাল না থাকায় পুরো দ্বীপের এখানটাতে সৈকতের আমেজ পাওয়া যায়। পর্যটকরা অনায়াসে সমুদ্র স্নান সারেন। এখানে মানুষের উপস্থিতিও সর্বাধিক। সৈকতের ঠিক ওপরেই হুমায়ূন আহমেদের বিখ্যাত 'সমুদ্র বিলাস'। ছবির শুটিং করতে এসে তিনি তৈরি করেছিলেন 'সমুদ্র বিলাস'। এখন নির্দিষ্ট ভাড়ায় এখানে থাকার সুযোগ পান আগন্তুকরা। এখন এটি সেন্টমার্টিনের অন্যতম দর্শনীয় স্থাপনা। সমুদ্রের সামনের 'সমুদ্র বিলাস'কে সাক্ষী রেখে ছবি তুলতে মানুষের জটলা দেখা গেল। পাঁচ বছর আগের ভ্রমণেও 'সমুদ্র বিলাস' নিয়ে পর্যটকদের এমন উচ্ছ্বাস চোখে পড়েছিল। 'সমুদ্র বিলাস'-এর কাছেই শুঁটকি পল্লী। তবে দামটা বেশ চড়া মনে হলো। এক বিক্রেতা জানান, কোনো ধরনের রাসায়নিক ছাড়া প্রাকৃতিক উপায়ে শুঁটকি প্রক্রিয়াকরণ হয় বলেই দামটা একটু বেশি।

জাহাজঘাটে ফিরে সাইফুলের মতো আরও কয়েক কিশোরের দেখা পেলাম। সাইফুল জানায়, তার মতো এরাও শুস্ক মৌসুমে পর্যটকদের গাইডের কাজ করে জীবন চালায়। অভাবের তাড়নায় অনেকেই এরই মাঝে স্কুলকে বিদায় জানিয়েছে। তার মতো কেউ কেউ আবার পড়াশোনায় থেকেও স্কুলে নেই।

আমাদের মতো স্বল্প সময়ের অতিথিদের জন্য সেন্টমার্টিন এক আনন্দ কানন। কিন্তু স্থানীয়দের কাছে এটি এক বিচ্ছিন্ন জনপদ। সভ্যতার এ যুগেও বৈদ্যুতিক সুবিধা থেকে বঞ্চিত তারা। জীবনের অনেক মৌলিক চাহিদা থেকেও বঞ্চিত। প্রকৃতির সঙ্গে লড়াই করে বেঁচে থাকার সংগ্রামে সদা ব্যস্ত দরিদ্র এই দ্বীপবাসী। কবে সভ্যতার আলোয় আলোকিত হবে- এ স্বপ্ন দেখতে দেখতেই সময় বয়ে যায় তাদের। বিশ্বের একমাত্র এই প্রবাল দ্বীপ নিয়ে আমাদের পর্যটন খাত যেভাবে ঘুরে দাঁড়াতে পারত, সেন্টমার্টিনে সে অবকাঠামোগত ব্যবস্থা গড়ে ওঠেনি। পরিবেশের ভারসাম্যের দোহাই দিয়ে সরকারিভাবে উচ্চতর ভবন নির্মাণের নিষেধাজ্ঞা দেওয়া আছে। আর এ সুযোগে অপরিকল্পিত অনেক হোটেল-রেস্তোরাঁ তৈরি করে নষ্ট করা হচ্ছে নৈসর্গিক সৌন্দর্য।



ছবি : মমতাজ সিদ্দিকা ফারহানা
গ্রিজুর গোলে জার্মানিকে হারাল চ্যাম্পিয়নরা

গ্রিজুর গোলে জার্মানিকে হারাল চ্যাম্পিয়নরা

জার্মানির চেনা ছন্দে ফেরার জন্য নতুন চিন্তা সম্পন্ন একটা মাথা ...

শেষের গোলে আর্জেন্টিনাকে হারাল ব্রাজিল

শেষের গোলে আর্জেন্টিনাকে হারাল ব্রাজিল

ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার ম্যাচটি ছিল অনেকটা সৌদির আবহাওয়ার মতো। দিনের বেলায় মরুর ...

বিয়ের আয়োজন করতে গিয়ে ধরা

বিয়ের আয়োজন করতে গিয়ে ধরা

বছরখানেক আগে খাদিজা নামে এক নারী জঙ্গিকে গ্রেফতার করেছিল র‌্যাব। ...

উপকূলের 'রক্ষা দেয়াল' কেটে নিচ্ছে দুর্বৃত্তরা

উপকূলের 'রক্ষা দেয়াল' কেটে নিচ্ছে দুর্বৃত্তরা

কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের সৈকতের পাড়ে দৃষ্টিনন্দন ঝাউবনের গাছগুলো কেটে ...

বিএনপির দুর্গে মরিয়া আওয়ামী লীগ

বিএনপির দুর্গে মরিয়া আওয়ামী লীগ

বিএনপির দুর্গ হিসেবে পরিচিত চট্টগ্রাম। এখন সেই দুর্গ আগলে রাখতে ...

বন্ধ হচ্ছে একের পর এক পোশাক কারখানা

বন্ধ হচ্ছে একের পর এক পোশাক কারখানা

মাত্র ৩ কোটি টাকা বিনিয়োগের ছোট কারখানা থ্রি এস ইন্টারন্যাশনাল। ...

রিয়াদ পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

রিয়াদ পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সৌদি বাদশাহ এবং দুটি পবিত্র মসজিদের খাদেম ...

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধনে সরকারকে নোটিশ

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধনে সরকারকে নোটিশ

সদ্য পাশ হওয়া ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের নয়টি ধারা আগামী ৩০ ...