১৯৭১ টাঙ্গাইল :পাকিস্তানিদের আত্মসমর্পণ

প্রকাশ: ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৮      

টাঙ্গাইল ও পাশের তিনটি জেলা ঢাকা, ময়মনসিংহ ও পাবনার কিছু অংশসহ বিস্তীর্ণ এলাকায় কাদেরিয়া বাহিনীর মুক্তিযোদ্ধারা একের পর এক আঘাত হেনে পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীকে পর্যুদস্ত করে ফেলে। স্বাধীনতা যুদ্ধের ৯ মাসে দেশের ভেতরে থেকেই গেরিলা কমান্ডার কাদের সিদ্দিকী গড়ে তোলেন ১৭ হাজার নিয়মিত যোদ্ধা ও ৭০ হাজার স্বেচ্ছাসেবক দলের বিশাল বাহিনী।

২৫ মার্চ '৭১ ঢাকায় পাকিস্তানি বাহিনী নির্বিচারে বাঙালিদের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়লে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বাংলাদেশের স্বাধীনতা ঘোষণা করেন। ২৬ মার্চ টাঙ্গাইলে এক সর্বদলীয় সভায় গঠিত হয় টাঙ্গাইল জেলা 'স্বাধীন বাংলা গণমুক্তি পরিষদ'। পরিষদ সশস্ত্র গণবাহিনীর সর্বাধিনায়কের দায়িত্ব অর্পণ করে তৎকালীন প্রাদেশিক পরিষদ সদস্য আবদুল লতিফ সিদ্দিকীকে। এর পরদিন অর্থাৎ ২৭ মার্চ ভোরবেলায় সার্কিট হাউস অভিযানের মাধ্যমে কাদের সিদ্দিকীর নেতৃত্বে জয় বাংলা বাহিনীর প্রথম মুক্তিযুদ্ধ শুরু হয়ে যায়। টাঙ্গাইল সার্কিট হাউসে বেঙ্গল রেজিমেন্টের ১৫০ জনের একটি কোম্পানি অবস্থান করছিল। সেখানকার দু'জন পাঞ্জাবি অফিসার বাদে সবাই বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করেন।

পাকিস্তানি বাহিনী ১৯ এপ্রিল টাঙ্গাইল হয়ে ময়মনসিংহের দিকে অগ্রসর হয়। সংগ্রাম পরিষদ নেতা লতিফ সিদ্দিকী জামালপুর থেকে পুনরায় ইপিআরের একটি দল এনে কালিহাতী ব্রিজের উত্তর পারে প্রতিরোধ গড়ে তোলেন। প্রবল যুদ্ধের পর ইপিআর বাহিনী ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়। এই যুদ্ধে একজন মেজরসহ শতাধিক পাকিস্তানি সেনা নিহত হয়। ১১ জন মুক্তিযোদ্ধাও শাহাদাতবরণ করেন।

৯ ডিসেম্বর সন্ধ্যার মধ্যে মধুপুর হানাদার ঘাঁটি তারা দখল করে নেয়। ঘাটাইল থানার দু'দিকে কালিদাসপাড়া ও বানিয়ারা সেতু দখল করে মুক্তিবাহিনী আক্রমণ শুরু করে। ঘাটাইল ও গোপালপুরের হানাদার ঘাঁটিতে বিমান আক্রমণের জন্য ভারতের সাহায্যের জন্য বেতার বার্তা পাঠানো হয়। ১০ ডিসেম্বর ভারতের কয়েকটি মিগ-২১ বিমান ঘাটাইল ও গোপালপুর হানাদার ঘাঁটিতে ব্যাপক আক্রমণ চালায়। এ সফল আক্রমণের ফলে হানাদার ঘাঁটি দুটির পতন ত্বরান্বিত হয়। ১০ ডিসেম্বর বিকেল ৪টায় কালিহাতী-পুংলীর মাঝামাঝি এলাকায় ভারতীয় ছত্রীসেনার অবতরণ শুরু হয়। ১০ ডিসেম্বর সন্ধ্যার পর থেকেই বিচ্ছিন্নভাবে মুক্তিযোদ্ধারা টাঙ্গাইল শহরে প্রবেশ করতে থাকে। মুক্তিযোদ্ধারা পুরনো শহরে উঠে পড়লে নতুন জেলা সদরে প্রায় ৪০০ খানসেনা আটকা পড়ে।

টাঙ্গাইল পুরনো শহর যখন মুক্ত, তখন কাদের সিদ্দিকী ও ভারতীয় ব্রিগেডিয়ার ক্লে বিশাল বাহিনী নিয়ে পুংলীতে অবস্থান করছিলেন। সিদ্দিকীর নেতৃত্বে মুক্তিবাহিনী হালকা অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে প্রথমে টাঙ্গাইল পর্যন্ত এগিয়ে যায়। বিকেল ৪টায় কয়েকটা খোলা জিপে মেশিনগান উঁচিয়ে ১০০ জন মুক্তিযোদ্ধা নিয়ে ক্যাপ্টেন সবুর খান খুব ধীরে ধীরে টাঙ্গাইলের দিকে এগোতে থাকেন। গাড়িবহর দেওলা পর্যন্ত এগিয়ে এলে জেলা সদরের দিক থেকে মেশিনগানের গুলি আসতে থাকে। মুক্তিযোদ্ধারা রাস্তার পূর্ব পাশে অবস্থান নেয়। জেলা সদরের পানির ট্যাংকের ওপর থেকে দুটি মেশিনগান থেকে অনবরত গুলি ছোড়া হচ্ছে। মুক্তিযোদ্ধাদের কাছে মেশিনগান ছাড়া কোনো ভারী অস্ত্র ছিল না। পাঁচ মিনিটের মধ্যেই মেজর হাকিম তিনটি আরআর, তিনটি ৩ ইঞ্চি মর্টার, ছয়-সাতটি ব্যান্ডার সাইট ও রকেট লাঞ্চারসহ তার গোলন্দাজ বাহিনী নিয়ে হাজির হন। প্রথম দুটি গোলাতেই হানাদাররা পর্যুদস্ত হয়ে পড়ে। গোলার আঘাতে স্তূপীকৃত বালির বস্তাগুলো উড়ে ছিটকে পড়তে থাকে আর হানাদাররা নিচে পড়ে যায়।

কাদের সিদ্দিকী সহযোদ্ধাদের নিয়ে সন্ধ্যায় টাঙ্গাইল জেলা সদরের শামসুল হক তোরণের সামনে এসে উপস্থিত হন। জেলা সদরে তখনও ৩০০ হানাদার আত্মসমর্পণ করেনি। মুক্তিবাহিনী প্রস্তাব পাঠালে তারা আত্মসমর্পণে সম্মত হয়। তবে শর্ত- ভারতীয় বাহিনী অথবা কাদের সিদ্দিকীর কাছে তারা আত্মসমর্পণ করবে। বঙ্গবীর কাদের সিদ্দিকী এসেছেন- সংবাদ পাঠালে হানাদার ক্যাপ্টেন মনোয়ার এসে তার সঙ্গে কথা বলে একজন মেজরসহ সবাই আত্মসমর্পণ করে।

ব্যাটিংয়েও ভালো শুরু ভারতের

ব্যাটিংয়েও ভালো শুরু ভারতের

ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশ সুপার ফোরে নিজেদের প্রথম ম্যাচের শুরুটা ভালো ...

খালেদা জিয়ার সঙ্গে স্বজনদের সাক্ষাৎ

খালেদা জিয়ার সঙ্গে স্বজনদের সাক্ষাৎ

বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করেছেন তার পরিবারের সদস্যরা। ...

'নায়ক' গেলো সেন্সরে

'নায়ক' গেলো সেন্সরে

ঢাকাই ছবির জনপ্রিয় নায়ক বাপ্পি ও নবাগতা অধরা খান জুটির ...

সোনাহাট স্থলবন্দরে শ্রমিকদের সংঘর্ষ, ১৪৪ ধারা জারি

সোনাহাট স্থলবন্দরে শ্রমিকদের সংঘর্ষ, ১৪৪ ধারা জারি

কুড়িগ্রামের ভুরুঙ্গামারী উপজেলার সোনাহাট স্থলবন্দরে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়েছে। ...

পাকিস্তানকে ভালো লক্ষ্য দিল আফগানরা

পাকিস্তানকে ভালো লক্ষ্য দিল আফগানরা

এশিয়া কাপে নিজেদের ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছে আফগানিস্তান। ভালো রান সংগ্রহ ...

চার জাতির টুর্নামেন্টে দর্শক মেসি

চার জাতির টুর্নামেন্টে দর্শক মেসি

আগামী মাসে সৌদি আরবে চার জাতির একটি টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হবে। ...

নির্বাচনের আগে সিনহা অপপ্রচারে উসকানি না দিলেও পারতেন: কাদের

নির্বাচনের আগে সিনহা অপপ্রচারে উসকানি না দিলেও পারতেন: কাদের

সাবেক প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহা নির্বাচনের আগে বই প্রকাশ ...

ভারতকে ১৭৪ রানের লক্ষ্য দিল বাংলাদেশ

ভারতকে ১৭৪ রানের লক্ষ্য দিল বাংলাদেশ

ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশ সুপার ফোরে নিজেদের প্রথম ম্যাচে ভালো শুরু ...